বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Subhashree Ganguly: মহালয়ার দুর্গা সেজে ট্রোলড শুভশ্রী, 'কৃমিকীট'দের ধুয়ে দিলেন রাজ-ঘরণী
শুভশ্রীর পালটা জবাব

Subhashree Ganguly: মহালয়ার দুর্গা সেজে ট্রোলড শুভশ্রী, 'কৃমিকীট'দের ধুয়ে দিলেন রাজ-ঘরণী

  • Subhashree Ganguly: ‘ধর্মযুদ্ধ’, ‘বিসমিল্লাহ’-র পর এবার শুভশ্রীর মহালয়ার অনুষ্ঠানকেও বয়কটের ডাক নেটপাড়ায়। ‘ইসলামকে অন্তরে ধারণ’ করেছেন নায়িকা, অভিযোগ নেটিজেনদের একাংশের।  

গত বছরের মতো এ বছরও জি বাংলার মহালয়া-র অনুষ্ঠানে মা দূর্গারূপে দেখা যাবে শুভশ্রী গঙ্গোপাধ্যায়কে। কিন্তু শুভশ্রীকে দুর্গা রূপে দেখে 'ধর্মযুদ্ধ' শুরু হয়ে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। কারণ? 'ইসলামকে অন্তরে ধারণ করা' শুভশ্রীকে মা দুর্গার অবতারে দেখতে না-রাজ সোশ্যাল মিডিয়ার একটা বড় অংশ। গত মার্চ মাসেই ছেলে ইউভান ও স্বামী রাজ চক্রবর্তীর সঙ্গে আজমের শরিফে গিয়েছিলেন নায়িকা। সেখানে চাদর চড়িয়ে হিন্দুদের কটাক্ষের শিকার হয়েছিলেন তারকা দম্পতি। সেই বিতর্কই ফের মাথাচাড়া দিল।

মহালয়া উপলক্ষে জি বাংলায় অনুষ্ঠিত হতে চলেছে ‘সিংহবাহিনী ত্রিনয়নী’। দুর্গার সাজে শুভশ্রীর ঝলক সামনে এসেছে ইতিমধ্যেই। দেবী দুর্গারূপে শুভশ্রীকে দেখে কেউ কেউ এই অনুষ্ঠান বয়কটের ডাক দেন। অভিযোগ- ‘ইসলামকে অন্তরে ধারণ করা শুভশ্রী’কে দেবীরূপে দেখতে চায় না তাঁরা। সোশ্যাল মিডিয়াতে ব্যাপক ভাইরাল এই সংক্রান্ত পোস্ট। আজমের শরিফে শুভশ্রীর ছবির সঙ্গে দেবী রূপী শুভশ্রীর ছবির কোলাজ শেয়ার করে এক নেটিজেন লেখেন, ‘দেবী দুর্গারূপে আমরা এমন কাউকে দেখতে চাই না যারা প্রতিপদে সনাতন ধর্মকে পরিহাস করে ইসলামকে অন্তরে ধারণ করে।’

বয়কটের এই ডাক নিয়ে শুভশ্রী এক সংবাদমাধ্যমকে জানান, ‘যারা ধর্ম নিয়ে এগুলো করছে তারা অশিক্ষিত, তাঁদের জীবনে কোনও কাজ নেই, অযোগ্য, অপাক্তেয়, ফেসলেস কিছু মানুষ। আমি এদের নিয়ে কোনও কথাই বলতে চাই না। এরা কী বলল না বলল সেটা আমাকে স্পর্শও করে না। আমার এই বিষয়ে কোনও বক্তব্য, কোনও প্রতিক্রিয়া নেই এই বিষয়ে।’

গত মাসেই মুক্তি পেয়েছে শুভশ্রী অভিনীত দুটি ছবি, ‘ধর্মযুদ্ধ’ এবং ‘বিসমিল্লাহ’। সংবেদনশীল বিষয় নিয়ে তৈরি এই ছবির বিরুদ্ধেই বয়কট রব উঠেছে। এবার মহালয়ার অনুষ্ঠান ঘিরেও বিতর্কে রাজ-ঘরণী। তবে যাঁরা বয়কটের ডাক দিচ্ছে অকারণে তাঁর চেয়ে অনেক বেশি মানুষ মহালয়ার ভোরে তাঁর অনুষ্ঠান দেখবার অপেক্ষা করছে, এমনটাই বিশ্বাস শুভশ্রীর।

শুধু ধর্মের জেরেই নয়, মহালয়া-য় শুভশ্রীকে দুর্গারূপে দেখেই অনেকেই আপত্তি জানিয়েছেন। কারুর মতে, ‘আরও তো অনেক নায়িকারা ছিল, তাদের সবাইকে বাদ দিয়ে শুভশ্রী কে কোনও মা দুর্গা করা হল। একদমই মানাচ্ছে না।’ এক মিঠাই-ভক্ত লিখেছে, ‘যে মেয়েটা চ্যানেলকে এত টিআরপি এনে দেয় তাঁকে বাদ দিয়ে কেন নেওয়া হল শুভশ্রীকে। ও তো অভিনয়ই করতে পারে না। শুধু ওই চোখ গোল গোল।’ কেউ কেউ আবার মনে করছেন, একেক বছর একেক নায়িকা দুর্গা হলে দেখতে আরও ভালো লাগে। অনেকে আবার রাজামৌলির ছবি ট্রিপল আরের একটি দৃশ্যের সস্তা সংস্করণ খুঁজে পেয়েছে মহালয়ার অনুষ্ঠানের প্রোমোয়। যা নিয়ে কম খিল্লি ওড়ায়নি নেটপাড়া।

 

 

বন্ধ করুন