বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Sonali Phogat: খুনের আগে জোর করে মাদক খাওয়ানো হয় সোনালিকে,পরিবারের দাবি ধর্ষণের শিকার BJP নেত্রী

Sonali Phogat: খুনের আগে জোর করে মাদক খাওয়ানো হয় সোনালিকে,পরিবারের দাবি ধর্ষণের শিকার BJP নেত্রী

সোনালি ফোগাত

Sonali Phogat Case Update: সোনালির পানীয়তে মাদক মিশিয়েছিল সহকর্মীরা, জেরায় সে কথা শিকারও করে নিয়েছে দুই অভিযুক্ত। মিলেছে সিসিটিভি-র ফুটেজও, জানাল গোয়া পুলিশ। 

আচমকা হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে গোয়ার হোটেলে মৃত্যু হয়েছে টিকটিক স্টার তথা বিজেপি নেত্রী সোনালি ফোগাতের, দিন তিনেক আগেই এই খবর নাড়িয়ে দিয়েছিল গোটা দেশকে। যদিও ময়নাতদন্তের রিপোর্ট মোড় ঘুরিয়ে দিয়েছে এই মামলার! খুন হয়েছেন বিজেপি নেত্রী তথা প্রাক্তন বিগ বস প্রতিযোগী। 

ময়নাতদন্তের রিপোর্টে উল্লেখ করা হয়েছে একাধিক আঘাতের চিহ্ন রয়েছে শরীরে। ভোঁতা জাতীয় কিছু দিয়ে আঘাতের দাগ রয়েছে সোনালির শরীরে। এরপর গোয়া পুলিশের তরফে খুনের ধারা (৩০২) যোগ করা হয় সোনালির দুই সহযোগী সুধীর সাগওয়ান ও সুখবিন্দর ওয়াসিকে। প্রয়াত তারকার পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে দুই সহযোগীকে আগেই গ্রেফতার করেছে পুলিশ। শনিবার নতুন মোড় নিল এই মামলা। গোয়া পুলিশ এদিন সাংবাদিক বৈঠকে জানান, সোনালি মৃত্যুর আগের রাতে পার্টি করছিলেন দুই সহকর্মীর সঙ্গে। সেখানে একজন সহকর্মীর মৃতার পানীয় মাদক মিশিয়ে দেয়। জেরায় একথা শিকারও করে নিয়েছে অভিযুক্ত। হোটেলের সিসিটিভি ফুটেজেও অভিযুক্তদের এই কুকীর্তি ধরা পড়েছে। জানান, আইজিপি ওমবীর সিং বিষ্ণোই। 

এর আগেই সোনালির পরিবার অভিযোগ জানিয়েছিল খাবারে বিষ মিশিয়ে প্রথমে ধর্ষণও পরে খুন করা হয় হরিনায়ার বিজেপি নেত্রীকে। প্রয়াত অভিনেত্রীর দাদা রিঙ্কু জানান, পুরোটাই দীর্ঘমেয়াদি ষড়যন্ত্র। গোয়ায় ২৪শে অগস্ট শ্যুটিং-এর দিন নির্দিষ্ট ছিল সোনালির। অথচ হোটেলের ঘর বুকিং করা হয়েছিল শুদু ২১ ও ২২ তারিখের জন্য। কেন এমনটা ঘটল? তাছাড়া ‘হৃদরোগে’ আক্রান্ত সোনালিকে যে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল, গোয়ার সেই সেন্ট অ্যান্টনি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ স্পষ্ট জানিয়েছে আগে থেকেই মৃত্যু হয়েছিল সোনালির। মৃত্যুর আগের রাতে পরিবারের লোকজনকে সোনালি বলেছিলেন, খাবার খাওয়ার পর থেকে অস্বস্তিবোধ হচ্ছে তাঁর। এরপর তাঁর ফোনে যোগাযোগ করা যায়নি সোনালির সঙ্গে। পরদিন আসে মৃত্যুসংবাদ। 

সোনালির দাদা আরও জানান, বছর তিনেক আগে অভিযুক্ত সহকর্মীর যৌন হেনস্থার শিকার হয়েছিলেন সোনালি। কিন্তু হুমকির জেরে মুখ বন্ধ রাখতে বাধ্য হন তিনি। কিছু অশ্লীল ছবি ও ভিডিয়ো দেখিয়ে সোনালিকে ব্ল্যাকমেইল করছিল ওই সহযোগী। অভিনেত্রীর কেরিয়ার শেষ করে দেওয়ার হুমকি আসত মাঝেমধ্যেই। 

সোনালির ময়নাতদন্তে রিপোর্ট আরও খতিয়ে দেখা হচ্ছে, প্রয়াত অভিনেত্রীকে ধর্ষণ করা হয়েছে কিনা, তা জানার জন্য বিশেষ কিছু রাসায়নিক বিশ্লেষণ হবে। এরপর এই হত্যা-রহস্যের জট পুরোপুরি খুলবে বলে মনে করছে পুলিশ। 

উল্লেখ্য, ২০১৯ সালে হরিয়ানার বিধানসভা নির্বাচনে বিজেপির টিকিটে আদমপুর থেকে নির্বাচনে লড়েছিলেন সোনালি, যদিও জয় আসেনি। এদিন হরিয়ানার পৈতৃক ভিটে হিসারেই সোনালি ফোগাতের শেষকৃত্য সম্পন্ন হল। বছর ছয়েক আগেই মৃত্যু হয়েছে তাঁর স্বামীর। সোনালি একা রেখে চলে গেলেন তাঁর একমাত্র মেয়ে যশোধরাকে। মায়ের মৃত্যুর সুবিচার দাবি করেছে যশোধরা।

বন্ধ করুন