বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > দু'বছর পরেও সুশান্তের মৃত্যুর কারণ নিয়ে নির্দিষ্ট কিছু জানাতে পারল না সিবিআই
সুশান্তের মৃত্যু নিয়ে কাটেনি ধোঁয়াশা। 

দু'বছর পরেও সুশান্তের মৃত্যুর কারণ নিয়ে নির্দিষ্ট কিছু জানাতে পারল না সিবিআই

  • ১৪ জুন, ২০২০। বান্দ্রার আবাসনে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া গিয়েছিল ৩৪ বছরের সুশান্তের দেহ। অনতিবিলম্বে শুরু হয় বলিউডের 'হাই প্রোফাইল' কেসের তদন্ত।

তিনি নেই। রয়ে গিয়েছে স্মৃতি। আর সেই স্মৃতির সঙ্গেই মিলেমিশে গিয়েছে এক অমোঘ প্রশ্ন। যার নিশ্চিত উত্তর মেলেনি এখনও। আদৌ মিলবে কি না, তা-ও জানা নেই।

কী ভাবে মৃত্যু হল সুশান্ত সিং রাজপুতের?

প্রশ্ন ছুড়ে দেওয়া হয় বারবার। উঠে আসে নানা তত্ত্ব। অতিরঞ্জিত গল্প। তবু মেলে না সঠিক উত্তর। তরুণ অভিনেতার আকস্মিক মৃত্যু এখনও রহস্যে মোড়া।

১৪ জুন, ২০২০। বান্দ্রার আবাসনে ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া গিয়েছিল ৩৪ বছরের সুশান্তের দেহ। অনতিবিলম্বে শুরু হয় বলিউডের 'হাই প্রোফাইল' কেসের তদন্ত। বিহার থেকে উঠে আসা অভিনেতার মৃত্যুর কারণ অনুসন্ধানে তৎপর হয় মুম্বই পুলিশ।

কাট টু আগস্ট, ২০২০। সিবিআইয়ের কাছে হস্তান্তরিত হয় সুশান্ত-মৃত্যুর তদন্তভার। চলতে থাকে জিজ্ঞাসাবাদ, খতিয়ে দেখা হয় প্রয়াত অভিনেতার নেটমাধ্যমের নানা অ্যাকাউন্ট। মৃত্যুর আগে সুশান্তের মানসিক অবস্থা কেমন ছিল, তা নিয়েও চলে দীর্ঘ মূল্যায়ন। কিন্তু তার পর? থেকে যায় প্রশ্ন। উত্তর অজানা।

দু'বছর পরেও বদলায়নি ছবি। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক সিবিআই কর্তা জানান, মামলার অবস্থা অপরিবর্তিত। এই একটি বাক্যের বাইরে আর কোনও শব্দব্যয় নয়। আপাতত এই বিষয়ে মুখে কুলুপ কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থার।

সুশান্তের মৃত্যুর জন্য প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তী এবং তাঁর পরিবারকে দায়ী করেছিলেন অভিনেতার বাবা কেকে সিং। সেই মর্মে পাটনা পুলিশে অভিযোগও দায়ের করেন। গ্রেফতার হন রিয়া এবং তাঁর ভাই শৌভিক চক্রবর্তী। হাজতবাসও করতে হয় তাঁদের।

সুশান্তের মৃত্যুতে কোনও অস্বাভাবিকতা খুঁজে পায়নি মুম্বই পুলিশ। পুরো বিষয়টিকে আরও খতিয়ে দেখার দায়িত্ব পরে সিবিআইয়ের কাঁধে। কিন্তু এখনও ২২ মাস কাটলেও কাটেনি ধোঁয়াশা। প্রহেলিকার নাম সুশান্ত সিং রাজপুত।

বন্ধ করুন