বাড়ি > বায়োস্কোপ > ‘মাই ডিয়ারেস্ট সুস..মানবতায় ভরপুর, বুদ্ধিদীপ্ত,নিজের ছন্দেই ও নাচত’,সুশান্তকে নিয়ে মন ছোঁয়া বার্তা শ্রদ্ধা কাপুরের
সুশান্ত সিং রাজপুতকে নিয়ে কান্নাভেজা ইনস্টা পোস্ট শ্রদ্ধার 
সুশান্ত সিং রাজপুতকে নিয়ে কান্নাভেজা ইনস্টা পোস্ট শ্রদ্ধার 

‘মাই ডিয়ারেস্ট সুস..মানবতায় ভরপুর, বুদ্ধিদীপ্ত,নিজের ছন্দেই ও নাচত’,সুশান্তকে নিয়ে মন ছোঁয়া বার্তা শ্রদ্ধা কাপুরের

  • সত্যিটা মেনে নেওয়ার চেষ্টা করছি,ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াইটাও চালিয়ে যাচ্ছি,খুব কঠিন। একটা বিরাট শূন্যতা..সুশান্ত…!

ছিছোড়ে কো-স্টার হতে পারেন তবে প্রকৃত বন্ধু শ্রদ্ধা কাপুর। সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর গোটা দেশ সেই ঘটনার সাক্ষী থেকেছেন। সুশান্তের মৃত্যুর পর সোশ্যাল মিডিয়ায় 'ফেক' শোকজ্ঞাপন নয় বরং সেই শোকের মূহূর্তে সুশান্তের পরিবারের পাশে দাঁড়িয়েছেন শ্রদ্ধা। সোমবার বৃষ্টিতে ভিজতে ভিজতে চোখের বন্ধু সুশান্ত সিং রাজপুতকে ভিলে পার্লের পবন হংস শ্মশানে শেষবিদায় জানিয়েছেন শ্রদ্ধা কাপুর। সুশান্তের মৃত্যুর পাঁচদিনের মাথায় অবশেষে সুশান্ত ও নিজের অনুরাগীদের সঙ্গে বন্ধুকে নিয়ে কিছু কথা লিখলেন শ্রদ্ধা কাপুর। যে মানুষটাকে খুব কাছ থেকে দেখেছেন,একসঙ্গে সময় কাটিয়েছে কেমন ছিল সেই মানুষটা? সেই  ক্রেজি জিনিয়াস সুশান্ত সিং রাজপুতের কথাই এক মর্মস্পর্শী সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে লিখলেন শ্রদ্ধা। 

এই সত্যিটা মেনে নেওয়ার চেষ্টা করছি,ঘুরে দাঁড়ানোর লড়াইটাও চালিয়ে যাচ্ছি,খুব কঠিন। একটা বিরাট শূন্যতা..সুশান্ত…! প্রিয়তম সুস….! মানবতায় মোড়া,বুদ্ধিদীপ্ত, জীবন নিয়ে যাঁর মধ্যে ভরপুর জানবার ইচ্ছা, সবকিছুর মধ্যে একটা সৌন্দর্য খুঁজে নেওয়ার চেষ্টা,সর্বত্র! নিজের ছন্দেই ও নাচত!

আমি সবসময় সেটে ওর দিকে তাকিয়ে থাকতাম,ভাবতাম আমাদের পরের আলোচনা কোন চিত্তাকর্ষক বিষয় নিয়ে হবে।নিজের কাজের জান প্রাণ ঢেলে দেওয়া  শুধু একজন দুর্দান্ত সহ অভিনেতা নয়, ও মানুষ হিসাবেও ততটাই অসধারণ,অনন্য। ও মানুষের জন্য ভাবত,তাদের সুখী দেখতে চাইত। ওর ও মায়াবী হাসি, আমাদের ওই আলোচনাগুলো যেগুলো শ্যুটিংয়ের সময় চলেছে মহাবিশ্ব নিয়ে, বিভিন্ন দর্শন নিয়ে,সেই মুহূর্তগুলো আমরা একসঙ্গে কাটিয়েছে সেগুলো সত্যি  ম্যাজিক্যাল, বিস্ময়মাখা! 

