বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > আমিরের প্রেমে হাবুডুবু খেতেন শেফালি শাহ, পাঠিয়েছিলেন প্রেমপত্রও! তারপর…
কলেজে পড়াকালীন আমির খানের প্রতি 'ক্রাশ' ছিল শেফালি শাহ-র।

আমিরের প্রেমে হাবুডুবু খেতেন শেফালি শাহ, পাঠিয়েছিলেন প্রেমপত্রও! তারপর…

  • ১৯৯৫ সালে আমির খান অভিনীত ছবি 'রঙ্গিলা'-ই ছিল শেফালির ডেবিউ ছবি।

নব্বইয়ের দশকে আমির খান-এর 'চকোলেট লুক'-এ ঘায়েল হননি এমন অষ্টাদশীর সংখ্যা হয়ত হাতে গুণে বলা যেত। কিন্তু এই তালিকায় যে ছিলেন বলি-অভিনেত্রী শেফালি শাহ, সেকথা জানতেন কি? আজ্ঞে হ্যাঁ। কলেজে পড়াকালীন আমিরের উপর দারুণ ক্রাশ ছিল 'জলসা' ছবির এই অভিনেত্রীর। সম্প্রতি, নিজেই সেকথা জানিয়েছেন শেফালি।

মজার কথা, আমির অভিনীত ছবি 'রঙ্গিলা'-ই ছিল শেফালির ডেবিউ ছবি। তবে রাম গোপাল বর্মার নির্দেশনায় দিন চারেক কাজ করার পরপরই সেই ছবি ছেড়ে বেরিয়ে এসেছিলেন শেফালি। তাঁর মনে হয়েছিল যখন 'রঙ্গিলা' ছবিতে তাঁকে অভিনয়ের প্রস্তাব দেওয়া হয়েছিল তার সঙ্গে শ্যুটিংয়ের সময় এই চরিত্রটিতে বিস্তর ফারাক রয়েছে।

তবে এসবের কিছুই আমিরের প্রতি তাঁর ভালোলাগা কমানোর পাঁচিল হয়ে দাঁড়ায়নি। বলিউড হাঙ্গামাকে দেওয়া ওই সাক্ষাৎকারে শেফালি জানিয়েছেন, 'মিঃ পারফেকশনিস্ট' -র প্রতি তাঁর ভালোলাগা এমন পর্যায় পৌঁছেছিল যে বলি-তারকাকে নিজের একটি ছবিও পাঠিয়েছিলেন তিনি। সঙ্গে একটি প্রেমপত্রও, যেখানে মন উজাড় করে আমিরের প্রতি নিজের ভালোবাসার কথা লিখেছিলেন শেফালি!

শেফালির মুখে এহেন কথা শোনার পর পাশে বসা বিদ্যা বালন তাঁকে জিজ্ঞেস করেন যে আমির কি জানেন এই গোটা ব্যাপারটি? অর্থাৎ আমিরের প্রতি শেফালির যে এই ক্রাশ ছিল, সেকথা 'থ্রি ইডিয়টস'-এর তারকা জানেন কি না। জবাবে শেফালি বলে ওঠেন, 'মনে হয় না।' হাসতে হাসতে ফের মুখ খোলেন বিদ্যা, 'এবারে ঠিক জেনে যাবে আমির।'

প্রসঙ্গত, ১৮ মার্চ অ্যামাজন প্রাইম ভিডিয়োতে মুক্তি পেয়েছে ক্রাইম থ্রিলার 'জলসা'। ছবিতে মুখ্যভূমিকায় দেখা গিয়েছে শেফালি শাহ এবং বিদ্যা বালন-কে।

বন্ধ করুন