বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > অনুরোধ রাখেননি লোপামুদ্রা, সাড়ে ৮ বছর একসঙ্গে গান করেননি নচিকেতা!
মনোমালিন্যের জেরে সাড়ে ৮ বছর গায়িকা লোপামুদ্রা মিত্রর সঙ্গে অনুষ্ঠানে গান গাননি নচিকেতা।
মনোমালিন্যের জেরে সাড়ে ৮ বছর গায়িকা লোপামুদ্রা মিত্রর সঙ্গে অনুষ্ঠানে গান গাননি নচিকেতা।

অনুরোধ রাখেননি লোপামুদ্রা, সাড়ে ৮ বছর একসঙ্গে গান করেননি নচিকেতা!

  • গানের সূত্রেই বহু বছরের ধরে সম্পর্ক নচিকেতা এবং লোপামুদ্রা মিত্রের। গানের সুবাদেই শুরু হয়েছিল বন্ধুত্ব আবার এক গানের অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করেই সেই সম্পর্কের বাঁধন ছিন্ন না হলেও আলগা হয়েছিল।

দু'জনেই খ্যাতনামা শিল্পী। দু'জনেই গানের জগতের মানুষ। গানের সূত্রেই বহু বছরের ধরে সম্পর্ক নচিকেতা এবং লোপামুদ্রা মিত্রের। গানের সুবাদেই শুরু হয়েছিল বন্ধুত্ব আবার এক গানের অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করেই সেই সম্পর্কের বাঁধন ছিন্ন না হলেও আলগা হয়েছিল। আনন্দবাজারকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে একথা ফাঁস করলেন স্বয়ং লোপামুদ্রা।

লোপামুদ্রা কথা থেকেই জানা গেল সাড়ে আট বছর তাঁর সঙ্গে এক মঞ্চে গান করেননি নচিকেতা! আর এর সূত্রপাত বহু বছর আগে হওয়া এক গানের অনুষ্ঠানকে কেন্দ্র করেই। সেখান থেকেই শুরু হয়েছিল এই দুই শিল্পীর মনোমালিন্য। লোপামুদ্রা কথায় ,' ঘটনার শুরু একটি অনুষ্ঠান থেকে। নাম ছিল 'নচিকেতা নাইট'। সেই সময় বিরাট জায়গায় নচিদা। ওই অনুষ্ঠানে পারফর্ম করার কথা ছিল আমার ও মনোময়েরও। তো নচিদা আমাকে এক ফাঁকে জানালো যে ওর আরও একটি জায়গায় অনুষ্ঠান আছে। তাই ওকে আগে ছেড়ে দিতে হবে। কিন্তু আমার পক্ষে সেটা করা সম্ভব হয়নি। রগে-অভিমানে নচিদা আমার সঙ্গে সাড়ে আট বছর কোনও অনুষ্ঠান করেনি!

তবে সময় যত গড়িয়েছে, রাগ-অভিমানের জমাট বরফ গলেছে। লোপামুদ্রা জানান নচিকেতা নিজেই তাঁর সঙ্গে সবকিছু ঠিক করে নেন। গায়িকার কথায়, 'ওঁর নিশ্চয়ই মনে হয়েছিল আমার সঙ্গে সব ঠিক করে নেবে। একবার ফের এমন হল আমার ও নচিদার একই অনুষ্ঠানে গান গাওয়ার ডাক পড়েছে। আমি সবার আগে ম্যানেজারকে বলেছিলাম নচিকেতাকে জিজ্ঞেস করে নিতে যে আমার সঙ্গে এক অনুষ্ঠানে ওঁর গান গাইতে কোনও আপত্তি আছে কি না। এমনকি নচিকেতা যাতে তাঁর সুবিধা মতো সময়ে গান গাইতে পারেন, সে ব্যাপারেও আমার সহযোগীকে নজর দিতে বলেছিলাম'।

সামান্য থেমে লোপামুদ্রা আরও বলেন, 'আমি নচিদাকে ভীষণ ভালোবাসি। একবার এক অনুষ্ঠানে আমার সঙ্গে ওঁর দেখা হয়েছিল। তখন মান-অভিমানের পালা চলছে। আমার সঙ্গে অনুষ্ঠান করছে না নচিদা। আমি ওঁকে দেখেই ডেকে বলে উঠি , এই শোনো, তুমি তো নচিকেতা চক্রবর্তী। তুমি লোপামুদ্রার জায়গায় নামছ কেন? তুমি কেন এটা করছ আমার সঙ্গে?’ যাই হোক, ও পালিয়ে গিয়েছিল।' তবে নচিকেতার সঙ্গে মনোমালিন্যের জেরে কখনওই তাঁর স্বামী তথা সুরকার জয় সরকারকে 'নচিদা'র সঙ্গে কাজ করতে বাধা দেননি লোপামুদ্রা।

তাহলে নচিকেতার সঙ্গে সম্পর্কে যে ফাটল ধরেছিল, সেই মনোমালিন্যের আফসোস কি আজও রয়ে গেছে গায়িকার? জবাবে লোপামুদ্রা বলেন, 'আমি যা করেছিলাম, একদম ঠিক করেছিলাম। নচিদা যদি যদি আগে গান করে চলে যেত, তা হলে যাঁরা আয়োজন করেছিলেন, তাঁদের অনুষ্ঠানটি নষ্ট হয়ে যেত'।

বন্ধ করুন