বাড়ি > বায়োস্কোপ > রাজনৈতিক তরজা বাড়ছে সুশান্তের মৃত্যু মামলায়, শুনানিতে নাম উঠল আদিত্য-নীতিশের
সুশান্ত সিং রাজপুত (ছবি সৌজন্য টুইটার)
সুশান্ত সিং রাজপুত (ছবি সৌজন্য টুইটার)

রাজনৈতিক তরজা বাড়ছে সুশান্তের মৃত্যু মামলায়, শুনানিতে নাম উঠল আদিত্য-নীতিশের

  • সুশান্তের মৃত্যু পরবর্তী ঘটনাবলী ক্রমশ রাজনৈতিক আঙিনায় প্রবেশ করছে।

যতদিন যাচ্ছে, তত রাজনীতির কেন্দ্রবিন্দুতে চলে আসছে সুশান্ত সিং রাজপুত মৃত্যু মামলা। তারইমধ্যে মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টে রিয়া চক্রবর্তী এবং মহারাষ্ট্র সরকারের আইনজীবীরা দাবি করলেন, সুশান্ত মামলায় 'চাপ' দিচ্ছেন বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমার। বিহার পুলিশের তরফে আবার ঘটনায় আদিত্য ঠাকরের নাম তোলা হয়।

মঙ্গলবার প্রায় তিন ঘণ্টার বেশি শুনানিতে রিয়ার আইনজীবী শ্যাম দিভান বলেন, ‘মহারাষ্ট্র পুলিশ হলফনামা দায়ের করে জানিয়েছে, সন্তোষজনক তদন্ত চলছে। পাটনা পুলিশ এফআইআরের দায়েরের বিষয়ে দ্বিধাগ্রস্ত ছিল। কিন্তু বিহারের মুখ্যমন্ত্রী নীতিশ কুমার এবং সঞ্জয় ঝা সেই এআইআর দায়ের এবং মামলটা বিহারে তদন্ত করার বিষয়ে জোর করেন।’

রিয়ার আইনজীবীর সুরেই মহারাষ্ট্র সরকারের তরফে অভিযোগ করা হয়, বছর শেষের বিহার নির্বাচনের কথা মাথায় রেখেই সুশান্তের মামলায় হস্তক্ষেপ করছেননীতিশ। আইনজীবী অভিষেক মনু সিঙ্ঘভি বলেন, 'আমরা সবাই জানি, যে রাজ্য শীঘ্রই ভোট আছে, সেই রাজ্য কেন এরকম করছে। ভোটের পর আপনি এই মামলার বিষয়ে কিছু শুনতে পাবেন না।’ 

যদিও বিহার পুলিশের আইনজীবী মনিন্দর সিং জানান, বিহারে এফআইআর দায়েরে নীতিশের কোনও ভূমিকা নেই। তিনি পালটা খোঁচা দিয়ে বলেন, ‘আমার অবশ্যই বলা উচিত যে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর ছেলে (আদিত্য ঠাকরে), যিনি এই মামলায় জড়িত আছেন, তাঁর সঙ্গে নীতিশ কুমার এফআইআর দায়েরের জোরাজুরি করার কোনও সম্পর্ক নেই।’ সুশান্তের পরিবারের আইনজীবী আদিত্যের নাম তুললেও পুরোটাই সংবাদমাধ্যমের খবর হিসেবে বলেন। তাঁর কথায়, ‘সংবাদমাধ্যমের রিপোর্ট আমি পড়তে চাই না। সংবাদমাধ্যমের রিপোর্টে মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রীর ছেলের নাম আছে। তাই আমি এই বিষয়ে কিছু বলতে চাই না।’

বন্ধ করুন