বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘অসুস্থ প্রেম’ নিয়ে কটাক্ষ প্রিয়াঙ্কার,সায়ন্তর বললেন,‘লোকে ভাবে ব্রেকআপ হলে সব দোষ ছেলেদেরই’

‘অসুস্থ প্রেম’ নিয়ে কটাক্ষ প্রিয়াঙ্কার,সায়ন্তর বললেন,‘লোকে ভাবে ব্রেকআপ হলে সব দোষ ছেলেদেরই’

প্রিয়াঙ্কার অভিযোগের জবাব দিলেন সায়ন্ত

Sayanata Modak on his Break up with Priyanka: ‘লোকে ধরে নেয় সম্পর্ক ভাঙলে ছেলেটারই সব দোষ', পরপর দু নায়িকার সঙ্গে ভেঙেছে প্রেম। কটাক্ষে জর্জরিত সায়ন্ত, দিলেন সপাট জবাব। 

একটা সময় টেলিপাড়ার হট কপল ছিলেন দেবচন্দ্রিমা সিংহ রায় ও সায়ন্ত মোদক। জুটির মাখোমাখো ছবি আগুন ঝরাতো সোশ্যালে। কিন্তু হঠাৎ করেই ২০২১ সালে ভেঙে যায় দুজনের প্রেম। মাস কয়েক যেতে না যেতেই অভিনেত্রী প্রিয়াঙ্কা মিত্রর সঙ্গে সম্পর্কে জড়ান সায়ন্ত। কিন্তু সেই সম্পর্কও টিকলো না। গুঞ্জন শোনা গিয়েছিল আগেই, দিন কয়েক আগেই দিদি নম্বর ১-এর মঞ্চে দাঁড়িয়ে জোর গলায় প্রিয়াঙ্কা বলছেন, ‘সুস্থ প্রেম করতে চাই’। কেন সায়ন্তর সঙ্গে নিজের সম্পর্ককে ইঙ্গিতে ‘অসুস্থ সম্পর্ক’ বললেন তিনি? সেই কটাক্ষের এবার পালটা জবাব দিলেন প্রিয়াঙ্কার প্রাক্তন। শুধু তাই নয়, দেবচন্দ্রিমার সঙ্গে দীর্ঘ চার বছরের ভাঙা প্রেম নিয়েও নিজের নতুন ইউটিউব ভিডিয়োয় মুখ খুলেছেন অভিনেতা-ইউটিউবার সায়ন্ত মোদক।

দেবচন্দ্রিমা প্রসঙ্গে সায়ন্ত বলেন,'চার বছরের একটা সম্পর্ক। আমার ভালো-খারাপ সবটা তাঁকে ঘিরে ছিল। হঠাৎ করে সেটা ভেঙে যাওয়ায় জীবনে একটা খালি জায়গা তৈরি হয়েছিল। আমাকে ওকে রিপ্লেস করতে হত, আমার জীবনের ভালোর জন্য। আমি চাইনি সেটা কোনও মানুষকে দিয়ে রিপ্লেস করতে, চেয়েছিলাম কাজ দিয়ে রিপ্লেস করতে'। 

নিজের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে বরাবরই খোলামেলা সায়ন্ত। বললেন, ‘লোকে ধরে নেয় সম্পর্ক ভাঙলে ছেলেটারই সব দোষ। তবে আমি কিন্তু কাউকে দোষ দিচ্ছি না’। প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে প্রেম ভাঙার পর ‘প্লে-বয়’ তকমাও পেয়েছেন সায়ন্ত। কটাক্ষে ভরে গিয়েছে সোশ্যাল মিডিয়ার দেওয়াল। সায়ন্ত জানান, ‘প্রিয়াঙ্কা আমার অনেকদিনের বন্ধু ছিল। আমার সঙ্গে ধীরে ধীরে কথা শুরু হল, আস্তে আস্তে ক্লোজনেস বেড়ে গেল। কোনওদিন ভাবিনি ওর সঙ্গে সম্পর্কে জড়াব। ওর সঙ্গে ভাই-ভাই টাইপ বন্ধুত্বে ছিলাম।’

অভিনেতা বলেন, ‘আমাদের মনে হয়েছিল আমরা এক টাইপের মানুষ, এটা সম্পর্কে কেন গড়াচ্ছে না। এইভাবেই শুরু সম্পর্কটার। আমি কাউকে রিপ্লেস করার জন্য প্রিয়াঙ্কাকে আমার জীবনে আনিনি’। সম্পর্কটা কেন ভুল খাতে গড়াল? সায়ন্ত বলেন, ‘আমি মিথ্যে বলব না, প্রিয়াঙ্কা আমার খুব যত্ন করেছে। ও খুব ভালো মেয়ে। কিন্তু একটা ব্রেক-আপ হওয়ার পর আরেকটা ব্রেকআপ। লোকে হয়ত ভাববে আমার মধ্য়েই প্রবলেম আছে। খুব কম টাইমের মধ্যে আমাদের পরস্পরের কাছ থেকে এক্সপেক্টেশন খুব বেড়ে গিয়েছিল। আমি একটা ট্রমা থেকে বেরিয়েছিলাম, হয়ত পুরোপুরি বেরোতেও পারিনি। যদি সামনের মানুষটা আমার প্রতি আরেকটু ধৈর্য দেখাতো। ওর প্রত্য়াশাগুলো ভুল ছিল না, তবে সেই মুহূর্তে আমি পূরণ করতে পারছিলাম না।’

সায়ন্ত স্পষ্ট বলেন, তাঁর উপর কিছু চাপিয়ে দিলে সেটা তাঁর কাছে বোঝা বলে মনে হয়। ‘টাইমপাস’-এর জন্য প্রিয়াঙ্কার সঙ্গে সম্পর্কে জড়াইনি, বলেন ‘আমি সত্যি ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি প্রিয়াঙ্কার কাছে। কারণ ওকে আমি ১০০% দিতে পারিনি। আমি ওর ফোন তুলতে পারিনি। এমন নয় আমার ব্যস্ত শেডিউল ও জানতো না। তবে দু-ঘন্টা ফোন না তোলাটা ও দু-সপ্তাহ গায়েব থাকা কেন বলল আমি জানি না’।

শেষে সায়ন্তর আক্ষেপ, আমাকে ন্যাশন্যাল টেলিভিশনে তাঁর সম্পর্কে যা বলা হয়েছে, সেই নিয়ে দর্শকদের তাঁর ব্যাপারে ভুল ধারণা তৈরি হয়েছে। আর চ্যানেল টিআরপি ক্যাশ-ইন করেছে। 

বন্ধ করুন