বাড়ি > বায়োস্কোপ > আতিফ আসলামের গান রিলিজের জের: এমএনএস-এর রোষের মুখে পরে ক্ষমা চাইল টি-সিরিজ
গানটি ডিলিট করেছে টি-সিরিজ 
গানটি ডিলিট করেছে টি-সিরিজ 

আতিফ আসলামের গান রিলিজের জের: এমএনএস-এর রোষের মুখে পরে ক্ষমা চাইল টি-সিরিজ

  • ইউটিউব ও অনান্য সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম থেকে ইতিমধ্যেই ‘কিন্না সোনা’ গানের আতিফ আসলামের ভার্সনটি সরিয়ে ফেলেছে টি-সিরিজ।

পাকিস্তানি গায়ক আতিফ আসলামের গান ইউটিউবে আপলোড করায় রোষের মুখে মিউজিক লেবেল টি-সিরিজ। দিন চারেক আগেই টি-সিরিজের অফিশিয়্যাল চ্যানেলে প্রকাশ্যে আনা হয় কিন্না সোনা গানের আতিফ আসলামের ভার্সন। তবে চাপের মুখে পড়ে অবশেষে ক্ষমা চেয়ে এই গান ডিলিট করল ভূষণ কুমারের সংস্থা। দ্য ফেডারেশন অফ ওয়েস্টার্ন ইন্ডিয়া সিনে এমপ্লয়িজ অ্যাসোসিয়েশনের তরফে সাম্প্রতিক সময়েও মিউজিক কোম্পানি বা ভারতীয় শিল্পীদের সর্তক করা হয়েছে পাক শিল্পীদের সঙ্গে কোনওরকম পেশাদার যোগাযাগ না রাখবার জন্য।

কিন্না সোনা গানটি প্রকাশ্যে আসবার পরই মঙ্গলবার মহারাষ্ট্র নবনির্মান সেনার চলচ্চিত্র শাখার প্রেসিডেন্ট আমেয়া খোপকারের তরফে টুইট বার্তায় সতর্ক করা হয় টি-সিরিজকে। তিনি লেখেন,'টি-সিজিরকে সর্তক করা হচ্ছে তাঁদের ইউটিউব চ্যানেল থেকে পাক সঙ্গীতশিল্পী আতিফ আসলামের গান সরিয়ে ফেলবার জন্য,না হলে বড়সড় ব্যবস্থা নেওয়া হবে'।

২০১৯ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত সিদ্ধার্থ মালহোত্রা ও তারা সুতারিয়া জুটির মরজাওয়াঁ ছবির গান এটি। এই গানটি আতিফ আসলাম শুরুতে রেকর্ড করলেও গত বছর ফেব্রুয়ারিতে পুলওয়ামা হামলার পর পাক শিল্পীদের সঙ্গে সবরকম যোগাযোগ ছিন্ন করার নির্দেশ দেওয়া। এরপর বলিউডি ছবি থেকে বাদ দেওয়া আতিফের মুক্তির অপেক্ষায় থাকা একাধিক গান, সেই তালিকায় ছিল এটিও। পরবর্তী সময়ে জুবিন নটিওয়ালকে দিয়ে গানটি রেকর্ড করানো হয়। কয়েক সপ্তাহ আগেই আতিফ আসলামের বেশকিছু ফ্যানপেজে মুক্তি পায় ‘কিন্না সোনা’ গানটি। এরপর চারদিন আগে টি-সিরিজের অফিসিয়্যাল চ্যানেলে প্রকাশ্যে আসে সেই গান। যদিও এমএনএসের সর্তকবাণীর পর তড়িঘড়ি সেই গান সরিয়ে ফেলা হয়।

সরিয়ে ফেলা হয়েছে কিন্না সোনা গানের আতিফ আসলামের ভার্সন
সরিয়ে ফেলা হয়েছে কিন্না সোনা গানের আতিফ আসলামের ভার্সন

এই নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতেও দুইরকম প্রতিক্রিয়া চোখে পড়ে,একদিকে যেমন টি-সিরিজের এই পদক্ষেপকে অ্যান্টি-ন্যাশাল্যাল আখ্যা দেয় বিজেপির মুখপাত্র সুরেখ নাখুয়াসহ অনেকেই, তেমনই ভারতের আতিফ ভক্তরা দাবি জানায় #WeWantAtifAslamSongsBack। 

বুধবার টি-সিজিরের তরফে এমএনএস প্রধান রাজ ঠাকরের কাজে ক্ষমা চেয়ে জারি বিবৃতিতে বলা হয়, আমরা এটা লক্ষ্য করেছি যে আমাদের প্রমোশ্যানাল টিমের একজন কর্মী টি-সিরিজের অফিসিয়্যাল ইউটিউব চ্যানেলে আতিফ আসলামের গানটি আপলোড করেছে। উনি এই কাজ করবার সময় বিষয়টি সম্পর্কে অবগত ছিলেন না। আমরা নিজেদের ভুল স্বীকার করে ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি। এবং আপনাদের আশ্বাস দিচ্ছি ভবিষ্যতে এই গান না আমাদের তরফে রিলিজ বা প্রচার করা হবে। আমরা এই গান সরিয়ে ফেলেছি ইউটিউব চ্যানেল থেকে'। ভূষণ কুমারের সংস্থার তরফে যোগ করা হয়, 'ভবিষ্যতে আমরা কোনও পাক শিল্পীর গান রিলিজ করব না কিংবা প্রচার করব না'।

টি-সিরিজের ক্ষমা-বিবৃতি (ছবি-টুইটার)
টি-সিরিজের ক্ষমা-বিবৃতি (ছবি-টুইটার)

ভূষণ কুমার ও টি-সিরিজের বিরুদ্ধে সম্প্রতি মিউজিক ইন্ডাস্ট্রিতে মাফিয়া-রাজ চালানোর অভিযোগ এনেছিলেন সোনু নিগম। এই বিতর্কের মাঝেই নতুন বিতর্কে জড়াল সাবস্ক্রাইবার ও ও ফলোয়ার সংখ্যার নিরিখে দেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় মিউজক লেবেল টি-সিরজ।

প্রসঙ্গত, ২০১৬ সালে উরি হামলার পর থেকেই ভারতে কাজ করার ব্যাপারে পাকিস্তানি শিল্পীদের উপর নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয় দ্য ফেডারেশন অফ ওয়েস্টার্ন ইন্ডিয়া সিনে এমপ্লয়িজ অ্যাসোসিয়েশনের তরফে। ঘটনার পরবর্তী সময়ে কোনও পাকিস্তানি অভিনেতা ভারতীয় ছবিতে কাজ না করলেও পাকিস্তানি সঙ্গীতশিল্পীরা বলিউডে গান গেয়েছেন। কিন্তু ২০১৯ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে পুলওয়ামা হামলার পর পাক শিল্পীদের সঙ্গে সবরকম যোগাযোগ ছিন্ন করে বলিউড।

ভূষণ কুমার ও টি-সিরিজের বিরুদ্ধে সম্প্রতি মিউজিক ইন্ডাস্ট্রিতে মাফিয়া-রাজ চালানোর অভিযোগ এনেছিলেন সোনু নিগম। এই বিতর্কের মাঝেই নতুন বিতর্কে জড়াল সাবস্ক্রাইবার ও ও ফলোয়ার সংখ্যার নিরিখে দেশের

বন্ধ করুন