বাড়ি > বায়োস্কোপ > কঙ্গনার পাশে সোনু নিগম,দাবি 'মহেশ ভাটের পক্ষে জুতো ছোঁড়া এক্কেবারে সম্ভবপর'
কঙ্গনার পাশে সোনু 
কঙ্গনার পাশে সোনু 

কঙ্গনার পাশে সোনু নিগম,দাবি 'মহেশ ভাটের পক্ষে জুতো ছোঁড়া এক্কেবারে সম্ভবপর'

  • সোনু নিগম জানিয়েছেন, তাঁর বিশ্বাস এই ধরণের অভিযোগ কেউ গল্প ফাঁদার জন্য আনবে না। সত্যি কথাই বলছেন কঙ্গনা রানাওয়াত। 

সুশান্ত সিং রাজপুতেরর মৃত্যু প্রশ্নের মুখে দাঁড় করিয়ে দিয়েছে বলিউডকে। গত ১৪ই জুন সুশান্তের আত্মহত্যার পর থেকেই নানা কারণে বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে থেকেছেন পরিচালক,প্রযোজক মহেশ ভাট। কঙ্গনা সম্প্রতি নিজের  একাধিক সাক্ষাত্কারে তোপ দেগেছেন মহেশ ভাটের বিরুদ্ধে। বলেছেন তাঁর ডেব্যিউ ছবি,গ্যাংস্টারের প্রযোজক মহেশ ভাট তাঁকে চপ্পল ছুঁড়ে মেরেছিলেন পরবর্তী সময়ে মহেশ ভাটের ছবিতে অভিনয় না করায়। 

কঙ্গনার এই অভিযোগ সম্পর্কে টাইমস নাও'কে দেওয়া সাক্ষাত্কারে সোনু বলেন- কঙ্গনার প্রতি তাঁর অগাধ শ্রদ্ধা রয়েছে। এবং কঙ্গনা যা বলেন তা মন থেকে বলেন, কাউকে ভয় পান না অভিনেত্রী। ‘উনি যদি বলে থাকেন ওঁনাকে জুতো ছুঁড়ে মারা হয়েছিল, তাহলে এটা ঘটেই থাকবে’। সোনু আরও যোগ করেন, আমার সঙ্গে এমন কোনও ঘটনা ঘটেনি যদিও আমি গত ২৫-৩০ বছর ধরে কাজ করছি। কিন্তু তা সত্ত্বেও যদি কঙ্গনা এটা দাবি করেন এমন কোনও দুর্ভাগ্যজনক ঘটনা ওঁনার সঙ্গে ঘটেছে তাহলে সেটা সঠিক হবে কারণ কেউ গল্প বলবার জন্য এই ধরণের অভিযোগ আনে না'।

দিন কয়েক আগেই কঙ্গনা রানাওয়াতকে উদ্দেশ্য করে মহেশ ভাট কন্যা পূজা ভাট মন্তব্য করেছিলেন,  ভাট ক্যাম্পের হাত ধরেই বলিউডে আত্মপ্রকাশ কঙ্কনা রানাওয়াতের। তিনি লেখেন,'কঙ্গনা দুর্দান্ত ট্যালেন্ট। যদি বিশেষ ফিল্মস গ্যাংস্টারে লঞ্চ না করত তাহলে কঙ্গনা কি কঙ্গনা হতো?' জবাবে কঙ্গনা রানাওয়াতের টিম ফের জুতো ছোঁড়ার ঘটার প্রসঙ্গ টেনে বলে, মুকেশ ভাট শিল্পীদের টাকা দিতে পছন্দ করেন না তাই নতুনদের সুযোগ দেওয়া হয়। পাশাপাশি কাউকে লঞ্চ করবার অর্থ এই নয় যে তাঁর প্রতি চপ্পল ছোঁড়া যায় কিংবা তাঁকে পাগল আখ্যা দিয়ে তাঁর অপমান করা যায়। 

চলতি বছর ফেব্রুয়ারিতে প্রথম মহেশ ভাটের বিরুদ্ধে এই বিস্ফোরক অভিযোগ এনেছিলেন কঙ্গনার দিদি তথা ম্যানেজার রঙ্গোলি চান্দেল। মহেশ ভাট পত্নী সোনি রাজদানের এক টুইটের জবাবে রঙ্গোলি বলেছিলেন- ধোঁকা ছবিতে আত্মঘাতী বিস্ফোরণে নিজেকে উড়িয়ে দিতে হবে এমন এক চরিত্র করতে অস্বীকার করায় ও লমহে ছবির এক প্রিভিউতে কঙ্গনার মুখে চপ্পল ছুঁড়ে মেরেছিলেন মহেশ ভাট। এমনকি কঙ্গনার নিজের ছবি ওহ লমহে দেখার সুযোগও দেওয়া হয়নি কঙ্গনাকে! কাঁদতে কাঁদতে হল থেকে বেরিয়ে আসতে হয়েছিল তাঁকে। 

কঙ্গনার এই অভিযোগ নিয়ে যদিও এখনও পর্যন্ত কোনও মন্তব্য করেননি মহেশ ভাট। 

বন্ধ করুন