বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Nikhil-Nusrat: ‘সিঁদুর, সন্তানের জন্য ট্রোলড হয়ে নিজের পিঠ বাঁচাতে আমার দিকে আঙুল তুলছে’: নিখিল
নুসরতকে নিয়ে মুখ খুললেন নিখিল
নুসরতকে নিয়ে মুখ খুললেন নিখিল

Nikhil-Nusrat: ‘সিঁদুর, সন্তানের জন্য ট্রোলড হয়ে নিজের পিঠ বাঁচাতে আমার দিকে আঙুল তুলছে’: নিখিল

  • ‘ও নিজের মুখ লুকাতে চেষ্টা করছে', প্রাক্তন সঙ্গী নুসরত জাহানকে নিয়ে বিস্ফোরক নিখিল জৈন। 

তাঁর কথায় তিনি ‘আম আদমি’, যদিও সেই কমন ম্যান-এর স্টেটাসটা বদলে গিয়েছিল বছর খানেক আগেই। নুসরত জাহানের ‘প্রাক্তন সঙ্গী’ নিখিল জৈন এখন জনপ্রিয়তার বিচারে টেক্কা দেবেন যে কোনও টলিউড তারকাকে। সোশ্যাল মিডিয়ায় তাঁর ফলোয়ার সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়ছে, তাঁর নামে খুলেছে ফ্যানক্লাবও। সবকিছুর শুরুটা নুসরত-নিখিলের সম্পর্ককে ঘিরে। বছর ঘুরতে না ঘুরতেই ভেঙেছে নিখিল-নুসরতের ‘বিয়ে’। প্রতিদিনই নুসরতের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে নতুন কোনও চর্চা উঠে এসেছে, আর সেই সব আলোচনা, বিতর্কের অংশ থেকেছেন নিখিল জৈন। 

জুন মাসে নুসরতের বিষ্ফোরক ‘সহবাস’ বিবৃতি, নায়িকার অন্তঃসত্ত্বা হওয়া এবং গত মাসে ঈশানের জন্ম ও কলকাতা পুরসভার রেকর্ড ঈশানের বাবা হিসাবে যশ দাশগুপ্তের নামের উল্লেখ থাকার মতো ঘটনাবহুল বিষয় ঘটে গিয়েছে। তবুও যেন থামছে না বিতর্ক। এর মাঝে সোমবার ফের নতুন করে সংবাদ শিরোনামে নুসরত-নিখিলের ভাঙা সম্পর্ক। নিখিল জৈনের সঙ্গে তাঁর পুরুষ বন্ধুর ঘনিষ্ঠতা নিয়ে গুঞ্জন শুরু হতেই বিরক্ত নিখিল জৈন। 

এই নিয়ে হিন্দুস্তান টাইমস বাংলার তরফে যোগাযোগ করা হয়েছিল নিখিল জৈনের সঙ্গে। এ প্রসঙ্গে নিখিল জানান, ‘ক্ষমতার সঙ্গে সঙ্গে কিছু দায়িত্বও বর্তায়, আমি আশা করছি এবং অনুরোধ করছি যাতে বাড়ির বড়রা ওকে (নুসরত জাহান) বলে দেয় নিজের ভাষার উপর একটু নিয়ন্ত্রণ আনতে। নিজে বাঁচতে, জনতার সামনে নিজেকে সঠিক প্রমাণ করতে ভুয়ো ও ভিত্তিহীন অভিযোগ একজন সাধারণ মানুষের উপর লাগানো হচ্ছে। সেই সব জনতা, যাঁদের কিনা সে একাধিকবার বোকা বানিয়েছে। এই সব অভিযোগ আসলে, তাঁর এবং যেসব মানুষদের সঙ্গে সে মেলামেশা করে তাঁদের চিন্তাভাবনার প্রতিফলন। নুসরত একজন নির্বাচিত জনপ্রতিনিধি, সেটা ভুললে চলবে না’। 

