বাড়ি > বায়োস্কোপ > সুভাষ ঘাই হেনস্থা করেছিলেন, প্রয়োজকদের কাজ দিতে বারণ করেন, পাশে দাঁড়ান সলমন-সঞ্জয় : মহিমা চৌধুরী
‘পরদেশ’-এ শাহরুখ খানের সঙ্গে মহিমা চৌধুরী (বাঁদিকে), মহিমার পুরনো ছবি (ডানদিক) (ছবি সৌজন্য টুইটার)
‘পরদেশ’-এ শাহরুখ খানের সঙ্গে মহিমা চৌধুরী (বাঁদিকে), মহিমার পুরনো ছবি (ডানদিক) (ছবি সৌজন্য টুইটার)

সুভাষ ঘাই হেনস্থা করেছিলেন, প্রয়োজকদের কাজ দিতে বারণ করেন, পাশে দাঁড়ান সলমন-সঞ্জয় : মহিমা চৌধুরী

  • আবারও বিতর্কে সুভাষ ঘাই।

বলিউড পরিচালক সুভাষ ঘাইয়ের বিরুদ্ধে হেনস্থার অভিযোগ তুললেন অভিনেত্রী মহিমা চৌধুরী। তাঁর দাবি, মহিমাকে কাজ না দেওয়ার জন্য একাধিক প্রয়োজককে মেসেজ পাঠিয়েছিলেন ‘পরদেশ’-এর পরিচালক।

'বলিউড হাঙ্গামা'-য় একটি সাক্ষাৎকারে মহিমা বলেন, 'সুভাষ ঘাই আমায় হেনস্থা করেছিলেন। উনি আমায় আদালতে টেনে নিয়ে গিয়েছিলেন এবং চেয়েছিলেন যে আমার প্রথম শো বাতিল করে দিই। এটা বেশ চাপের বিষয় ছিল। সব প্রয়োজকদের মেসেজ পাঠিয়ে তিনি বলেছিলেন, কেউ যেন আমার সঙ্গে কাজ না করেন! আপনি যদি ১৯৯৮ বা ১৯৯৯ সালের ট্রেড গাইড ম্যাগাজিনের বিষয়টি দেখেন, তাহলে দেখবেন উনি (সুভাষ ঘাই) একটা বিজ্ঞাপন দিয়েছিলেন। তাতে বলা হয়েছিল, কেউ যদি আমার সঙ্গে কাজ করতে চান, তাহলে তাঁর (সুভাষ ঘাই) সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে। নাহলে তা চুক্তিভঙ্গ হবে। তবে এরকম কোনও চুক্তি ছিল না, যেখানে বলা হয়েছিল, আমায় ওঁনার (সুভাষ ঘাই) অনুমতি নিতে হবে।'

মহিমা জানান, সেই সময় বলিউডের হাতেগোনা কয়েকজনকেই পাশে পেয়েছিলেন। বাকিরা কেউ তাঁর পাশে দাঁড়াননি। তিনি বলেন, ‘আমার পাশে দাঁড়িয়েছিলেন শুধুমাত্র চারজন - সলমন খান, সঞ্জয় দত্ত, ডেভিড ধাওয়ান এবং রাজকুমার সন্তোষী। ওঁরা সবাই আমায় শক্ত থাকতে বলেন। ডেভিড ধাওয়ান ফোন করে বলেন, চিন্তা কর না। ওঁনাকে হেনস্থা করতে দিও না। ওই চারজন ছাড়া, আমি কারোর ফোন পাইনি।’

যদিও হেনস্থার অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন সুভাষ ঘাই। তাঁর দাবি, মহিমার সঙ্গে 'ছোটো বিবাদ' হয়েছিল। একটি চুক্তি লঙ্ঘনের জন্য ক্ষমাও চেয়েছিলেন মহিমা। তারপর তিনি ক্ষমা করে দিয়েছিলেন বলে জানিয়েছেন বর্ষীয়ান পরিচালক।

বন্ধ করুন