বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > শ্রীদেবী কন্যা জাহ্নবীর বিলাসবহুল বাড়ির অন্দরমহল, ঘুরে দেখুন
অন্দরমহলের ছবি
অন্দরমহলের ছবি

শ্রীদেবী কন্যা জাহ্নবীর বিলাসবহুল বাড়ির অন্দরমহল, ঘুরে দেখুন

বাবা বনি কাপুর ও বোন খুশি কাপুরকে নিয়েই সাজানো সংসার জাহ্নবীর। 

প্রযোজক তথা বাবা বনি কাপুরের সঙ্গে মুম্বইয়ের বাংলোতে বসবাস করেন জাহ্নবী কাপুর এবং খুশি কাপুর। মূলত মুম্বইয়ে তাঁদের বিলাশ বহুল বাংলোতে নজর দিলে বোঝা যায় কতটা সৌখিন জীবনযাপন করেন তাঁরা। তেমনই একটা সুন্দর ঘর এবং সুন্দর বাড়ি স্বপ্ন প্রত্যেক মহিলা এবং মেয়ের রয়েছে।   

প্রায়শই জাহ্নবী এবং খুশির সামাজিক মাধ্যমের পোস্ট করা ছবিতে উঠে আসে তাঁদের বিলাশবহুল বাড়ির ছবি। তাঁরে ঘরের ছবিতে উঠে আসে দেওয়ালের নীল রঙ-জলরঙের আভা। আলমারিতে সাজানো রয়েছে একাধিক সুন্দর শো-পিস। বাড়ির প্রতিটা কোণায় রয়েছে পুরাতনের ছোঁয়া। জাহ্নবী এবং খুশির বাড়ির অনেকের কাছেই স্বপ্নের বাড়ির মতো।

ঘরে লাল গ্লাসের কাজ এবং বড় ঝাড়বাতিও রয়েছে। দেওয়ালে বড় বড় ছবি টাঙানো রয়েছে। বাড়ির এক এক ঘরে এক রকমের মেঝে।

ঘরে দেখা যায় একটা বড় পিয়ানো রয়েছে। তার উপরই দুই মেয়ের সঙ্গে অভিনেত্রী শ্রীদেবীর ছবি সাজানো রয়েছে। সেখানে কাছে বসেই বেশি ছবি তুলতে দেখা যায় খুশিকে। ঘরের অপর একটি কোনায় বসার জন্য বেশ কয়েকটা কাউচ রয়েছে।

ফিল্ম স্টাডিজ নিয়ে পড়াশোনা করতে সম্প্রতি নিউ ইয়র্ক গিয়েছেন খুশি। অন্যদিকে, ২০১৮ সালে ইশান খট্টরের বিপরীতে ‘ধড়ক’ ছবিতে বলিউডে ডেবিউ করেন জাহ্নবী। মা ও দিদির পথ অনুসরণ করে শীঘ্রই বলিউডে পা রাখতে চলেছেন শ্রীদেবীর ছোট কন্যা খুশি কাপুর।

বনি কাপুর জানিয়েছেন, তিনি চান খুশি ইন্ডাস্ট্রিতে তাঁর মতো কোনো বিশ্বস্ত মানুষের হাত ধরে ডেবিউ করুক। খুশি নিজের জায়গা নিজে তৈরি করুক। প্রযোজকের কথায়, কারুর কেরিয়ারের পথ সহজ করে দিলে সেই অভিনেতার জন্য কখনও কখনও সেটা ক্ষতিকর হয়ে দাঁড়ায়। তাই নিজের মেয়ের ক্ষেত্রে তিনি এটা করবেন না বলে ঠিক করেছেন। বরং অপেক্ষা করবেন এমন কোনও বিশ্বাসী পরিচালক বা প্রযোজকের জন্য, যিনি খুশিকে লঞ্চ করবেন তাঁর যোগ্যতা দেখে। 

ফিল্ম স্টাডিজ নিয়ে পড়াশোনা করতে সম্প্রতি নিউ ইয়র্ক গিয়েছেন খুশি। অন্যদিকে, ২০১৮ সালে ইশান খট্টরের বিপরীতে ‘ধড়ক’ ছবিতে বলিউডে ডেবিউ করেন জাহ্নবী। মা ও দিদির পথ অনুসরণ করে শীঘ্রই বলিউডে পা রাখতে চলেছেন শ্রীদেবীর ছোট কন্যা খুশি কাপুর।

বনি কাপুর জানিয়েছেন, তিনি চান খুশি ইন্ডাস্ট্রিতে তাঁর মতো কোনো বিশ্বস্ত মানুষের হাত ধরে ডেবিউ করুক। খুশি নিজের জায়গা নিজে তৈরি করুক। প্রযোজকের কথায়, কারুর কেরিয়ারের পথ সহজ করে দিলে সেই অভিনেতার জন্য কখনও কখনও সেটা ক্ষতিকর হয়ে দাঁড়ায়। তাই নিজের মেয়ের ক্ষেত্রে তিনি এটা করবেন না বলে ঠিক করেছেন। বরং অপেক্ষা করবেন এমন কোনও বিশ্বাসী পরিচালক বা প্রযোজকের জন্য, যিনি খুশিকে লঞ্চ করবেন তাঁর যোগ্যতা দেখে। 

|#+|

 

বন্ধ করুন