বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > মুম্বইয়ের নাইট ক্লাব থেকে গ্রেফতার হৃত্বিকের প্রাক্তন স্ত্রী সুজান,গায়ক গুরু রানধাওয়া সহ ৩৪
পরে জামিনে মুক্তি পান সুজান, গুরু
পরে জামিনে মুক্তি পান সুজান, গুরু

মুম্বইয়ের নাইট ক্লাব থেকে গ্রেফতার হৃত্বিকের প্রাক্তন স্ত্রী সুজান,গায়ক গুরু রানধাওয়া সহ ৩৪

  • করোনাবিধি লঙ্ঘন করে রাতভোর পার্টি করবার জেরেই গ্রেফতার হতে হল সুজান খান, গুরু রানধাওয়া, সুরেশ রায়নাদের। 

করোনাবিধি লঙ্খন করে রাতভর পার্টি করবার জন্য মঙ্গলবার ভোররাতে মুম্বইয়ে ড্রাগনফ্লাই ক্লাব (Dragonfly club in Mumbai) থেকে গ্রেফতার হন প্রাক্তন ভারতীয় তারকা ক্রিকেটার সুরেশ রায়না, সংগীত শিল্পী গুরু রানধাওয়া এবং হৃত্বিক রোশনের প্রাক্তন সুজান খান। মুম্বই এয়ারপোর্টের কাছে এই ক্লাবে আজ ভোররাতে প্রায় ৩টে নাগাদ হানা দেয় মুম্বই পুলিশের একটি দল। ক্লাবে উপস্থিত সকলের উপর করোনাবিধি ভাঙার অভিযোগ আনা হয়েছে।

মুম্বই পুলিশের যৌথ পুলিশ কমিশনার বিশ্বাস নাগরে পাতিল এই খবরের সত্যতা নিশ্চিত করে করে হিন্দুস্তান টাইমসকে জানান, ‘ক্লাবে উপস্থিত সকলে কোভিড বিধি ভাঙার দোষী হিসাবে পাওয়া গিয়েছে’।

এই ক্লাব থেকে ৭ জন ক্লাব কর্মী-সহ মোট ৩৪ জনকে গ্রেফতার করা হয়। ভারতীয় দন্ডবিধির ১৮৮ নম্বর ধারা ছাড়াও বম্বে পুলিশ আইন ও মহামারি আইনে এফআইআর দায়ের করা হয়ে ধৃতদের বিরুদ্ধে। গ্রেফতার হওয়ার ৩৪ জনের মধ্যে ১৯ জন দিল্লি ও পঞ্জাবের বাসিন্দা টুইট বার্তায় জানিয়েছে মুম্বই পুলিশ। পাশাপাশি বাদশার গানের লাইন ধার করে তাঁদের সাফ বক্তব্য, ‘পার্টি নেহি চলেগি টিল ৬ ইন দ্য মর্নিং'। এই লাইনের বাংলা তর্জমা হল সকাল ৬টা পর্যন্ত পার্টি করা চলবে না। 

নির্ধারিত সময়ের পরেও পানশালা খুলে রাখার জন্যই পুলিশ হানা দেয় ওই নাইট ক্লাবে। নাইট কার্ফু লঙ্ঘনের জেরেই তৈরি হয় এই জটিল পরিস্থিতি। সকলে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসা হয়, এরপর তাঁদের সিআরপিসি ৪১ (এ) (১)-এর ধারা অনুসারী জিজ্ঞাসাবাদের পর জামিনে মুক্তি দেওয়া হয়। 

বন্ধ করুন