এখানেই থেমে থাকেননি নিখিল। তিনি বলেন, ‘ও নিজের মুখ লুকাতে চেষ্টা করছে, কারণ মাথার সিঁদুর এবং ওর সন্তানের জন্য ওকে ট্রোলড হতে হয়েছে। এখন আমার উপর ভুলভাবে আঙুল তোলবার চেষ্টা চালানো হচ্ছে, তাঁর সেই সঙ্গীর উপর যাঁকে একদিন নুসরত বিয়ে করেছিল’।

২০১৯ সালের ১৯ই জুন তুরস্কের বোদরুমে নিখিল জৈনের সঙ্গে রূপকথার বিয়ে সেরেছিলেন নুসরত জাহান। 
২০১৯ সালের ১৯ই জুন তুরস্কের বোদরুমে নিখিল জৈনের সঙ্গে রূপকথার বিয়ে সেরেছিলেন নুসরত জাহান। 

২০১৮ সাল থেকেই এক বস্ত্র বিপনি সংস্থার কর্ণধারের সঙ্গে নুসরত জাহানের ঘনিষ্ঠতার খবর চাউর হয়েছিল টলিউডে।মাস কয়েক যেতে না যেতেই রাজনীতির আঙিনায় উত্থান এই টলি সুন্দরীর। ২০১৯-এর লোকসভা নির্বাচনে ফল ঘোষণার দিন কয়েকের মধ্যেই নিখিল জৈনের সঙ্গে নিজের সম্পর্কে শিলমোহর দিয়েছিলেন বসিরহাটের তৃণমূল সাংসদ। পরের মাসেই, ১৯শে জুন তুরস্কের বোদরুমে বিয়ের পর্ব সারেন নুসরত-নিখিল।

সেই ছবির প্রত্যেক ছবি ঝড়ের গতিতে ভাইরাল হয়েছিল সোশ্যাল মিডিয়ায়। পর্লামেন্টে শপথ গ্রহণের সময় নিজের নামের সঙ্গে নিখিলের পদবি জুড়ে নিয়েছিলেন নুসরত। তাঁদের ভালোবাসায়মাখা ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় নিমেষে ভাইরাল হতো। তবে মাসখানেক যেতে না যেতেই সুখের সংসারে ভাঙন ধরে। চলতি বছরের একদম শুরুতে নুসরত-নিখিলের আলাদা থাকবার কথা এবং যশ দাশগুপ্তের সঙ্গে নুসরতের অন্তরঙ্গতার কথা প্রকাশ্যে চলে আসে। সেই সময় রাজস্থানে ছুটি কাটাচ্ছিলেন ‘যশরত’। পরের কয়েকটা মাস প্রত্যেকদিন নুসরত-নিখিলের সম্পর্ক নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়ায় চলেছে কাঁটাছেঁড়া। আর সেটা কারুর অজানা নয়।

নিখিলের সঙ্গে সম্পর্ক ভাঙা নিয়ে আনন্দবাজারকে নুসরত জানিয়েছেন, ‘যে সম্পর্কে আমি নেই, তা নিয়ে কিছু বলতে চাই না। এই নিয়ে কোনও কথা বলব না। রিলেশনশিপ ওয়ার্ক না করলে বেরিয়ে আসতে হয়’। তবে নিখিলের সঙ্গে ‘বিয়ে’কে নুসরত ‘সহবাস’ বলেছিলেন কেন? এই নিয়ে তারকা সাংসদের সাফাই ‘নিখিল আমাকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছিল, সেখানে সহবাসের কথা লেখা ছিল। আমার মন্তব্য ভুলভাবে ব্যাখ্যা করা হয়েছে’। নিখিল-নুসরতের ‘বিচ্ছেদ’ মামলা আপাতত আদালতে বিচারাধীন। সেই সম্পর্কের জল এবার কোনদিকে গড়ায় সেটাই এখন দেখবার।

বন্ধ করুন