বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > বেহালা পশ্চিমের বিজেপি প্রার্থী শ্রাবন্তী, প্রতিপক্ষ TMC-র পার্থ চট্টোপাধ্যায়
শাহিদ কাপুরই নাকি শ্রাবন্তীর ক্রাশ! (সৌজন্যে-ইন্সটাগ্রাম)
শাহিদ কাপুরই নাকি শ্রাবন্তীর ক্রাশ! (সৌজন্যে-ইন্সটাগ্রাম)

বেহালা পশ্চিমের বিজেপি প্রার্থী শ্রাবন্তী, প্রতিপক্ষ TMC-র পার্থ চট্টোপাধ্যায়

  • যশ, পায়েল, পার্নোদের পর শ্রাবন্তীকেও টিকিট দিল বিজেপি। 

টলিপাড়ার বন্ধু পায়েল সরকারের পাশের কেন্দ্র বেহালা পশ্চিম থেকে বিধানসভা নির্বাচনে লড়বেন শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়। এই কেন্দ্রে প্রাথমিকভাবে বিজেপির টিকিট দেওয়ার কথা ছিল শোভন চট্টোপাধ্যায়কে। তবে রাজি ছিলেন না শোভনবাবু। তিনি চেয়েছিলেন নিজের গড় বেহালা পূর্ব থেকে ভোটে লড়তে। সেই কেন্দ্রে পায়েল সরকারের নাম ঘোষণা হতেই অপমানিত হয়ে দল ছেড়ে বেরিয়ে যান শোভন চট্টোপাধ্যায় ও তাঁর ছায়াসঙ্গী বৈশাখি বন্দ্যোপাধ্যায়।  

বৃহস্পতিবার বেহালা পশ্চিম কেন্দ্রে ফাঁকা প্রার্থীর নামের জায়গায় বসানো হল শ্রাবন্তী চট্টোপাধ্যায়ের নাম। বৃহস্পতিবার বিজেপির তরফে পঞ্চম থেকে অষ্টম দফার ভোটের সম্পূর্ণ তালিকা ঘোষণা করা হয়েছে। সেই তালিকায় ঠাঁই হয়েছে রুদ্রনীল ঘোষ, পার্নো মিত্র, অগ্নিমিত্রা পাল, কৌশিক রায়ের মতো তারকাদেরও। 

ভবানীপুর থেকে ভোটে লড়বেন রুদ্রনীল,বারাহনগরে বিজেপি প্রার্থী পার্নো, উত্তরবঙ্গে ময়নাগুড়ি বিধানসভা থেকে বিজেপির টিকিটে লড়বেন কৌশিক। অন্যদিকে আসানসোল দক্ষিণ বিধানসভা কেন্দ্র তৃণমূলের তারকা প্রার্থী সায়নী ঘোষের বিপরীতে বিজেপির অগ্নিমিত্রা পাল। 

দিন কয়েক আগেই অশোক দিন্দার হয়ে প্রচারে গিয়ে শ্রাবন্তী ঘোষণা করেছিলেন তিনিও শীঘ্রই প্রার্থী হতে চলেছেন। সেই হিসাব স্বাভাবিক নিয়মেই মিলে গেল।  ময়নার সভা থেকে শ্রাবন্তী বলেন, ‘এত বছর ধরে আমি অভিনয় জগতে ছিলাম। এখন আমার রাজনৈতিক জীবন শুরু হয়েছে। খুব শীঘ্রই আমি প্রার্থী হতে চলেছি। তাই আপনাদের আশীর্বাদ চাইছি।’‌

মার্চের পয়লা তারিখেই গেরুয়া শিবিরে নাম লিখিয়েছিলেন শ্রাবন্তী। আর দুৃ-সপ্তাহ পরেই বিজেপির হয়ে ভোটের ময়দানেও নেমে পড়লেন নায়িকা। তবে সহজ হবে না লড়াই, কারণ শ্রাবন্তীর বিপরীতে লড়ছেন তৃণমূলের হেভিওয়েট নেতা পার্থ চট্টোপাধ্যায়। তবে আনকোড়া শ্রাবন্তীও প্রস্তুত গ্ল্যামার আর জনপ্রিয়তার জোরে ভোট কুড়োতে। 

বন্ধ করুন