বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > পঞ্জাবে সিনেমা হলে তাণ্ডব কৃষকদের, অক্ষয়ের পোস্টার ছিঁড়ে বন্ধ করা হল সূর্যবংশী
'সূর্যবংশী' ছবির পোস্টারে অক্ষয়।
'সূর্যবংশী' ছবির পোস্টারে অক্ষয়।

পঞ্জাবে সিনেমা হলে তাণ্ডব কৃষকদের, অক্ষয়ের পোস্টার ছিঁড়ে বন্ধ করা হল সূর্যবংশী

শনিবার পঞ্জাবে হোশিয়ারপুরের একটি হলে তাণ্ডব চালিয়ে 'সূর্যবংশী'-র শো বন্ধ করে দিল একদল কৃষক। ছিঁড়ে ফেলা হল অক্ষয়ের পোস্টারও। 

শুক্রবার বড়পর্দায় মুক্তি পেয়েছে অক্ষয় কুমার-ক্যাটরিনা কইফ অভিনীত 'সূর্যবংশী'। ইতিমধ্যেই বক্স অফিস জমজমাট। বিভিন্ন সিনেমা হলে রমরমিয়ে চলছে এই ছবি। করোনা পরবর্তী সময়কালে মুক্তি পেতেই বক্স অফিসে আশার আলো জাগিয়েছে এই ছবি। রোহিত শেট্টি পরিচালিত এই ছবি দীপাবলির মরশুমে প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেতেই প্রথমদিনে বিশ্বজুড়ে মোট ২৬ কোটি টাকার ব্যবসা করেছে। শুধু তাই নয়, 'সূর্যবংশী' ছবি নিয়ে এতটাই আগ্রহ জন্মেছে মনে যে সারা রাত হলে এই ছবি চালানোর পরেও ভোর সাড়ে চারটে নাগাদও দর্শকদের চাপে পড়ে ফের শুরু করতে হল এই ছবি! তবে পঞ্জাবের ছবিটা সম্পূর্ণ আলাদা। সেখানে অক্ষয়ের এই ছবি বন্ধ করার জন্য মরিয়া একদল কৃষক। শুধু মরিয়া বললে ভুল, শনিবার পঞ্জাবে হোশিয়ারপুরের একটি হলে 'সূর্যবংশী'-র শো বন্ধ করে দিল একদল কৃষক।

কেন্দ্রের কৃষি আইনের বিরুদ্ধে স্লোগান তুলতে তুলতে ওই আন্দোলনরত কৃষকের দল এই কাণ্ড ঘটিয়েছে। তাদের দাবি, ছবিতে সারা দেশ জুড়ে কেন্দ্রের এই কৃষি আইনের বিরুদ্ধে আন্দোলন চালাচ্ছেন কৃষকরা। এই ছবিতে তাঁদের বিষয় কিংবা কৃষকদের সমর্থনে একটি বাক্যও খরচ করেননি অক্ষয়। রাখা হয়নি কোনও দৃশ্যও।

পিটিআই সংবাদ সংস্থার প্রতিবেদন অনুযায়ী হোশিয়ারপুরের শহীদ উধম সিং পার্ক থেকে ওই সিনেমা হল পর্যন্ত কৃষকদের একটি মিছিল যায়। নেতৃত্বে ছিলেন 'ভারতী কিষাণ ইউনিয়ন'-এর জেলা সভাপতি স্বরণ দুগ্গা। এরপর হলের সামনে জমায়েত তৈরি করে অক্ষয়ের পোস্টার ছিঁড়ে ফেলার পাশাপাশি সেইসময়ে 'সূর্যবংশী'-র স্ক্রিনিংও বন্ধ করে দেয় তারা। সঙ্গে জোর গলায় তাঁদের তরফে ঘোষণা করা হয় যতদিন না অক্ষয়ের তরফে কেন্দ্রের কৃষি আইনের বিরুদ্ধে কোনও বক্তব্য না রাখা হবে ততদিন 'খিলাড়ি'-র কোনও ছবি স্থানীয় সিনেমা হলে তাঁরা চালাতে দেবেন না।

 

বন্ধ করুন