বাড়ি > বায়োস্কোপ > জাতীয় টেলিভিশনে অঙ্কিতাকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন সুশান্ত! ভাইরাল সেই ভিডিয়ো
জাতীয় টেলিভিশনে অঙ্কিতাকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন সুশান্ত 
জাতীয় টেলিভিশনে অঙ্কিতাকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন সুশান্ত 

জাতীয় টেলিভিশনে অঙ্কিতাকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন সুশান্ত! ভাইরাল সেই ভিডিয়ো

  • ঝলক দিখলাঝার মঞ্চে সুশান্ত বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন অঙ্কিতাকে। সেই স্মৃতি বড্ড মনে পড়ছে এই জুটির ভক্তদের।

তাঁদের পবিত্র রিসতা অটুট,গল্পের মতো বাস্তবেও কোনদিনও ভাঙতে পারে না এই প্রেম। একটা সময় এমনটাই বিশ্বাস ছিল সুশান্ত-অঙ্কিতা ভক্তদের। ২০০৯ সালে পবিত্র রিসতার সেটেই প্রথম আলাপ সুশান্ত-অঙ্কিতার। সেখানেই ঝগড়া দিয়ে শুরু দুজনের বন্ধুত্ব, এবং তারপর প্রেম। কোনদিনও নিজেদের সম্পর্ক নিয়ে লুকোছাপা করেননি দুজন। মেনে নিয়েছেন-'হ্যাঁ, ভালোবাসি একে অপরককে'। ভারতীয় টেলিভিশনের অন্যতম সেরা অনস্ক্রিন জুটির অফস্ক্রিন রসায়নও চর্চায় থাকত হামেশা। এমনিতে একটু লাজুক স্বভাবের ছেলে সুশান্ত। মন খুলে মনের কথাটা ঠিক বলতে পারেন না। কিন্তু জাতীয় টেলিভিশনে অঙ্কিতাকে বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছিলেন তিনি। বলেছিলেন আগামী সাতটা জন্ম তোমার সঙ্গেই কাটাতে চাই। 

জনপ্রিয় ডান্স রিয়ালিটি শো ঝলক দিখলাজার চার নম্বর সিজনে অংশ নিয়েছিলেন সুশান্ত অঙ্কিতা দুজনেই। সালটা ২০১০-২০১১। ঝলক দিখলার ভ্যালেন্টাইন্স ডে স্পেশ্যাল এপিসোডেই অঙ্কিতাকে প্রপোজ করেছিলেন সুশান্ত। আজ এই স্মৃতিগুলোই বড্ড বেশি করে জাপটে ধরছে সুশান্ত-অঙ্কিতা জুটির ফ্যানেদের। এই ভিডিয়ো আপতত ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়। 

ব্যাকগ্রাউন্ডে বাজছে পেহলা নশা গান, আর হাঁটু গেড়ে বসে নিজের লেডি লাভকে বিয়ের প্রস্তাব দিচ্ছেন সুশান্ত। এই ঘটনার সাক্ষী ছিলেন সেদিনের সেলেব্রিটি গেস্ট প্রিয়াঙ্কা চোপড়া এবং ঝলকের তিন বিচারক মাধুরী দীক্ষিত, মালাইকা আরোরা এবং রেমো ডিসুজা। জবাবে অঙ্কিতা জানান, আই লাভ ইউ টু গুগগু'… এই নামেই সুশান্তকে ডাকতেন অঙ্কিতা। এই উত্তরে সন্তুষ্ট হননি ঝলকের বিচারকমন্ডলী,তাঁদের অনুরোধে অঙ্কিতা পূর্ণবাক্যে জবাব দেন.হ্যাঁ তোমাকে আমি বিয়ে করব'।

শুধু প্রেম সম্পর্ক নয়,লিভ ইন রিলেশনশিপে ছিলেন সুশান্ত-অঙ্কিতা। ২০১৬-র ডিসেম্বরে বিয়ে করবেন তাঁরা, মিডিয়ার সামনে দাঁড়িয়ে একথা বলেছিলেন দুজনেই। কিন্তু মাসখানেক আগে থেকেই সুশান্তের সঙ্গে অঙ্কিতার ব্রেক-আপের খবর ছড়িয়ে পরে মিডিয়ায়। জানুয়ারিতে (২০১৬)  সুশান্তের জন্মদিনের পার্টিতে হাজির ছিলেন না অঙ্কিতা, যা দুজনের ব্রেক-আপের খবরে কার্যত শিলমোহর দিয়ে দেয়। এরপরই সুশান্ত শিফট করে যান সেই ফ্ল্যাট থেকে যেই ফ্ল্যাটে নিজেদের ভালোবাসার নীড় সাজিয়েছিলেন তাঁরা। তখনই স্পষ্ট হয়ে যায় সব শেষ।

সুশান্তের ফিল্মি কেরিয়ার যখন উত্তরণের দিকে তখনই প্রেম সম্পর্কে ছন্দপতন। ২০১৬ সালের মে মাসে অফিসিয়্যালি অঙ্কিতা লোখান্ডের সঙ্গে দীর্ঘ সাত বছরের সম্পর্কে ইতি টানেন সুশান্ত। 

সম্পর্কটা শেষ হয়ে গেলেও একে অপরের প্রতি সম্মানটা বজায় রেখেছিলেন সুশান্ত-অঙ্কিতা। এদিন সংবাদমাধ্যমের কাছ থেকেই সুশান্তের আত্মহত্যার খবর পান অঙ্কিতা। সাংবাদিকের মুখে এই খবর শুনে তাঁর মুখ থেকে একটাই শব্দ বেরিয়ে ছিল.. হোয়াট? এরপর কিছু সময়ের নীরবতা,তার পরেই ফোন কেটে দেন তিনি। এরপর থেকে অঙ্কিতার সঙ্গে কোনওভাবেই যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি। তবে সুশান্ত-অঙ্কিতার পবিত্র রিসতা কো-স্টার পরাগ ত্যাগী জানিয়েছেন সুশান্তের আত্মহত্যার খবর পেয়েই ভেঙে পড়েছেন অঙ্কিতা।

সুশান্তের আত্মহত্যার পর ইটাইমসে দেওয়া সাক্ষাত্কারে সেলেব্রিটি স্টাইলিস্ট লিপাক্ষি এল্লাওয়াদি জানিয়েছেন, ‘সুশান্ত খুব সম্মান করত অঙ্কিতাকে। সবসময় ওর প্রশংসা করত।বলত কীভাবে অঙ্কিতা কঠিন সময়ে ওর পাশে দাঁড়িয়েছে তাই অঙ্কিতার প্রতি ও চিরকৃতজ্ঞ’।

বন্ধ করুন