বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > সুশান্ত মৃত্যু মামলা নিয়ে অবশেষে মুখ খুলল CBI, জারি করল প্রেস বিবৃতি
সুশান্ত সিং রাজপুত (ফাইল ছবি, সৌজন্য এপি)
সুশান্ত সিং রাজপুত (ফাইল ছবি, সৌজন্য এপি)

সুশান্ত মৃত্যু মামলা নিয়ে অবশেষে মুখ খুলল CBI, জারি করল প্রেস বিবৃতি

  • সোমবার সিবিআইয়ের তরফে জারি করা হল প্রেস বিবৃতি। 

দিশা হারাচ্ছে সুশান্তের মৃত্যুর তদন্ত। সিবিআই থেকে গোটা মামলা এখন সরে গিয়েছে এনসিবির তদন্তে- বলিউডের মাদকযোগ নিয়েই চলছে যাবতীয় মিডিয়া কভারেজ। গত কয়েকদিন ধরেই এই বিষয় নিয়ে অসন্তুষ্ট সুশান্তের পরিবার ও অনুরাগীরা। প্রয়াত অভিনেতার মৃত্যুর বিচার চেয়ে সিবিআইয়ের কাছে বারবার কাতর আর্জি জানিয়েছে তাঁরা। সুশান্তের মৃত্যুর ফরেনসিক রিপোর্ট কেন এখনও প্রকাশ্যে আনছে না সিবিআই? প্রশ্ন তাঁদের। 

এই সব প্রশ্নের মাঝে সোমবার অবশেষে মুখ খুলল সিবিআই। এদিন প্রেস বিবৃতি জারি করে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা জানাল- ' পেশাদার ভাবে সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্ত চালাচ্ছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা (সিবিআই)। এই মৃত্যুর সঙ্গে জড়িত প্রত্যেকটি বিষয় খতিয়ে দেখাচ্ছে, এবং কোনওরকম সম্ভাবনাই আমাদের তরফে উড়িয়ে দেওয়া হয়নি আজকের তারিখ পর্যন্ত। 

তদন্ত জারি রয়েছে….'

 সুশান্ত মামলার গতিপ্রকৃতি নিয়ে দু-দিন আগেই এক সাংবাদিক সম্মেলন করে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন অভিনেতার বাবার আইনজীবী বিকাশ সিং । সুশান্তের পরিবারের মতে অভিনেতার মৃত্যুর মামলাকে অন্য পথে ঘোরানো হচ্ছে । এদিন বিকাশ সিং দাবি করেন, এইমস -এর চিকিৎসক তাঁর কাছে স্বীকার করেছেন গলা টিপে খুন করা হয়েছে সুশান্তকে । অথচ এই বিষয়ে এখনও পর্যন্ত কোনও বিবৃতি জারি করেনি সিবিআই, সামনে আসেনি এইএমস টিমের তৈরি ফরেনসিক রিপোর্ট । ধীর গতিতে মামলা এগোনোতেও রীতিমতো বিরক্ত তিনি । একই সুরে সুর মেলান সুশান্তের দিদি শ্বেতা সিং কীর্তি। তিনি তিনদিন আগে টুইট করেন- ‘আমরা অনেক ধৈর্য ধরেছে! আর কতদিন সময় লাগবে সত্যিটা সামনে আসতে ? #SSRDeathCase’।

সোমবার সিবিআইয়ের তদন্ত নিয়ে অসন্তুষ্টি প্রকাশ করে ২রা অক্টোবর থেকে অনশনে বসার কথা জানিয়েছে সুশান্তের দুই প্রাক্তন কর্মচারী অঙ্কিত আচার্য ও গণেশ। সিবিআই তদন্তের মন্থর গতি নিয়ে এদিন প্রশ্ন তোলে তাঁরাও। ডিজিটাল প্রতিবাদের পথে হেঁটে সোমবার ফের টুইটারে #AIIMSBeFairWithSSRReport টেন্ড করাচ্ছেন সুশান্ত ভক্তরা। আজ সকাল থেকে টুইটার ইন্ডিয়ায় পয়লা নম্বরে ট্রেন্ড করছে এই হ্যাশট্যাগ। এখনও পর্যন্ত প্রায় সাড়ে তিন লক্ষ টুইট হয়েছে এই হ্যাশট্যাগকে ঘিরে। 

উল্লেখ্য গত ১৪ জুন বান্দ্রার কার্টার রোডের ফ্ল্যাট থেকে উদ্ধার হয় সুশান্তের দেহ। এরপর প্রায় ৬৫ দিন ধরে এই মামলার তদন্ত করলেও কোনও এফআইআর দায়ের করেনি মুম্বই পুলিশ। অভিনেতার মৃত্যুর ৪১ দিনের মাথায়, ২৫ জুলাই বিহার পুলিশে এফআইআর দায়ের করেন সুশান্তের বাবা কেকে সিং। তিনি রিয়া চক্রবর্তী ও তাঁর পরিবারের বিরুদ্ধে সুশান্তকে আত্মহত্যায় প্ররোচণা দেওয়ার অভিযোগ আনেন। এরপর বিহার সরকারের আবেদন মেনে কেন্দ্র ৫ অগস্ট এই মৃত্যুর তদন্তভার তুলে দেয় সিবিআইয়ের হাতে। যদিও সুপ্রিম কোর্টে এর বিরোধিতা করেন রিয়া চক্রবর্তী ও মহারাষ্ট্র সরকার। তবে কেন্দ্রের সিদ্ধান্তে সুপ্রিম সিলমোহর পড়ে ১৯ অগস্ট। এরপর থেকে সিবিআই এই মৃত্যুর তদন্ত শুরু করেছে। 

এই মৃত্যু মামলার সঙ্গে জড়িত আর্থিক তছরুপের মামলার তদন্ত চালাচ্ছে এনফোর্সমেন্ট ডিরেক্টরেট এবং মাদক সংক্রান্ত মামলা খতিয়ে দেখছে এনসিবি। 

বন্ধ করুন