বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ঋদ্ধি-খড়ির রসায়ন আসলে আমাদেরই বন্ধুত্ব, গৌরবের জন্মদিনে খোলা চিঠি শোলাঙ্কি
কাজের মাধ্য়মেই দু'জনের বন্ধুত্ব।

ঋদ্ধি-খড়ির রসায়ন আসলে আমাদেরই বন্ধুত্ব, গৌরবের জন্মদিনে খোলা চিঠি শোলাঙ্কি

  • গৌরবের সঙ্গে আমার খুব মজার সম্পর্ক। সিনেমা, খাওয়াদাওয়া- ওর সঙ্গে অনেক কিছু নিয়ে আড্ডা মারা যায়। বন্ধু গৌরব যতটা ভালো, ততটাই ভালো সহ-অভিনেতা গৌরব।

শোলাঙ্কি রায়

গৌরবের সঙ্গে আমার প্রথম আলাপ আজ থেকে বছর দুয়েক আগে। ২০২০ সালে। এখনও মনে আছে দিনটা। ছবির পরিচালক অরিত্র মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে ওর বাড়িতে গিয়েছিলাম। 'বাবা বেবি ও…'-র চিত্রনাট্য পড়তে। সেই প্রথম কথা বলা।

এত বছর একই ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করেছি। অথচ 'বাবা বেবি ও…' করার আগে কখনও দেখা হয়নি আমাদের। প্রথমে ছবি, তার পর ধারাবাহিক। কাজ করতে করতেই বন্ধুত্ব।

গৌরবের সঙ্গে আমার খুব মজার সম্পর্ক। সিনেমা, খাওয়াদাওয়া- ওর সঙ্গে অনেক কিছু নিয়ে আড্ডা মারা যায়। বন্ধু গৌরব যতটা ভালো, ততটাই ভালো সহ-অভিনেতা গৌরব। ভীষণ বুদ্ধিমান একজন মানুষ। একটা কথা না বললেই নয়। ও অত্যন্ত ভদ্র। ও প্রত্যেকের সঙ্গে যে ভাবে থাকে, যেমন আচরণ করে, তা দেখার মতো।

আমাদের বন্ধুত্বটাই 'গাঁটছড়া'য় ঋদ্ধি-খড়ির রসায়নকে এত সুন্দর করে ফুটিয়ে তোলে। মনে হয়, দু'জনের বোঝাপড়ার ছাপ থেকে যায় পর্দায়। গৌরবের সঙ্গে কাজ করে আমি অনেক কিছু শিখেছি। আশা করি, ওরও আমার সঙ্গে কাজ করতে ভালো লাগছে।

আর গৌরবের জন্মদিন। চাইব, সারা জীবন যাতে ও এই রকমই থাকে। আরও অনেক ভালো ভালো কাজ করে। অনেক শুভেচ্ছা রইল ওর জন্য। এ ভাবেই এগিয়ে যাক। মানুষের মন জিতে নিক বারবার।

 

 

বন্ধ করুন