বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > সৃজিতের নির্দেশে বিমানবন্দরে টোটা, শুরু করলেন ‘ফেলুদার গোয়েন্দাগিরি’, রইল ছবি
ফের 'ফেলুদা'-র চরিত্রে টোটা রায়চৌধুরী। (ছবি সৌজন্যে - ফেসবুক)

সৃজিতের নির্দেশে বিমানবন্দরে টোটা, শুরু করলেন ‘ফেলুদার গোয়েন্দাগিরি’, রইল ছবি

  • ফের ফেলুদা নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়।

ফের ফেলুদা নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়েছেন পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়। মঙ্গলবার বেশ সকাল থেকেই নেতাজি সুভাষচন্দ্র বসু আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ফেলুদা সিরিজ ‘দার্জিলিং জমজমাট’-এর জোরকদমে শ্যুটিং শুরু করে দিয়েছেন তিনি। তাঁরই নির্দেশে মঙ্গলবার ভোর ভোর বিমানবন্দরে রীতিমতো স্যুট-ব্যুট পরে হাজির হয়ে গিয়েছিলেন 'ফেলুদা'। জ্যাঠতুতো দাদার দেখাদেখি নিজের গায়েও স্যুট চাপিয়ে হাজির হয়ে গিয়েছিল 'তোপসে' ওরফে তপেশরঞ্জন মিত্র। তবে থ্রি মাস্কেটিয়ার্সের আরও এক সদস্য লালমোহন বাবুকে অবশ্য দেখা গেল ধুতি-পাঞ্জাবি, জহরকোটে। যাকে বলে পরিপাটি বাঙালি সাজ। তা সাত সকালে বিমানবন্দরে নতুন কোনও রহস্য ভেদে নাকি স্রেফ ছুটি কাটানোর উদ্দেশ্যে বিমানে চেপে বসবেন তাঁরা?

চলছে সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের নির্দেশনায় নতুন ফেলুদা সিরিজ ‘ফেলুদার গোয়েন্দাগিরি’-র প্রথম ছবি ‘দার্জিলিং জমজমাট’-এর। এ প্রসঙ্গে আনন্দবাজারকে 'ফেলুদা' ওরফে টোটা রায়চৌধুরী জানিয়েছেন মমঙ্গলবার ভোর থেকেই এই সিরিজের শ্যুটিং শুরু হয়েছে। সেই ছবিরই গল্প অনুযায়ী একটি গুরুত্বপূর্ণ সিকোয়েন্সের দৃশ্যগ্রহণ চলছে নেতাজি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে। তা হিসেবে নত বসন্তের সময় হলেও ইতিমধ্যেই গুটি গুটি পায়ে চৌকাঠ টপকিয়েছে গরম। এরকম আবহাওয়ায় স্যুট পরে কাজ করতে অসুবিধে হচ্ছে না? জবাবে 'ফেলুদা' জানিয়েছেন যে যেহেতু বিমানবন্দরের ভিতরে তাঁরা শ্যুট করছেন এবং সেই পুরো জায়গাটি শীততপনিয়ন্ত্রিত, তাই একেবারেই কষ্ট হচ্ছে না। তবে টিনার কাছে সবথেকে জরুরি ব্যাপার হল, বহু দিন পরে আবারও তিনি ‘ফেলুদা’। তাই এই আনন্দের চোটে বাকি সব দুঃখ কষ্ট তিনি ভুলেছেন।

বিমানবন্দরে পুলিশি নিরাপত্তায় বেশ ফাঁকা জায়গাতেই শ্যুট চলছে। মাঝেমধ্যেই মানুষজন দূর থেকে ভিড় করে শ্যুটিং দেখলেও নিরাপত্তার বেষ্টনী টপকে কাছে আসতে দিতে হচ্ছে না তাঁদের। প্রসঙ্গত, 'দার্জিলিং জমজমাট' গল্প অনুযায়ী বলিউডের চিত্রনির্দেশক পুলক ঘোষাল লালমোহন বাবুর গল্প থেকে একটি চলচ্চিত্র বানানোয় হাত দেন। তারই শ্যুটিংয়ে দার্জিলিংয়ে পাড়ি দেবে গোটা ইউনিট। বিমানবন্দরের লাউঞ্জে ছবিতে থাকা বলি-অভিনেতাদের সঙ্গেও ফেলুদা ও তাঁর টিমের পরিচয় করিয়ে দেন পুলক ঘোষাল। বলিপাড়ার প্রখ্যাত ভিলেন মহাদেব ভার্মার সঙ্গেও জমিয়ে আড্ডা মারেন ফেলুদা  গল্পের সেই দৃশ্যের শ্যুট সেরে ফেলা হয়েছে।

ফের 'ফেলুদা' হিসেবে নিজেকে কীভাবে প্রস্তুত করেছেন সেকথাও জানিয়েছেন টোটা। বাড়তি আড়াই কেজি ওজন ঝরিয়েছেন। ফেলুদার মতো হাঁটা-চলা, সেই পুরনো মেজাজ ফিরিয়ে আনা, সবই করেছেন। তবে গত বার আড্ডা টাইমস-এর সুবাদেই প্রথমবার 'ফেলুদা'-র জুতোয় পা গলিয়েছিলেন তিনি। এবার 'হইচই'-এর জন্য। সে কথা জিজ্ঞেস করা হলে মুখে টুঁ শব্দটি করেননি 'প্রদোষ চন্দ্র মিত্র'।

বন্ধ করুন