বাড়ি > বায়োস্কোপ > ঐশ্বর্য-প্রিয়াঙ্কার চেয়ে কম দামি সুস্মিতা,প্রশ্নের মুখে পড়ে লাজবাব বঙ্গ তনয়া
সুস্মিতা সেন, ঐশ্বর্য রাই (বচ্চন), প্রিয়াঙ্কা চোপড়া (জোনাস) (ডান দিক থেকে)
সুস্মিতা সেন, ঐশ্বর্য রাই (বচ্চন), প্রিয়াঙ্কা চোপড়া (জোনাস) (ডান দিক থেকে)

ঐশ্বর্য-প্রিয়াঙ্কার চেয়ে কম দামি সুস্মিতা,প্রশ্নের মুখে পড়ে লাজবাব বঙ্গ তনয়া

  • দুই প্রাক্তন মিস ওয়ার্ল্ডের চেয়ে বৃহত্তর জগতে সুস্মিতার খ্যাতি অনেক কম! সাংবাদিকের এমন প্রশ্নের মুখে পড়ে কী জবাব দিলেন সুস্মিতা সেন?

সুস্মিতা সেন, ঐশ্বর্য রাই (বচ্চন), প্রিয়াঙ্কা চোপড়া (জোনাস)- এই তিন প্রাক্তন বিশ্ব সুন্দরীর মধ্যে আরও একটি বিষয় কমন, তাঁরা তিনজনেই বিউটি পেজেন্ট জয়ের পর রুপোলি সফর শুরু করেন। ১৯৯৪ সালে বিশ্ব ব্রহ্মাণ্ড সুন্দরীর খেতাব জিতে ছিলেন সুস্মিতা। একই বছর মিস ওয়ার্ল্ডের খেতাব জয় করেন ঐশ্বর্য। ছ বছর পর ঐশ্বর্যর কীর্তির পুনরাবৃত্তি করেন প্রিয়াঙ্কা চোপড়া।

ঐশ্বর্য রাইয়ের সঙ্গে সুস্মিতার তুলনা বরাবরের। ১৯৯৪ সালের ফেমিনা মিস ইন্ডিয়ার মঞ্চ থেকেই সেই তুলনাটা হয়ে চলেছে,কারণ সেখানে একজন প্রথম,অন্যজন দ্বিতীয় স্থান দখল করেছিলেন। সেইদিনের লড়াইয়ে অল্প কয়েক নম্বরে ঐশ্বর্য পিছিয়ে পড়লেও বৃহত্তর ক্ষেত্রে ঐশ্বর্যর কেরিয়ার গ্রাফ বেশি প্রশংসার দাবি রাখে,মত সমালোচকদের। পাশাপাশি ঐশ্বর্যর পর যদি কোনও ভারতীয় সুন্দরী তথা বলিউড নায়িকা পাশ্চত্য দুনিয়ায় নিজের আধিপত্য কায়েম করতে পরেছেন তিনি প্রিয়াঙ্কা চোপড়া। এখন হলিউডের পরিচিত নাম পিগি চপস,ভারতের গ্লোবাল আইকন। একবার ঐশ্বর্য আর প্রিয়াঙ্কার কীর্তি এবং সেই তুলনায় নিজের একটু কম সাফল্য নিয়ে প্রশ্ন করা হয়েছিল সুস্মিতা সেনকে। সেই প্রশ্ন শুনে কী উত্তর দিয়েছিলেন প্রাক্তন মিস ইউনিভার্স জানলে চমকে যাবেন! সেই ভিডিয়ো আপতত ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়।

ভিডিয়োয় এক সাংবাদিক সুস্মিতাকে ঐশ্বর্য ও প্রিয়াঙ্কা সম্পর্কে বলেন,ওঁরা অনেক কিছু অর্জন করেছে, আপনি একটু কম অর্জন করেছে ওঁদের তুলনায়...' প্রশ্ন শেষ হওয়ার আগেই সুস্মিতা বলেন, অনেক কম অর্জন করেছি! সত্যি বলতে প্রিয়াঙ্কা চোপড়া আমাদের জন্য যা করছে,অনেক কম লোক সেটা করতে পারে।

এরপর সেই সাংবাদিক সুস্মিতাকে আরও বলেন, তাঁর পরে বিশ্ব সুন্দরী হয়েছেন, এই দুজনের কীর্তি নিয়ে কিছু বলতে। সাংবাদিকের ভুল শুধরে দিয়ে সুস্মিতা জানান, আমার পর মিস ইউনিভার্স হয়েছিলেন লারা দত্ত (২০০০), তারপর এখনও কেউ দুর্ভগ্যবশত সেই কীর্তি অর্জন করতে পারেনি। কিন্তু আমি নিশ্চিত অদূর ভবিষ্যতে আমরা পারব,আমরা করে দেখাব, আমাদের সময় এসে গিয়েছে।দেখুন অলিম্পিক থেকে শুরু করে সর্বত্র আমরা কত ভালো প্রদর্শন করছি'। 

বিশ্ব সুন্দরীর তাজ মাথায় তিন নায়িকা 
বিশ্ব সুন্দরীর তাজ মাথায় তিন নায়িকা 

সুস্মিতার এই লা-জাবাব ভঙ্গিতে দেওয়া উত্তর মন জিতে নিচ্ছে নেটিজেনদের। মিস ওয়ার্ল্ডের খেতাব জিতেছিলেন ঐশ্বর্য ও প্রিয়াঙ্কা। দ্বিতীয় ভারতীয় হিসাবে মিস ওয়ার্ল্ড হন ঐশ্বর্য। এরপর ডায়না হেডেন (১৯৯৭) এবং যুক্তা মুখী ( ১৯৯৯) এই কীর্তি অর্জন করেন। নতুন শতাব্দীর শুরুতেই প্রিয়াঙ্কা চোপড়া জেতেন মিস ওয়ার্ল্ডের খেতাব। এরপর একটা সুদীর্ঘ সময় আন্তর্জাতিক সৌন্দর্য প্রতিযোগীতায় ভারতের ঝুলি খালি থেকেছে। ২০১৭ সালে মানুশী ছিল্লার মিস ওয়ার্ল্ডের খেতাব অর্জন করে দেশকে সম্মান এনে দেন। কিন্তু আজ অবধি কেবলমাত্র দুজন ভারতীয় মহিলার মাথাতেই উঠেছিল মিস ইউনিভার্সের তাজ। প্রথম ভারতীয় হিসাবে মিস ইউনিভার্স হন বাঙালি কন্যা সুস্মিতা সেন। ছ বছর পর সেই কীর্তির পুনরাবৃত্তি হয় লারা দত্তর হাত ধরে। কিন্তু গত দু দশকে আর কেউ সেই কাজ করে দেখাতে পারেনি। প্রসঙ্গত শীঘ্রই পাঁচ বছর পর অভিনয়ের দুনিয়ায় কামব্যাক করছেন সুস্মিতা সেন। হটস্টার ডিজনি প্লাসের ওয়েব সিরিজ আর্য'তে দেখা যাবে সুস্মিতাকে।

বন্ধ করুন