বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Swara Bhasker: শাহরুখ হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে মুম্বইয়ে এসেছিলেন স্বরা! সঙ্গে ছিল বেডিংপত্র-ট্রাঙ্ক
'শাহরুখ খান' হওয়ার জন্য মুম্বই এসেছিলেন স্বরা

Swara Bhasker: শাহরুখ হওয়ার স্বপ্ন নিয়ে মুম্বইয়ে এসেছিলেন স্বরা! সঙ্গে ছিল বেডিংপত্র-ট্রাঙ্ক

  • মুম্বইয়ে রাখার পর প্রথম দিকের দিনগুলি কেমন ছিল স্বরার কাছে? সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে সেই নিয়ে মুখ খুলেছেন নায়িকা। বলেছেন, 'শাহরুখ খান' হওয়ার জন্য মুম্বইতে এসেছিলেন তিনি।

চোখে একরাশ স্বপ্ন নিয়ে মুম্বইয়ে এসেছিলেন অভিনেত্রী স্বরা ভাস্কর। এক দশক আগের কথা। শাহরুখ খানের মতোই হতে চেয়েছিলেন তিনি। বাবা-মায়ের সঙ্গে দিল্লিতে থাকতেন অভিনেত্রী। এরপর মুম্বইয়ে এসে বেশ কয়েক সপ্তাহ নতুন বাড়ি সন্ধানে ঘুরতে হয়েছিল তাঁকে। 

সেই সময় প্রয়োজনীয় সমস্ত জিনিস স্বরার ব্যাগে সাজিয়ে গুছিয়ে পাঠিয়েছিলেন তাঁর মা। ঘর না পাওয়ার দরুন, প্রায় একমাস বন্ধুর সঙ্গে অফিসে কাটাতে হয়েছিল অভিনেত্রীকে। ২০০৯ সালে ‘মাধোলাল কিপ ওয়াকিং’-এর মাধ্যমে বলিউডে আত্মপ্রকাশ করেন স্বরা।

এক ম্যাগাজিনকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে স্বরা বলেন, 'আমি খুব পরিষ্কার ছিলাম, আমি নায়িকা হতে এসেছি। আমি শাহরুখ খান হতে চেয়েছিলাম। এক ফিল্মি শট যেখানে গ্রামবাসী তাঁদের মালপত্র নিয়ে সিএসটি-তে পৌঁছায়, আমি ঠিক সেভাবেই এসেছি। এমনকি আমার বাবা-মা আমাকে একটি বেডিং রোল দিয়েছিল যা বিগত ৫০ বছরে অন্য কেউ ব্যবহার করেনি। সঙ্গে একটা ট্রাঙ্ক। আমার মনে হয় মা-র সন্দেহ হয়েছিল, আমি কখনই বিয়ে করব না। তাই বিয়েতে যা যা দেবে ভেবেছিল, সবই ওই ট্রাঙ্কে পুরে দিয়েছিল। বাসনপত্র, হাঁড়ি এবং প্রেসার কুকার, আমি বলেছিলাম 'মা, বম্বেতেও বাসন আছে।' মজাদার কোনও ব্যক্তির মতো মালপত্র নিয়ে এসেছিলাম। আমার বাকি জীবনের সঙ্গী ছিল এগুলি।' আরও পড়ুন: ওটিটির জগতে পা রাখলেন জুহি চ্যাওলা! কোন রহস্য লুকিয়ে ‘হাশ হাশ’-এর ট্রেলারে?

মুম্বইতে বন্ধুর সঙ্গে একটি বাড়ি খুঁজে পেতে রীতিমতো লড়াই করতে হয়েছিল স্বরাকে। অভিনেত্রীর কথায়, বাড়ির মালিকরা মনে করেছিলেন তাঁরা ‘ভবঘুরে’। বাড়িওয়ালারা ভাবতেন তাঁদের বয়ফ্রেন্ড আছে। একজন বাড়িওয়ালা স্বরাকে বিল্ডিংয়ের বিধিনিষেধগুলি তালিকা হাতে ধরিয়ে ভারতীয় সংবিধানের পাঠ পড়াতে শুরু করেন। আরও পড়ুন: ‘শতাব্দীর সেরা সুপারস্টার’, KBC প্রতিযোগীর লেখা চিঠি শুনে আবেগতাড়িত অমিতাভ

অভিনেত্রী আরও বলেন, ‘আন্ধেরিতে বাড়ি পেলাম না। আমি গুরগাঁওয়ে এমন একটা বাড়ি খুঁজে পেয়েছিলাম, যা সদ্য তৈরি হচ্ছে। এখনও কোনও নাম দেওয়া হয়নি বাড়িটার। এক মাস আমি একজনের অফিসে থাকতাম, তাই আমাকে সকাল ৯টার আগে বেরিয়ে যেতে হত এবং সন্ধ্যা ৬টার পর ফিরে আসতে হত। সকাল ৯টায় বেরিয়ে আসার পর শপিং মলে বা রাস্তায় বসে থাকতাম। চিত্রনাট্যকার আঞ্জুম রাজাবালীর অফিস ছিল। হ্যাঁ, তাই আমি রাজনীতি (২০১০)-এর লেখকের অফিসে থাকতাম। প্রতিদিন তিনি হাঁক দিতেন, আমরা জল শেষ করে দিয়েছি তাই। কারণ আমরা দু-জন মেয়ে রোজ স্নান করে বেরোতাম। এক সময়ে, আমরা গুরগাঁওয়ে ওয়ান বিএইচকেতে ছয়জন থাকতাম।' আরও পড়ুন: গ্ল্যামার জগতে পা রাখছেন আরিয়ান? ‘টি-শার্টটা আমার তো!’, ছবি দেখে বললেন শাহরুখ

‘মাধোলাল কিপ ওয়াকিং’ দিয়ে বলিউডে ডেবিউ করার পর স্বরা হৃতিক রোশন, ঐশ্বর্য রায়, বং আদিত্য রায় কাপুরের সাথে ‘গুজারিশ’ (২০১০) ছবিতে কাজ করেছিলেন। ‘তনু ওয়েডস মনু’ (২০১০) ছবিতে পায়েল চরিত্রে অভিনয় করে তিনি আরও বেশি পরিচিতি লাভ করেন। পরবর্তীতে ‘জাহান চার ইয়ারে’ দেখা যাবে স্বরাকে। ১৬ সেপ্টেম্বর সিনেমাহলে মুক্তি পাবে সেই ছবি। 

বন্ধ করুন