বাড়ি > বায়োস্কোপ > সুশান্তের বাড়ি ছাড়বার দিন ৮ হার্ড ড্রাইভ নষ্ট করেন রিয়া ! CBI-এর জেরায় নতিস্বীকার সিদ্ধার্থ পিঠানির : রিপোর্ট
সুশান্ত সিং রাজপুত ও রিয়া চক্রবর্তী 
সুশান্ত সিং রাজপুত ও রিয়া চক্রবর্তী 

সুশান্তের বাড়ি ছাড়বার দিন ৮ হার্ড ড্রাইভ নষ্ট করেন রিয়া ! CBI-এর জেরায় নতিস্বীকার সিদ্ধার্থ পিঠানির : রিপোর্ট

  • ৮ জুন ঝগড়া হয় সুশান্ত-রিয়ার। এরপর এক আইটি পার্সন এসে ওঁদের সামনেই ৮ টি কম্পিউটার হার্ড ড্রাইভ নষ্ট করে, সিবিআইকে জানিয়েছে সিদ্ধার্থ পিঠানি। 

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্তে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার সাঁড়াশি চাপে সুশান্তের ফ্ল্যাট মেইট সিদ্ধার্থ পিঠানি। শুক্রবার থেকে লাগাতার প্রতিদিন সিবিআই আধিকারিকদের ম্যারাথন প্রশ্নের মুখে পড়তে হচ্ছে সিদ্ধার্থ পিঠানি সহ সুশান্তের অন্য স্টাফদের, যাঁরা ১৪ জুনের ওই অভিশপ্ত দুপুরে হাজির ছিলেন বান্দ্রার কার্টার রোডের ফ্ল্যাটে।  সুশান্তের মৃত্যুর ঠিক ছয়দিন আগে ওই অ্যাাপার্টমেন্ট ছেড়ে চলে যান রিয়া।  কিন্তু ৮ জুন রিয়া ওই ফ্ল্যাট ছেড়ে যাওয়ার আগে নষ্ট করা হয়েছিল ৮টি কম্পিউটারের হার্ড ড্রাইভ। তেমনই কথা তথ্য সিবিআইয়ের জেরার মুখে জানিয়েছে সিদ্ধার্থ পিঠানি। 

ইন্ডিয়া টুডের রিপোর্টে বলা হয়েছে, সুশান্ত এবং রিয়ার সেদিন ঝগড়া হয়, এবং তারপর রিয়া বাড়ি ছাড়বার সিদ্ধান্ত নেয়। করোনাভাইরাস লকডাউন শুরুর আগে থেকেই সুশান্তের সঙ্গে ওই ফ্ল্যাটেই থাকছিল রিয়া। সিদ্ধার্থ জানিয়েছে ওই ৮ হার্ড ড্রাইভে কী ছিল তা তিনি জানেন না কিন্তু দেখেছেন একজন আইটির লোক সেদিন বাড়িতে আসে এবং রিয়া ও সুশান্তের উপস্থিতিতে ৮ হার্ড ড্রাইভ ক্নিন করে ফেলেন। এই ঘটনার সাক্ষী হিসাবে হাউজ হেল্প দীপেশ সাওয়ান্ত এবং রাঁধুনি নীরজের নাম নিয়েছে সিদ্ধার্থ পিঠানি। 

সুশান্ত সিং রাজপুতের পরিবারের আইনজীবী বিকাশ সিং এই প্রসঙ্গে বলেন, ‘আমার মনে হয় এর ভিতর অনেক বড় কোনও চক্রান্ত লুকিয়ে রয়েছে। মনে হচ্ছে এই ঘটনায় আরও অনেক বড় নাম জড়িয়ে রয়েছে। তবে সবার প্রথম যা হওয়া উচিত সেটা হল মুম্বই পুলিশ কমিশনার এবং ওই এলাকার ডিসিপিকে সাসপেন্ড করা’।

সিবিআই পিঠানি, নীরজ, দীপেশ ছাড়াও সুশান্তের সিএ সন্দীপ শ্রীধর, অভিনেতার প্রাক্তন অ্যাকাউন্টান্ট রজত মেওয়াতিকেও জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। বুধবার সুশান্তের অ্যাপার্টমেন্টের ওয়াচম্যানকে দীর্ঘসময় ধরে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। ডাক পড়েছিল সুশান্ত মামলার দায়িত্বে থাকা মুম্বই পুলিশের আধিকারিকেরও।  

রিয়ার সঙ্গে ইতিমধ্যেই মাদকচক্রের যোগ থাকার হদিশ পেয়েছে ইডি।যার জেরে বুধবার নারকোটিক্স কন্ট্রোল ব্যুরো তরফেও এফআইআর দায়ের করা হয়েছে রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে।

বন্ধ করুন