বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > রিয়ার দায়ের করা এফআইআরের বিরুদ্ধে বম্বে হাইকোর্টের দ্বারস্থ সুশান্তের দুই দিদি
প্রিয়াঙ্কা সিং ও নীতু সিংয়ের সঙ্গে সুশান্ত (ফাইল ছবি)
প্রিয়াঙ্কা সিং ও নীতু সিংয়ের সঙ্গে সুশান্ত (ফাইল ছবি)

রিয়ার দায়ের করা এফআইআরের বিরুদ্ধে বম্বে হাইকোর্টের দ্বারস্থ সুশান্তের দুই দিদি

  • আজ জাস্টিস এস এস সিন্ধে এবং এমএস কার্নিকের ডিভিশন বেঞ্চে হবে এই মামলার শুনানি।

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর সঙ্গে জড়িত মাদককাণ্ডে প্রায় গত এক মাস ধরে জেলবন্দি রিয়া চক্রবর্তী। তবে এনসিবির হাতে গত ৮ সেপ্টেম্বর গ্রেফতারির মাত্র কয়েক ঘন্টা আগে বান্দ্রা পুলিশ থানায় সুশান্তের দুই বিবাহিত দিদি মিতু সিং ও প্রিয়াঙ্কা সিংয়ের বিরুদ্ধে বান্দ্রা পুলিশ থানায় এফআইআর দায়ের করেন রিয়া চক্রবর্তী। যা পরবর্তী সময়ে সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মেনে সিবিআইয়ের হাতে তুলে দেয় মুম্বই পুলিশ। সেই এফআইআর রদ করার জন্য বম্বে হাইকোর্টের দ্বারস্থ আগেই রয়েছিলেন মিতু ও প্রিয়াঙ্কা, আজ সেই মামলার শুনানি হবে আদালতে। 

৭ সেপ্টেম্বর বান্দ্রা পুলিশ থানায় ৬ ঘন্টা ধরে সুশান্তের দুই দিদি, প্রিয়াঙ্কা সিং এবং মীতু সিং ও চিকিত্সক তরুণ কুমারের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেন রিয়া চক্রবর্তী। নয়া দিল্লির রামমোনহর লোহিয়া হাসপাতালের কার্ডিওলজি বিভাগের অ্যাসোসিয়েট প্রফেসর ডঃ তরুণ কুমার। এঁদের তিনজনের বিরুদ্ধে সুশান্তকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়া,প্রতারণা,জালিয়াতি এবং অপরাধমূলক ষড়যন্ত্রের অভিযোগ এনেছেন রিয়া। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪৬৪,৪৬৫,৪৬৬,৪৬৮,৪৭৪,৩০৬,১২০ (বি), ৩৪ ধারায় এবং এনডিপিএস আইন, ১৯৮৫ এর আওতায় ৮(সি), ২১,২২, এবং ২৯ এর আওতায় এফআইআর দায়ের করেছেন সুশান্তের লিভ ইন পার্টনার রিয়া চক্রবর্তী।

আইনজীবী মাধক থোরাটের দ্বারা দাখিল করা পিটিশনে সুশান্তের দিদিরা আবেদন জানিয়েছিলেন, তাঁদের বিরুদ্ধে কোনওরকম অপরাধমূলক কাজের জন্য দায়ী করা যেতে পারে না কারণ সেই অভিযোগের ভিত্তি একমাত্র একটি প্রেসক্রিবশন যা এক চিকিত্সকের দেওয়া এবং এই ক্ষেত্রে সুপ্রিম কোর্টের একটি বিশেষ জাজমেন্ট মেনে চলার ক্ষেত্রে দায়বদ্ধ।

পিটিশনে বলা হয়েছে অভিযোগটি অনিয়মের ভরপুর এবং অসামঞ্জস্যপূর্ণ। এবং এই অভিযোগটি অভাবনীয়ভাবে বিলম্ব করে দায়ের করা হয়েছে, যেখানে ৮ জুন যে দিন সুশান্তের বাড়ি থেকে রিয়া নিজের জিনিসপত্র নিয়ে বেরিয়ে গিয়েছিল সেইদিনের প্রেসক্রিবশন এটি, অভিযোগ দাখিল করা হয় ৭ সেপ্টেম্বর- প্রায় ৯০ দিন পর। 

মাধব থোরাট জানিয়েছেন সুশান্তের দিদিরা  এই মামলায় সেন্ট্রাল ব্যুরো অফ ইনভেশটিগেশনের হাত থেকে অন্তর্বর্তীকালীন অব্যহতি চেয়েছেন, যাদের কাছে আপতত এই এফআইআরটি মুম্বই পুলিশ হস্তান্তর করে দিয়েছে। 

আজ জাস্টিস এস এস সিন্ধে এবং এমএস কার্নিকের ডিভিশন বেঞ্চে হবে এই মামলার শুনানি।

বন্ধ করুন