বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > 'রুটি বেলা থেকে বাইক চালানো,সব দিদিরা শিখিয়েছে', নিজের মুখে বলেছিলেন সুশান্ত
নীতু সিং, প্রিয়াঙ্কা সিং, সুশান্ত ও মীতু সিং (বাঁ দিক থেকে) 
নীতু সিং, প্রিয়াঙ্কা সিং, সুশান্ত ও মীতু সিং (বাঁ দিক থেকে) 

'রুটি বেলা থেকে বাইক চালানো,সব দিদিরা শিখিয়েছে', নিজের মুখে বলেছিলেন সুশান্ত

  • সোশ্যাল মিডিয়ায় সুশান্তের সেই পুরোনো ভিডিয়ো শেয়ার করে নিয়েছেন দিদি শ্বেতা সিং কীর্তি। 

চার দিদির একমাত্র ভাই সুশান্ত সিং রাজপুত। মাত্র ১৬ বছর বয়সে মাকে হারিয়ে ছিলেন সুশান্ত, তাই দিদিদের আদর-যত্নেই বড়ো হওয়া তাঁর। অথচ সুশান্তের মৃত্যুর পর তাঁর দিদিদের সঙ্গে সুশান্তের সম্পর্ক নিয়েই প্রশ্ন তোলা হয়েছে রিয়ার ক্যাম্প থেকে। টিম রিয়ার তরফে জারি করা এক হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাটে সুশান্ত নাকি তাঁর দিদি প্রিয়াঙ্কা সিংকে ‘পুরো শয়তান’, এবং ‘ষড়যন্ত্রকারী’ বলে উল্লেখ করেছিলেন। এবার সুশান্তের দিদি শ্বেতা সিং কীর্তি একটি পুরোনো ভিডিয়ো শেয়ার করেছেন তাঁর সোশ্যাল মিডিয়ার দেওয়ালে। সেই ভিডিয়োয় এক জাতীয় চ্যানেলে ভারতীয় আর্মির জওয়ানদের মাঝে বসে সুশান্ত বলছেন তিনি জীবনে যা কিছু শিখেছেন তাঁর কৃতিত্ব একমাত্র তাঁর দিদিদের। ২০১৭ সালের ভিডিয়ো এটি। 

এই অনুষ্ঠানে সুশান্ত ভারতীয় সেনাদের সঙ্গে সাক্ষাত্ করতে গিয়েছিলেন। এই সাক্ষাত্দের একাধিক ভিডিয়োয় কখনও সেনাদের জন্য রুটি বেলতে দেখা গেছে সুশান্তকে,কখনও আবার খুনসুটি,আড্ডায় মেতে উঠতে। শ্বেতা যে ভিডিয়োটি শেয়ার করেছেন সেখানে সঞ্চালিকা সুশান্তের রুটি বানানোর প্রতিভার কথা উল্লেখ করে প্রশ্ন ছোঁড়েন, এটা কি দিদিরা শিখিয়েছে? জবাবে সুশান্ত বলেন, যার চারটে দিদি আছে, তাকে জানতেই হবে রুটি কেমনভাবে বানায়, তাও বড় বড় রুটি। এরপর প্রয়াত অভিনেতা যোগ করেন, আমি সত্যি যা শিখেছি, যা কিছু আমি জানি-গাড়ি চালানো,বাইক চালানো, ক্রিকেট খেলা, পড়াশোনা-সবকিছু আমি দিদিদের থেকে শিখেছি। এটা আমি শুধু কথার কথা বলছি না।

সুশান্ত আরও বলেন, ‘আমার সবচেয়ে বড় দিদি, ওঁনার নাম নীতু, যিনি আমাকে পড়াশোনা শিখিয়েছেন-ফিজিক্স,যেটার কথা আমি বলছিলাম, সেটায় আমার এত ঝোঁক দিদির থেকে পাওয়া। দিদি ডাক্তার, যদিও এখন আর প্র্যাকটিস করে না। আমার অন্যদিদি,মীতু-উনি পেশাদার স্তরে ক্রিকেট খেলতেন। তাই ক্রিকেট খেলাটা ওই দিদির কাছে শেখা।এছাড়া গাড়ি, বাইক চালানো আমাকে মীতুদি শিখেয়েছে। প্রিয়াঙ্কা..আইনজীবী, আর শ্বেতা ফ্যাশন ডিজাইনার। আমরা খুব কাছের, একসঙ্গে বসে আমরা খুব গসিপ করি’।

এই ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়া শেয়ার করেছেন শ্বেতা-যিনি বয়সে সুশান্তের চেয়ে মাত্র এক বছরের বড়। ভিডিয়োর ক্যাপশনে সুশান্তের গুড়িয়াদি লেখেন, আমার ভাই..তোকে অফুরন্ত ভালোবাসি, এই মহাবিশ্বের শেষ পর্যন্ত। তুই আজীবন আমাদের মনে থাকবি'।

View this post on Instagram

I wish I could hold you just one more time...

A post shared by Shweta Singh kirti (@shwetasinghkirti) on

প্রিয়াঙ্কা সিং, কেকে সিং, নীতু সিং,সুশান্ত ও শ্বেতা সিং কীর্তি ( বাঁ দিক থেকে)
প্রিয়াঙ্কা সিং, কেকে সিং, নীতু সিং,সুশান্ত ও শ্বেতা সিং কীর্তি ( বাঁ দিক থেকে)
প্রিয়াঙ্কা সিং, ভাগ্নি মল্লিকা, জামাইবাবু ওপি সিং,নীতু সিং ও মীতু সিং (বাঁদিক থেকে)-এর সঙ্গে সুশান্ত (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
প্রিয়াঙ্কা সিং, ভাগ্নি মল্লিকা, জামাইবাবু ওপি সিং,নীতু সিং ও মীতু সিং (বাঁদিক থেকে)-এর সঙ্গে সুশান্ত (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

অন্যদিকে 'রাজনৈতিক প্রভাব খাটানো', ‘চূড়ান্ত রাজনীতিকরণ’ - এমনই সব যুক্তি খাড়া করে সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর মামলা মুম্বইয়ে স্থানান্তরের আর্জি জানিয়েছিলেন মামলার মূল অভিযুক্ত অভিনেত্রী রিয়া চক্রবর্তী। যদিও মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টে দীর্ঘ সওয়ালের পরও আপাতত স্বস্তি পেলেন না তিনি। মামলা স্থানান্তর নিয়ে কোনও রায় দিল না শীর্ষ আদালত। ১৩ অগস্টের মধ্যে সব পক্ষকে লিখিত জবাব জমা দিতে বলেছে সুপ্রিম কোর্ট। 

 

বন্ধ করুন