বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Sangeeter Maha Juddho: 'খালি গলায় গানটা গেয়ে নিজের প্রোফাইলে আপলোড করুন', অভিজিতকে চ্যালেঞ্জ সৌম্যর
শো ছাড়ার হুমকি দিলেন সৌম্য
শো ছাড়ার হুমকি দিলেন সৌম্য

Sangeeter Maha Juddho: 'খালি গলায় গানটা গেয়ে নিজের প্রোফাইলে আপলোড করুন', অভিজিতকে চ্যালেঞ্জ সৌম্যর

  • ক্যামেরার সামনেই তুমুল কথাকাটাকাটি। সৌম্যর সমালোচনা করায় ক্ষেপে লাল গায়ক, ছুঁড়ে দিলেন পালটা চ্যালেঞ্জ। 

রিয়ালিটি শো-এর মঞ্চে প্রতিযোগিদের সঙ্গে বিচারকের মতপার্থক্য নতুন ঘটনা নয়। তবে এবার মাত্রা ছাড়াল সেই ঝামেলা। কালার্স বাংলায় আপতত সম্প্রচারিত হচ্ছে ‘সংগীতের মহাযুদ্ধ’। পরিচালক-প্রযোজক রাজ চক্রবর্তীর এই শো-এ অংশ নিচ্ছেন আগে থেকেই বাংলা রিয়ালিটি শো-এর মঞ্চ কাঁপানো তারকারা।যার অন্যতম সৌম্য চক্রবর্তী। এর আগেও শো-এর বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন প্রতিযোগী সৌম্য চক্রবর্তী। এবার প্রকাশ্যেই কড়া ভাষায় চ্যানেল ও বিচারকদের আক্রমণ শাণালেন সৌম্য। 

চলতি সপ্তাহে ‘সঙ্গীতের মহাযুদ্ধ’-এর প্রোমো ইতিমধ্যেই প্রকাশ্যে এনেছে চ্যানেল কর্তৃপক্ষ। গত সপ্তাহে প্রায় এলিমিনেট হওয়ার দরজা থেকে ফিরে আসা সৌম্যকে এই সপ্তাহে সাথিয়া ছবির ‘চুপকেসে’ গানটি গাইতে দেখা যাবে। গান শেষে বিচারক অভিজিত্ ভট্টাচার্য বলেন, ‘টেরিফিক (দুর্দান্ত) গেয়েছো কিন্তু তার মধ্যে কোনও লিরিকস ছিল না’। ‘চুপকেসে’র উচ্চারণ নিয়ে সৌম্যর সমালোচনা করেন নব্বইয়ের দশকে বলিউড কাঁপানো এই বাঙালি গায়ক। তবে সৌম্যর হয়ে ব্যাট ধরেন মেন্টরও। সব নিয়ে মঞ্চে প্রকাশ্যেই চলে কথা কাটাকাটি।

ফেসবুকে এই ভিডিয়োর কমেন্ট বক্সে সৌম্য লেখেন, ‘বাব্বাহ..এ তো দেখি খাসা ব্যাপার। যাক্ আপলোড হয়েছে ক্লিপ্ টা। মজা পেয়েছি।চারজন বিচারককেই বলতে চাইবো এই গানটা খালি গলায় গেয়ে নিজেদের প্রোফাইল থেকে সোশ্যাল মিডিয়ায় আপলোড করতে। সবাই শুনুক….. পারলে চেষ্টা করুন ন্যাশনাল চ্যানেলে গিয়ে জাজমেন্ট করার। আর ছুপকে কথাটার আসল উচ্চারণ যদি ভুল হয় তাহলে বলতে হবে…… গুলাম আলী খান সাহাব ভুল, অলভিদা গানের প্রথম লাইনও ভুল…. যাইহোক…. শয়তানির একটা লিমিটেশান থাকে। এই চ্যানেল তো ছাড়িয়ে গেলো দেখছি। যাকগে সবাইকে বলে রাখি আমি ক্যুইট করব বলেই বেরিয়েছি। এরকম একটা ঢপের শো, যার সাউন্ড ব্যালেন্সের মা বাবা নেই। টিআরপি, জিআরপি সবকটাই কাপের তলায়। এরকম শো সৌম্য,রাহুল,তীর্থ সুপ্রতীপদের ডিসার্ভ করে না। ভালো হয়েছে বেরিয়ে গেছি। একবার বলেছিলাম ডিয়ার অ্যাডমিনস্। আমার গানের ভিডিও যখন ছাড়তে পারোনি দীর্ঘদিন। তখন কোনো ভিডিওই ছেড়ো না। বাট তোমরা এতটা ভদ্র নও এবং চামড়াটাও এত সৌখিন নয় যে সেসব শুনবে। এক জায়গায় স্ট্রিক্ট থাকো না !!!!'

এখানেই থেমে থাকেননি সৌম্য, বাংলা সারেগামাপা-র এই প্রাক্তন প্রতিযোগী বলেন, এই শো-তে ধর্ম-কে ক্যাশ-ইন করবার চেষ্টা চালানো হচ্ছে বলেও অভিযোগ তোলেন। সৌম্যর কথায়, ‘আজান দিয়ে শুরু করে কীর্ত্তন আমিও গেয়েছিলাম সা রে গা মা পা তে। সুতরাং যে ধর্মীয় আঙ্গিক একটা শো এর প্রথম দিন থেকে প্রকাশ পাচ্ছে বারংবার সেটা আমি ছাড়াও আরে অনেকে বোঝে। আমি বিশ্বাস করি শিল্পীর জাত হয় না। বাট প্রয়োজনে দেখা যাচ্ছে তার ইউজ হয় ভালো মতো।পারলে একটু শিক্ষা বাড়াও আঁতেলস্…… ট্রাই টু বি গুড হিউম্যান বিইং অ্যাট ফার্স্ট’। গায়কের এই প্রতিবাদী কমেন্ট লাইকের বন্যা বয়ে যায়৷

সৌম্যর বিস্ফোরক কমেন্ট
সৌম্যর বিস্ফোরক কমেন্ট

সৌম্য চক্রবর্তী আরও জানান, তাঁকে প্রথমে জোর করে শো ছেড়ে বেরিয়ে যাওয়ার সিদ্ধান্ত পাল্টাতে বাধ্য করা হয়, এবং ঠিক তার পরের এপিসোডেই তাঁকে এলিমিনেট করে দেওয়া হয়। যদিও সেই নিয়ে আক্ষেপ নেই তাঁর। জানান, বাড়ি ফিরে বরং আনন্দই পেয়েছেন তিনি। 

উল্লেখ্য, অভিজিত্ ভট্টাচার্য ছাড়াও এই শো-এর বিচারক হিসাবে রয়েছেন জিত্ গঙ্গোপাধ্যায়, রাশিদ খান ও লোপামুদ্রা মিত্র। 

বন্ধ করুন