বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > অন্য দলদের মধ্যমা? ব্রিগেডের দিন নেইল আর্টে কাস্তে হাতুড়ি শ্রীলেখার
ব্রিগেডের পথে শ্রীলেখা
ব্রিগেডের পথে শ্রীলেখা

অন্য দলদের মধ্যমা? ব্রিগেডের দিন নেইল আর্টে কাস্তে হাতুড়ি শ্রীলেখার

  • শ্রীলেখার ব্রিগেড সাজ একদম পারফেক্ট। তবে আচমকাই ‘মধ্যমা’ দেখিয়ে নতুন বিতর্ক উস্কে দিলেন নায়িকা। 

দু-দিন আগে বামেদের জন্য প্রকাশ্যে ভোট চেয়ে পথে নেমেছিলেন শ্রীলেখা মিত্র। বামেদের নির্বাচনী প্রচার মঞ্চে আগেই দেখা গিয়েছে এই ‘ঠোঁটকাটা’ টলি নায়িকাকে। আর রবিবার লাল পতাকা হাতে ব্রিগেডের পথে শ্রীলেখা মিত্র। তবে পরিচিত ভঙ্গিতে এখানেও ভিড়ের চেয়ে আলাদা শ্রীলেখা। এদিন অভিনেত্রীর নেইল আর্টে ধরা পড়ল কাস্তে-হাতুড়ি। বামেদের প্রতীককে নিজের নখে তুলে ধরলেন শ্রীলেখা। সাদা নেইল পলিশের উপর লাল দিয়ে আঁকা হয়েছে কাস্তে-হাতুড়ি। এইভাবেই তিনি ‘রেড-ডিই’ হলেন বিগ্রেডের জন্য। শুধু তাই নয়, নেইল আর্ট তুলে ধরবার জন্য ফেসবুকে যে ছবি তিনি শেয়ার করেছেন তাও যথেষ্ট বিতর্কিত। 

এদিন কার্যত বিরোধীদের ‘মধ্যমা’ দেখালেন শ্রীলেখা। যা উস্কে দিল নতুন বিতর্ক। পাশ্চত্য সংস্কৃতিতে 'মধ্যমা' দেখানোটা অসম্মানজনক। ভারতীয় সংস্কৃতিতে সেটা সম্মানের তা বলা যাবে না। তাই শ্রীলেখার এই ছবি যথেষ্ট ‘রুচিহীন’ ও ‘অশ্লীল’ বলেই মতামত নেট নাগরকিদের একাংশের। 

নির্বাচনী আবহে শ্রীলেখার এই পোস্ট ঘিরে শুরু হল নতুন তরজা। তবে বরাবরই বামমনস্ক শ্রীলেখা। টলিগঞ্জে পালাবদলের হাওয়ায় টলাতে পারেনি তাঁকে। বর্তমানেও দলবদলের রাজনীতি থেকে নিজেকে সরিয়ে রেখেছেন তিনি। বরং বারবার সোশ্যাল মিডিয়ায় আক্রমণ শানিয়েছেন টলি তারকাদের দল পালটানোর ভাবনাকে। কদিন আগেই সিবিআইএম-এর এক প্রতিবাদ সভায় শ্রীলেখাকে বলতে শোনা গিয়েছে- ‘এখানে আসব বলে চুলে লাল রঙ করে এসেছি। চিন্তা নেই ওটা সবুজ-গেরুয়া হবে না’।

এদিন শ্রীলেখা ছাড়াও ব্রিগেডে যোগ দেওয়ার কথা অনীক দত্ত, কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায়দের।

বন্ধ করুন