২৫  হাজার টাকা জরিমানা দিতে হল সৃজিতকে
২৫ হাজার টাকা জরিমানা দিতে হল সৃজিতকে

ফেলুদা ফেরতের শ্যুটিংয়ে ড্রোন উড়িয়ে বিপাকে সৃজিত মুখোপাধ্যায়

  • ফেলুদা ফেরতের শ্যুটিংয়ের জন্য জলপাইগুড়ির গরুমারা জাতীয় উদ্যানের সংরক্ষিত জঙ্গল এলাকায় ড্রোন উড়িয়ে বিপাকে পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়।
  • পশ্চিমবঙ্গ সরকারে বনবিভাগ ২৫ হাজার টাকার জরিমানা ধার্য করেছে পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের জন্য।

ফেলুদা ফেরতের শ্যুটিংয়ের জন্য ড্রোন উড়িয়ে বিপাকে পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়। বৃহস্পতিবার জলপাইগুড়ির গরুমারা জাতীয় উদ্যানের সংরক্ষিত জঙ্গল এলাকায় ড্রোনের মাধ্যমে শট নিচ্ছিলেন সৃজিত। সেই সময়ই বনবিভাগের দুই কর্মী বাধা দেয় টিম ফেলুদা ফেরতকে।


লসা রেঞ্জের পানঝোড়া বস্তি লাগোয়া জঙ্গল এলাকায় চলছিল শুটিং। মূর্তি নদীর পাশেই ড্রোন উড়িয়ে নেওয়া হচ্ছিল বিভিন্ন শট। বনকর্মীরা বাধা দিলে সাময়িকভাবে ব্যাহত হয় ওয়েব সিরিজের শ্যুটিং। সৃজিত প্রাথমিকভাবে ক্ষমা চেয়ে নিলেও শাস্তির হাত থেকে রেহাই পেলেন না। পশ্চিমবঙ্গ সরকারে বনবিভাগ ২৫ হাজার টাকার জরিমানা ধার্য করেছে পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের জন্য।

পরিচালক জানিয়েছেন, 'আমি বিষয়টি সম্পর্কে অবগত ছিলাম না। আমাকে যখনই স্থানীয় বনবিভাগ কর্মীরা জানায় যে আমি ড্রোন উড়িয়ে শ্যুটিং করতে পারব না, আমি কাজ থামিয়ে দি। জরিমানার টাকাও ইতিমধ্যেই আমি দিয়ে দিয়েছি'।

পশ্চিমবঙ্গ বনবিভাগ দফতরে আধিকারিক রবি কান্ত সিনহা জানিয়েছেন, 'শ্যুটিংয়ের লোকেশনটি গরুমারা জাতীয় উদ্যানের ভিতরে না হলেও বন দফতরের আওতাভুক্ত। এলাকায় শ্যুটিংয়ের জন্য আগাম অনুমতি নিতে হয়, পাশাপাশি পশুপাখিদের সুরক্ষার কথা মাথায় রেখে এলাকায় ড্রোন দ্বারা শ্যুটিং সম্পূর্ন নিষিদ্ধ'।

শ্যুটিংয়ের প্রয়োজনীয় অনুমতি থাকলেও ড্রোন উড়িয়ে আইন ভাঙাতেই জরিমানা দিতে হল পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়কে। তবে সেই সব ভুলে পুরোদমে ফেলুদা ফেরতের শ্যুটিং সারছেন পরিচালক।


শোনা যাচ্ছে ড্রোন শট নেওয়ার জন্য দিল্লিতে বনবিভাগ দফতরে লিখিত আবেদনও জানিয়েছেন জাতীয় পুরস্কার জয়ী এই পরিচালক। তবে সময় মতো সেই আবেদনে সাড়া মিলবে কিনা সেটাই এখন বড় প্রশ্ন। ৩ জানুয়ারি পর্যন্ত উত্তরবঙ্গে ফেলুদা ফেরতের শ্যুটিং সারবেন সৃজিত।

ওয়েব স্ট্রিমিং প্ল্যাটফর্ম আড্ডাটাইমসের জন্য এই ওয়েব সিরিজ তৈরি করছেন সৃজিত। যেখানে ফেলুদার ভূমিকায় দেখা মিলবে টোটা রায়চৌধুরির।


বন্ধ করুন