বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Sudipa Chatterjee: ফুড ডেলিভারি বয়-দের অপমানের জেরে রান্নাঘর থেকে বাদ পড়ছেন? নীরবতা ভাঙলেন সুদীপা
সুদীপা মুখ খুললেন

Sudipa Chatterjee: ফুড ডেলিভারি বয়-দের অপমানের জেরে রান্নাঘর থেকে বাদ পড়ছেন? নীরবতা ভাঙলেন সুদীপা

  • Sudipa Chatterjee: ‘রান্নাঘর’-এ সুদীপার জায়গায় নতুন সঞ্চালক হিসাবে দেখা যাবে অপরাজিতা আঢ্যকে? নেটমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া গুঞ্জনে জল ঢাললেন সুদীপা। 

গত কয়েকদিন ধরেই তুমুল বিতর্কে ‘রান্নাঘরের রানি’। সুদীপা চট্টোপাধ্যায়ের এক ফেসবুক পোস্ট ঘিরে যাবতীয় বিতর্কের সূত্রপাত্র। সেখানে ডেলিভারি বয়-দের উদ্দেশে কড়া ভাষা ব্যবহার করেছিলেন সুদীপা। লিখেছিলেন, ‘আমি শুধু জানতে চাই একজন ডেলিভারি বয়ও ফোন না করে কেন গন্তব্যে পৌঁছতে পারে না? ফোন করে কেন বলেন ‘আমি আসছি আপনি গেটটা খুলুন’। আমি কি দারোয়ান যে গেট খুলব?’ সেই নিয়ে প্রথমে অরিত্র পরে শ্রীলেখার সঙ্গেও বাকযুদ্ধে জড়ান অভিনেত্রী। 

সুদীপার এমন মানসিকতাকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি নেটিজেনরা। অনেকেই তাঁর ঔদ্ধত্য নিয়ে প্রশ্ন তোলেন। চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দেন, ‘ডেলিভারি বয়রাও মানুষ’। এই বিতর্কের রেশ থিতু হতে না হতেই নতুন বিতর্ক সুদীপাকে ঘিরে। ডেলিভারি বয়-কে অপমানের জেরে নাকি 'রান্নাঘর' থেকে বাদ পড়ছেন সুদীপা, তাঁর জায়গায় নতুন সঞ্চালিকা হচ্ছেন ‘লক্ষ্মী কাকিমা’ অপরাজিতা আঢ্য, এমন গুজব বিদ্যুৎ গতিতে ছড়িয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। এই নিয়ে প্রশ্ন করা হলে খানিক বিরক্তির সুরেই অভিনেত্রী বলেন, ‘আমি এই বিষয় গুলোকে বিশেষ গুরুত্ব দিতে চাইনা। কারণ এই খবরের কোনও সত্যতা নেই। কোনও তথ্য সূত্র নেই। এমনকী আমার কাছে এই ধরণের কোনও খবর নেই। আর জি বাংলার তরফেও এখনও এই বিষয়ে কিছু জানানো হয়নি। আমার ধারণা তাঁদের কাছেও এ ধরণের কোনও খবর নেই। যাঁরা এই ধরণের ভুয়ো খবর প্রচার করছেন তাঁরা নিজেদের পাবলিসিটির জন্য করছেন।’

টলিউড ফোকাস কলকাতা-কে দেওয়া ওই সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী আরও বলেন, ‘সাধারণ মানুষ এর জবাব কাজেই পাবেন। দেখতেই পাবেন। গতকালই শুটিং করে এসেছি। আপাতত চতুর্থী পর্যন্ত শুটিং করে ফেলেছি। অর্থাৎ আগামী এক মাসের শুটিং হয়েগেছে।’ শুভাকাঙ্খীদের উদ্দেশে তাঁর বার্তা 'গুজবে কান দেবেন না'।

প্রসঙ্গত, সোশ্যাল মিডিয়ায় লম্বা বিবৃতি দিয়ে সুইগি বিতর্কে ক্ষমাও চান সুদীপা। যদিও সেই পোস্ট দেখেও সন্তুষ্ট নন নেটিজেনরা। সুদীপা লেখেন, 'সুইগিতে একটা অপশন আছে নট কলিং, তাও ওদের এক্সিকিউটিভরা ফোন করে সামান্য কারণে। যেটা অনেকের জন্যই খুব বিরক্তিকর, আরও তুমি যদি তারকা হও তো..।

ওদের অ্যাপেও তো কোথাও লেখা নেই তোমাকে দরজা খুলে অর্ডার হাতে পাওয়ার জন্য অপেক্ষা করতে হবে। আমি যা লিখছি তার মধ্যে কোথাও তো ডেলিভারি বয়ের কথা বলা হয়নি, প্রতিষ্ঠানের সমালোচনা করা হয়েছে। তাহলে ডেলিভারি দিতে আসা গরীব মানুষটাকে অপমান করার কথা উঠছে কীভাবে!'

 

বন্ধ করুন