বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Srijit-Mithila: সৃজিত-মিথিলার সুখের সংসারে কি ভাঙন ধরল? হেঁয়ালি ভরা পোস্ট উসকে দিল জল্পনা

Srijit-Mithila: সৃজিত-মিথিলার সুখের সংসারে কি ভাঙন ধরল? হেঁয়ালি ভরা পোস্ট উসকে দিল জল্পনা

সৃজিত-মিথিলার বিয়েতে ভাঙন ধরেছে? (সৌজন্যে-ফেসবুক মিথিলা)

২০১৯ সালে বাংলাদেশের নায়িকা মিথিলাকে বিয়ে করেন সৃজিত। দুজনের সম্পর্কের ফাটল নিয়ে কানাঘুষো চলছে অনেকদিন ধরেই। শনিবার টুইট করে সেই জল্পনাই উসকে দিলেন কর্তা-গিন্নি।

তারকাদের বিয়েতে ভাঙন ধরার মুচমুচে গল্প বরাবরই উত্তেজিত করে আমজনতাকে। হাঁড়ির খবর নিতে কে ভালোবাসে না বলুন! কদিন ধরেই শোনা যাচ্ছিল সব ঠিক নেই সৃজিত মুখোপাধ্যায় আর বাংলাদেশের নায়িকা রফিয়াত রশিদ মিথিলার মধ্যে। আর শনিবার তাঁদের সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট যেন সেই গুঞ্জনের আগুনেই ঘি দিয়ে গেল।

সবার আগে বলে রাখি মিথিলা এখন ব্যাংককে। সঙ্গে মেয়ে আইরা। সেখান থেকে মেয়ের ভিডিয়োও সোশ্যালে পোস্ট করেছেন। এটা অবশ্য প্রথম নয়, সময় পেলে তিনি এভাবেই মেয়েকে নিয়ে বেরিয়ে পড়তে পছন্দ করেন। শনিবার ইনস্টাগ্রামে ছবি দিয়ে মিথিলা করলেন একটি রহস্যজনক পোস্ট। সৃজিত-পত্নী লিখলেন, ‘কীভাবে জানো তুমি যে প্রেম সত্যি? কীভাবে জানো এই প্রেম ন্যায্য? উত্তর পেতে কতদূর যেতে পারবে তুমি জানার আগে যে সেটা সেখানে নেই?’

এদিকে এই একইদিনে সৃজিত জোন বায়েজের লেখা ফেয়ারওয়েল অ্যাঞ্জেলিনা গানের লাইন কোট করেছেন। সঙ্গে বেশ মন উদাস করে দেওয়া একটা ছবি। কোনও এক সমুদ্র সৈকতে ডালপালাহীন এক গাছে হাত দিয়ে দাঁড়িয়ে একমনে ঢেউ দেখছেন। আর এখানে গানের লাইন বলছে, ‘সেখানে রাগের দরকার নেই, সেখানে দোষারোপের প্রয়োজন নেই। সেখানে কিছু প্রমাণ করার নেই। সব একই আছে। শুধু একটা গাছ একাকি দাঁড়িয়ে আছে সৈকতে। সমুদ্রের ধার ঘেঁষে। বিদায় অ্যাঞ্জেলিনা। আকাশ কাঁপছে। এবার বিদায় নিতে হবে।’

আর এই পোস্টের থেকেই অনুরাগী মনে প্রশ্ন উঠছে এটা ঘর ভাঙার আগের ঝড় নয় তো? ২০১৯ সালে বিয়ে করেন তাঁরা। ভাঙন ধরেনি তো সৃজিত-মিথিলার সুখের সংসারে!

সৃজিত-মিথিলার টুইট।
সৃজিত-মিথিলার টুইট।

আসলে গত কয়েকমাসে একাধিক পুরুষের সঙ্গে নাম জড়িয়েছে মিথিলার। টলিউডের এক পরিচালকের সঙ্গে প্রেম করছিলেন বলে খবর রটে। পরে সেই পরিচালক সামনে এসে ব্যাপারটা অস্বীকার করেন। এরপর বাংলাদেশের গায়ক জন কবীরের সঙ্গেও নাম জড়ায়। যে আবার মিথিলার পুরনো বন্ধুও। জন কবীর এই গুজব হাওয়ায় উড়িয়ে দিয়েছিলেন। এই পোস্টের পিছনে কোনও লোকানো অর্থ-ইঙ্গিত আছে কি না তা তো সময়ই বলবে।

 

বন্ধ করুন