বাড়ি > বায়োস্কোপ > সুপ্রিম কোর্টে রিয়ার পিটিশনের পালটা হলফনামা দাখিল সুশান্তের বাবার
সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ সুশান্তের বাবা কেকে সিং  (PTI)
সুপ্রিম কোর্টের দ্বারস্থ সুশান্তের বাবা কেকে সিং  (PTI)

সুপ্রিম কোর্টে রিয়ার পিটিশনের পালটা হলফনামা দাখিল সুশান্তের বাবার

  • সুশান্তের মৃত্যু মামলার অন্যতম মূল সাক্ষী সিদ্ধার্থ পিঠানিকে প্রভাবিত করবার চেষ্টা করছেন রিয়া। সুপ্রিম কোর্টে জানালেন কেকে সিং। 

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্ত ইতিমধ্যেই শুরু করে দিয়েছে সিবিআই। বুধবার কেন্দ্রের তরফে বিজ্ঞপ্তি জারির চব্বিশ ঘন্টার মধ্যে রিয়া চক্রবর্তীসহ মোট ছয় জনের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা। 

সুশান্তের বাবা কেকে সিংয়ের তরফে পাটনা পুলিশের রাজীব নগর দায়ের এফআইআরের ভিত্তিতেই সিবিআই এই এফআইআর দায়ের করেছে। কিন্তু সুশান্তের বাবা পাটনার রাজীব নগর থানায় গত ২৫শে জুলাই যে এফআইআর দায়ের করেন সেটির জুরিসডিকশন (আইগত অধিকারক্ষেত্র) নিয়ে প্রশ্ন তুলে সুপ্রিম কোর্টে পিটিশন দায়ের করেছিলেন রিয়া। গত ২৮শে জুলাই দেশের সর্বোচ্চ আদালতের দ্বারস্থ হন অভিযুক্ত রিয়া. বলেন, সুশান্তের পরিবার প্রভাব খাটিয়ে তাকে ফাঁসিয়ে দিতে চাইছে সুশান্তের মৃত্যু সংক্রান্ত মামলায়। এবং সুশান্তের মৃত্যুর ঘটনার মুম্বইতে ঘটেছে তাই পাটনা পুলিশের আইনত এই মামলার তদন্তের অধিকার নেই।

এই পিটিশনের পাল্টা হলফনামা শনিবার সুপ্রিম কোর্টে দায়ের করলেন সুশান্তের বাবা কেকে সিং। তিনি সেই এফিডেভিট আবেদন করেন, এই মামলায় ইতিমধ্যেই সিবিআই এফআইআর দায়ের করেছে। তাই পাটনা পুলিশের কাছ থেকে মুম্বই পুলিশের কাছে এই মামলা হস্তান্তর করবার আর্জি এখন অপ্রাসঙ্গিক, খবর সংবাদ সংস্থা এএনআই সূত্রে। 

তিনি আরও জানিয়েছেন, রিয়া এই মামলার অন্যতম মূল সাক্ষী সিদ্ধার্থ পিঠানিকে প্রভাবিত করবার চেষ্টা করছেন। টাইমস নাওয়ের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে হলফনামায় কেকে সিং লিখেছেন, রিয়া কীভাবে নিজের পিটিশনে সিদ্ধার্থ পিঠানির মুম্বই পুলিশকে পাঠানো ই-মেলের কপি যোগ করল প্রমাণ হিসাবে। কে সেটি রিয়ার হাতে তুলে দিল?

রিয়া চক্রবর্তী ও অভিনেত্রীর পরিবারের বিরুদ্ধে চক্রান্ত, সুশান্তের সঙ্গে প্রতারণা (আর্থিক ও মানসিক) এবং তাঁকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার মতো অভিযোগ এনেছেন কেকে সিং। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০৬ (আত্মহত্যায় প্ররোচনা), ৩৪১,৩৪২,৩৮০,৪০৬, ৪২০-ধারায় মামলা দায়ের করেছে সিবিআই।

সুপ্রিম কোর্টে রিয়ার আবেদনের পরবর্তী শুনানির দিন নির্দিষ্ট হয়েছে ১১ অগস্ট, জানিয়েছে টাইমস নাওয়ের প্রতিবেদন। এই মামলায় জুরিসডিকশনের বিষয়টি নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত জানাবে দেশের সর্বোচ্চ আদালত। 

বন্ধ করুন