বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ১৫ বছরের ছেলে হাত দিয়েছিল শরীরে, উচিত শিক্ষা দেন সুস্মিতা!
সুস্মিতা সেন (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
সুস্মিতা সেন (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

১৫ বছরের ছেলে হাত দিয়েছিল শরীরে, উচিত শিক্ষা দেন সুস্মিতা!

মুম্বইয়ে এক পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে প্রবেশের সময় হঠাৎই নিজের শরীরে অবাঞ্ছিত হাতের স্পর্শ অনুভব করেন সুস্মিতা। তারপর…

নারীর ক্ষমতায়ন নিয়ে বরাবরই সরব সুস্মিতা সেন। মুম্বইয়ে নারী সুরক্ষা নিয়ে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে চিফ গেস্ট হিসেবে হাজির ছিলেন প্রাক্তন মিস ইউনিভার্স। কথা প্রসঙ্গে সুস্মিতা বলেন ভারতবর্ষের প্রতিটা মেয়ের জানা কীভাবে নিজের আত্মরক্ষা করতে হয়। কথা প্রসঙ্গে নিজের সঙ্গে হয়ে যাওয়া একটি যৌন হেনস্তার কথাও বলেন তিনি। 

২০১৮ সালে যখন ‘মি টু’ মুভমেন্টে বলিউড তোলপাড়, একের পর এক মুখ খুলছেন প্রথম সারির নায়িকা, বাদ যাচ্ছেন না নায়করাও। তখনও এই ঘটনার কথা সবার সঙ্গে ভাগ করে নিয়েছিলেন অভিনেত্রী।! যদিও তাঁর সঙ্গে ঘটা এই ঘটনায় বিনোদন জগতের কেউ যুক্ত ছিলেন না। সম্প্রতি অতীতের সেই পৃষ্ঠা আবার নতুন করে উলটেছেন নায়িকা।

সুস্মিতা জানান, মুম্বইয়ে এক পুরস্কার বিতরণী মঞ্চে প্রবেশের সময় হঠাৎই নিজের শরীরে অবাঞ্ছিত হাতের স্পর্শ অনুভব করেন সুস্মিতা। ততক্ষণাৎ ক্ষিপ্রতার সঙ্গে পিছন ফিরে ভিড়ের মধ্যে থেকে ওই হাত ধরে টেনে আনেন দোষিকে। চমকে যান সুস্মিতা! দেখেন তাঁর সামনে বছর পনেরোর একটি ছেলে দাঁড়িয়ে!

সবার সামনে কিছু না বলে ছেলেটিকে এক কোনায় নিয়ে আসেন। নায়িকার কথায়, তিনি চাইলেই চিৎকার করতে পারতেন। কিন্তু করেননি, কারণ এতে ছেলেটির পুরো জীবন নষ্ট হয়ে যেত। তিনি একটা সুযোগ দিতে চেয়েছিলেন নিজের দোষ স্বীকারের। ভিড়ের থেকে দূরে নিয়ে এসে ছেলেটিকে ক্ষমা চাইতে বলেন সুস্মিতা। প্রথম দিকে অস্বীকার করলেও, পরে বেগতিক বুঝে অপরাধ কবুল করে সে।

সুস্মিতার কথায় এখনও অনেক বাড়ির লোকেরাই তাঁদের ছেলেদের শেখান না, কীভাবে মেয়েদের যোগ্য সম্মান দিতে হয়। এমনকী, হেনস্থার শিকার হয়ে নারীরা যে প্রতিবাদ করতে পারে, সেটাও অনেক পুরুষের কল্পনাতীত! কিন্তু প্রত্যেক নারীর উচিত দোষিকে যোগ্য সহবত শেখানো। তিনি সেই কাজটাই করেছিলেন। যাতে ছেলেটি লজ্জিত হয়। নিজের ভুল শুধরে নেওয়ার একটা সুযোগ পায়!

বন্ধ করুন