বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > সাহায্য করেও প্রশ্নের মুখে? প্রমাণসহ সপাটে জবাব সোনুর
সোনু সুদ
সোনু সুদ

সাহায্য করেও প্রশ্নের মুখে? প্রমাণসহ সপাটে জবাব সোনুর

  • ওড়িশার গঞ্জম-এর জেলা প্রশাসকের দাবির পালটা জাবাব দিতে ভোলেননি ‘মাসিহা’ সোনু সুদ।

করোনাকালে শুরু থেকেই মানুষের পাশে বিভিন্ন ভাবে সাহয্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন অভিনেতা সোনু সুদ। এবার সেই সোনুকে পড়তে হল সমালোচনার মুখে। সোনু সুদের নাম ব্যবহার করে সোশ্যাল মিডিয়ায় টাকা চাওয়ার অভিযোগ উঠেছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই নিয়ে অনুরাগীদের সতর্ক করলেন তিনি। পুলিশেও অভিযোগ দায়ের করেন অভিনেতা। 

অন্যদিকে আবার, ওড়িশার গঞ্জম-এর জেলা প্রশাসকের দাবি, সোনু সুদ হাসপাতালের বেডের ব্যবস্থা করে দিয়ে কৃতিত্ব চাইছেন। কিন্তু জেলা প্রশাসকের সঙ্গে সোনুর ফাউন্ডেশন যোগাযোগই করেনি। সোনু জানান, তিনি কখনোই দাবি করেননি, তাঁর ফাউন্ডেশন জেলাপ্রশাসনের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিল। একজনের প্রয়োজন বুঝে বেডের ব্যবস্থা করে দেন তিনি। পাশাপাশি প্রমাণ স্বরূপ বেশ কিছু হোয়াটসঅ্যপের স্ক্রিনশট শেয়ার করেন সোনু। সেই স্ক্রিনশটের কথপোকথনে উঠে এসেছে একজনের অক্সিজন বেডের প্রয়োজনের বিষয়।

প্রসঙ্গত, গত সোমবার সোমবার গঞ্জম জেলার প্রশাসক টুইটে জানান, সোনু সুদের ফাউন্ডেশন তাঁদের সঙ্গে কোনো যোগাযোগ করেনি। রোগীকে হোম আইসোলেশনে থাকতে বলেছেন তাঁরা। কোনো বেডের সমস্যা নেই।

এই উত্তরে সোনু টুইটে পালটা লেখেন, ‘আমরা একবারও দাবি করিনি, আপনার কাছে আমরা আবেদন করেছিলাম। একজন মানুষের প্রয়োজন হয়েছিল। তিনি আমাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছিলেন, আমরা তাঁকে বেডের ব্যবস্থা করে দিই। আপনার সুবিধার জন্য হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট সঙ্গে অ্যাটাচ করে দিলাম। আপনার অফিস খুব ভালো কাজ করছে এবং আপনি খোঁজ নিয়ে দেখতে পারেন আমরাও তাঁকে সাহায্য করেছি। আপনাকে ব্যক্তিটির যোগাযোগ পাঠালাম। জয় হিন্দ’। ক্যাপশনের সঙ্গে সোনুকে প্রমাণ স্বরূপ বেশ কিছু হোয়াটসঅ্যপের স্ক্রিনশট জুড়ে দিতে দেখা যায়।

এই প্রথম নয় এর আগেও সাহায্য করে নানা কটূক্তির শিকার হয়েছেন অভিনেতা। তবে তিনি থেমে থাকেননি। আর্তের সাহায্য চালিয়ে গেছেন।

 

বন্ধ করুন