বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > সৌমিত্রের সন্তোষজনক ফলের আশা কমছে, অলৌকিকের ভরসায় চিকিৎসকরা

কলকাতা : অভিনেতা সৌমিত্র চট্টোপাধ্যায়ের অবস্থা অত্যন্ত সংকটজনক। গত ২৪ ঘণ্টায় তাঁর শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়নি। আপাতত যা শারীরিক অবস্থা, তাতে সেই সংকটজনক পরিস্থিতি থেকে বেরিয়ে আসার জন্য মিরাকেল বা অলৌকিকের প্রয়োজন আছে বলে দক্ষিণ কলকাতার বেসরকারি হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছে।

শনিবার বিকেল সাড়ে চারটের বুলেটিনে সৌমিত্রবাবুর মেডিক্যাল দলের প্রধান তথা চিকিৎসক অরিন্দম কর জানান, গত ২৪ ঘণ্টা ধরে বর্ষীয়ান অভিনেতার শারীরিক অবস্থা ভালো নেই। তাঁকে বিভিন্ন ধরনের জীবনদায়ী সাপোর্টে রাখা হয়েছে। অরিন্দমবাবু বলেন, ‘উনি ভালো নেই। মনে হচ্ছে, তাঁকে সুস্থ করে তোলার জন্য আমাদের প্রায় ৪০ দিনের লড়াই যথেষ্ট নয়। আপাতত আমাদের নতুন কিছু বলার নেই। উনি যাতে ভালো হয়ে ওঠেন, আমাদের সবাইকে সেই প্রার্থনা করতে হবে। তবে মনে হচ্ছে যে তাঁর সন্তোষজনক ফলের আশা খুব বেশি।’

হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছে, সৌমিত্রবাবুর পরিবার-পরিজনকে ইতিমধ্যে খবর দেওয়া হয়েছে। সৌমিত্রবাবুর মেডিক্যাল দলের প্রধান বলেন, ‘এখন যে চিকিৎসা করা হচ্ছে, তাতে উনি সাড়া দিচ্ছেন না। তাঁর শারীরিক অবস্থা অত্যন্ত সংকটজনক।’ চিকিৎসকরা প্রাণপণে চেষ্টা চালিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন অরিন্দমবাবু।

অথচ দিনদুয়েক আগেই সৌমিত্রবাবুর শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল ছিল। গত বুধবার সৌমিত্রবাবুর শ্বাসনালিতে অস্ত্রোপচার বা ট্রাকিওস্টমি করা হয়েছিল। সেই প্রক্রিয়ায় অস্ত্রোপচার করে শ্বাসনালীতে (ট্রাকিয়া) ট্রাকিওস্টোমি টিউব স্থাপন করা হয়ে থাকে। যাতে নাক-মুখের বদলে গলায় থাকা ওই টিউবের মুক্ত প্রান্তের মধ্য দিয়ে শ্বাসপ্রশ্বাস হয়। সেই অস্ত্রোপচারের পর হাসপাতালের তরফে জানানো হয়েছিল, পুরোপুরি সফলভাবেই প্রবীণ অভিনেতার শ্বাসনালিতে অস্ত্রোপচার হয়েছে। তাঁর শারীরিক অবস্থাও স্থিতিশীল বলে জানানো হয়েছিল।

পরদিন তাঁর ‘প্রথম দফার’ প্লাজমাফেরেসিস (প্লাজমা থেরাপি) করা হয়েছিল। বাহ্যিক কোনও রক্তক্ষরণ হয়নি। চিকিৎসকরা বলেছিলেন, ‘যদিও তাঁর রক্তচাপ সামান্য পড়েছিল। যা সহজেই ঠিক করা সম্ভব হয়েছে। বিকেলে আমরা আবারও সিটি স্ক্যান করেছি। তাতে কোনও অস্বাভাবিকতা মেলেনি। তিনি এখন স্থিতিশীল আছেন এবং তাঁর রক্তচাপও এখন ঠিকঠাক আছে।’ কিন্তু শুক্রবার সৌমিত্রবাবুর শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়। 

বন্ধ করুন