বাড়ি > বায়োস্কোপ > ১৫ কোটি টাকা অ্যাকাউন্ট থেকে সরিয়েছে রিয়া ও তাঁর পরিবার,FIR-এ দাবি সুশান্তের বাবার
এফআইআর রিয়ার পুরো পরিবারের বিরুদ্ধে
এফআইআর রিয়ার পুরো পরিবারের বিরুদ্ধে

১৫ কোটি টাকা অ্যাকাউন্ট থেকে সরিয়েছে রিয়া ও তাঁর পরিবার,FIR-এ দাবি সুশান্তের বাবার

  • রিয়ার বাবা,মা,ভাই,বোন সহ অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করেছেন সুশান্তের বাবা। 

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর তদন্তে চাঞ্চল্যকর মোড়। সুশান্তের গার্লফ্রেন্ড রিয়া চক্রবর্তীর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করলেন প্রয়াত অভিনেতার বাবা কেকে সিং। এদিন শুধু রিয়া চক্রবর্তীই নয়, এফআইআর দায়ের করা হয়েছে রিয়ার গোটা পরিবারের বিরুদ্ধে। এফআইআর দায়েরের খবরে সিলমোহর দিয়েছেন,পাটনা সেন্ট্রাল জোনের আইজি সঞ্জয় সিং।

 জানা গিয়েছে রিয়া ও অভিনেত্রীর পরিবারের বিরুদ্ধে চক্রান্ত, সুশান্তের সঙ্গে প্রতারণা (আর্থিক ও মানসিক) এবং তাঁকে আত্মহত্যায় প্ররোচনা দেওয়ার মতো অভিযোগ এনেছেন কেকে সিং। ভারতীয় দণ্ডবিধির ৩০৬ (আত্মহত্যায় প্ররোচনা), ৩৪১,৩৪২,৩৮০,৪০৬, ৪২০-ধারায় রিয়ার পুরো পরিবারের বিরুদ্ধে পাটনার রাজীব নগর থানায় অভিযোগ জানিয়েছে সুশান্তের পরিবার। গত শনিবার দায়ের করা হয়েছে এই এফআইআর।

সুশান্তের বাবা,কেকে সিংয়ের দায়ের করা এফআইআরে নাম উল্লেখ রয়েছে রিয়া চক্রবর্তী, তাঁর বাবা ইন্দ্রজিত্ চক্রবর্তী, মা সন্ধ্যা, বোন শ্রুতি, ভাই শৌভিক চক্রবর্তীর। তাঁরা নানাভাবে সুশান্তের উপর মানসিক ও আর্থিক নির্যাতন চালাচ্ছিল বলে অভিযোগ। সুশান্তের পরিবারের তরফে দাবি করা হয়েছে সুশান্তের অ্যাকাউন্ট থেকে ১৫ কোটি টাকা সরিয়েছে রিয়া ও তাঁর পরিবার। সুশান্তের এটিএম এবং ক্রেডিট কার্ডের কন্ট্রোল ছিল রিয়ার হাতে। প্রয়াত অভিনেতার একটি ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট (কোটাক মহিন্দ্রা ব্যাঙ্ক) সম্পূর্ন খালি করেছে রিয়া,সেই টাকা গিয়েছে তাঁর পরিবারের সদস্যদের অ্যাকাউন্টে। 

অর্গানিং ফার্মিংয়ে টাকা বিনিয়োগে ইচ্ছুক ছিলেন সুশান্ত, যদিও অভিনেতার এই ইচ্ছায় সায় ছিল না রিয়ার, দীর্ঘ পাঁচ পাতার এফআইআর কপিতে জানিয়েছেন কেকে সিং। দাবি করা হয়েছে, সুশান্তকে হুমকি দিচ্ছিলেন রিয়া,যে তাঁর সমস্ত মেডিকাল সমস্যা সংক্রান্ত  প্রেসক্রিপশন মিডিয়ায় ফাঁস করে দেবেন তিনি। 

দেখুন এফআইআরের কপি 
দেখুন এফআইআরের কপি 

সুশান্তের দুটি কোম্পানিতে ডিরেক্টর পদে আছেন রিয়া চক্রবর্তী,একটিতে নাম রয়েছে অভিনেত্রীর ভাইয়েরও। সেই দুটো কোম্পানিতেই মোটা টাকা লগ্নি করেছিলেন সুশান্ত। রিয়ার বিদেশ ভ্রমণের যাবতীয় খরচও মেটাতেন তিনি, বলছে সুশান্তের পরিবার। 

১৪ জুন সুশান্তের আত্মহত্যার দুদিন আগেই নাকি সুশান্তের ল্যাপটম এবং সমস্ত গহনা নিয়ে চলে যান রিয়া। কৃষ্ণা কুমার সিং বলেছেন, সুশান্ত তাঁর একমাত্র ছেলে ছিল। জেনে বুঝে সুশান্তকে পরিবারের কাছ থেকে দূরে রাখতেন রিয়া। নানাভাবে সুশান্তকে শোষণ করে মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিয়েছেন রিয়া চক্রবর্তী। 

মুম্বইয়ে রিয়ার বাড়ির সামনে নিস্তব্ধতা 
মুম্বইয়ে রিয়ার বাড়ির সামনে নিস্তব্ধতা 

ইতিমধ্যেই এই মামলার তদন্ত করতে মুম্বই রওনা দিয়েছে পাটনা পুলিশের চার সদস্যের একটি দল।যাঁর নেতৃত্বে রয়েছেন নিশান্ত সিং। সবদিক খতিয়ে দেখা হবে,আশ্বাস দিয়েছেন আইজি সঞ্জয় সিং। গত দুদিনে পাটনা পুলিশের তদন্তে সামনে এসেছে বেশ কিছু বলিউড প্রযোজকের নামও,তাঁদেরকেও প্রশ্নের মুখে পড়তে হবে। ইতিমধ্যেই সুশান্তের মৃত্যুর তদন্তের দায়িত্বে থাকা মুম্বই পুলিশের ডেপুটি কমিশনার অভিষেক ত্রিমুখের সঙ্গে সাক্ষাত্ করেছে পাটনা পুলিশ টিম। রিয়া ও তাঁর পরিবারকে এবার পাটনা পুলিশের জেরার মুখে পড়তে হবে।

বন্ধ করুন