ওর বাড়িতে একটা মিউজিক্যাল আর কবিতায় ভরপুর আড্ডায় (ও মিউজিক আর কবিতা খুব ভালোবাসত) ও আমাকে চাঁদ দেখিয়েছিল ওর টেলিস্কোপ দিয়ে, আমি তো পুরো বাকরুদ্ধ হয়ে গেলাম.. এত কাছ থেকে এইরকম সৌন্দর্য আমি আগে কোনওদিনও দেখিনি!! ও অনুভূতি ও আমার সঙ্গে ভাগ করে নিতে চেয়েছিল! আমাদের ছিছোড়ে গ্যাং যখন ওর পাবনার সুন্দর বাড়িটায় গিয়েছিল তখন আমরা চমকে গিয়েছিলাম চারপাশের প্রকৃতি দেখে! ও প্রকৃতিকে ভালোবাসত! ও সবকিছু দেখত একটা ক্যালাইডোস্কোপের লেন্স দিয়ে,নিজের চারপাশের মানুষগুলোর সঙ্গেও ও সেই জিনিসটা ভাগ করে নিতে জানত। খুব ছোট ছোট জিনিসে ও বিস্মিত হত,সেগুলো ও বিশ্লেষণ করত জিনিয়াসের ভঙ্গিতে…! ও সত্যি,অন্য এক প্রকৃতির.. আমি তোমাকে মিস করব আমার প্রাণের সুস..

জ্বলতে থাকো তারার মতো…'

সুশান্তকে বড্ড ভালোবাসতেন শ্রদ্ধা,এদিন বৃষ্টি ভেজা মুম্বইতে বন্ধুর জন্য চোখের জল ফেললেন নায়িকা।
সুশান্তকে বড্ড ভালোবাসতেন শ্রদ্ধা,এদিন বৃষ্টি ভেজা মুম্বইতে বন্ধুর জন্য চোখের জল ফেললেন নায়িকা। (ANI )

সুশান্তকে নিয়ে লেখা দীর্ঘ পোস্টের সঙ্গে শ্রদ্ধা শেয়ার করে নেন দুটি ছবি।একটি ছবিতে রয়েছে সুশান্তের দেওয়া একটি উপহার, আই.সি রবলেদোর লেখা একটি বই- ‘সিক্রেট প্রিন্সিপ্যাল অফ জিনিয়াস’। সেই বইয়ে নিজের হাতে শ্রদ্ধার জন্য একটি বার্তাও লিখে দিয়েছেন সুশান্ত। বইটি গত বছর মার্চে শ্রদ্ধাকে উপহার দিয়েছিলেন সুশান্ত। অন্য ছবিতে দেখা মিলেছে দুটি ফটোফ্রেম এবং একটি ক্যান্ডেল লাইট। ফটোফ্রেমের একটিতে রয়েছে সুশান্ত-শ্রদ্ধার ছিঁছোড়ের একটি মিষ্টি স্মৃতি।অন্যটি রয়েছে ভিনসেনস্ট ভ্যান গফের আঁকা দ্য স্টারি নাইট পেন্টিংয়ের একটি ফ্রেমবন্দি ছবি।তবে এই ছবিটি

 প্রসঙ্গত সুশান্তের টুইটারের কভার ছবিও দ্য স্টারি নাইট। তাঁর মৃত্যুর পর যথেষ্টা চর্চা চলেছে এই ছবি নিয়ে। কারণ বিশ্বের এই অন্যতম চর্চিত ছবিটি অবসাদগ্রস্ত অবস্থায় এঁকেছিলেন ভ্যানগফ,মেন্টাল অ্যাসাইলেমে থাকাকালীন, এবং এই ছবি আঁকার মাস খানেকের মধ্যেই আত্মহত্যা করেন তিনি!

বন্ধ করুন