বোরখা পরার জন্য রহমান-কন্যা খতিজাকে ট্রোল করার জবাব পেলেন সাহিত্যিক তসলিমা নাসরিন।
বোরখা পরার জন্য রহমান-কন্যা খতিজাকে ট্রোল করার জবাব পেলেন সাহিত্যিক তসলিমা নাসরিন।

বোরখা নিয়ে এ আর রহমানের মেয়েকে ট্রোল, সপাট জবাব পেলেন তসলিমা

আমার নীরবতাকে মূর্খামি ভাবা, আমার শান্ত আচরণকে স্বীকৃতি মনে করা, অথবা আমার দয়ালু মনোভাবকে দূর্বলতা ভাববেন না। দয়া করে টাটকা বায়ু সেবন করে আসুন।

বোরখা পরা ছবি দেখে এ আর রহমানের মেয়ে খতিজাকে টুইটারে ট্রোল করলে তসলিমা নাসরিন। বাংলাদেশের নির্বাসিত সাহিত্যিককে জুতসই জবাব দিলেন তরুণী।

সম্প্রতি নিজের টুইটার হ্যান্ডেলে সুরস্রষ্টা এ আর রহমানের মেয়ে খতিজার বোরখা পরা ছবি পোসট করে তসলিমা মন্তব্য করেন, ‘এ আর রহমানের সংগীত খুব পছন্দ করি। কিন্তু যখনই ওঁর আদরের মেয়েকে দেখি, তখনই মনে হয় শ্বাসরোধ হয়ে যাচ্ছে। সংস্কৃতিবান পরিবারের শিক্ষিত মহিলারাও এত সহজে মগজধোলাইয়ের শিকার হচ্ছেন দেকে বিমর্ষ বোধ করি।’

তসলিমার কটাক্ষের জবাবে ইনস্টাগ্রামে আগুনের ছবির সঙ্গে লেখক কার্সন কলহফসের উধৃতি পোস্ট করে খতিজা বার্তা দিয়েছেন, ‘আমার নীরবতাকে মূর্খামি ভাবা, আমার শান্ত আচরণকে স্বীকৃতি মনে করা, অথবা আমার দয়ালু মনোভাবকে দূর্বলতা ভাববেন না- কার্সন কলহফ। আমার প্রিয় মানুষদের, যাঁরা শ্বাসরোধ অনুভব করছেন- দয়া করে টাটকা বায়ু সেবন করে আসুন।’

শুধু তাই নয়, তসলিমার আক্রমণাত্মক টুইটের স্ক্রিনশট শেয়ার করে এর পর খতিজা টুইট করেছেন, ‘সবে একবছর কেটেছে, এই বিষয়টি নিয়ে আবার চর্চা শুরু হয়েছে... দেশে এত কিছু ঘটে চলেছে আর মানুষ শুধুমাত্র এক মহিলার পোশাকের অংশ নিয়ে চিন্তিত হচ্ছে। সত্যিই অবাক হচ্ছি। যখনই বিষয়টি উঠে আসে, তখনই নিজের ভিতরের আগুন ফের জ্বলে ওটে আর অনেক কিছু বলার ইচ্ছে জাগে।’

গত এক বছরে নিজের এক ভিন্ন সত্তা আবিষ্কারের কথা বলতে গিয়ে খতিজা জানিয়েছেন, ‘জীবনে যে সমস্ত সিদ্ধান্ত নিয়েছি, তার জন্য নিজেকে কখনও অনুতপ্ত বা দুর্বল মনে করিনি। নিজের কাজ সম্পর্কে আমি গর্বিত এবং যাঁরা আমাকে এ ভাবে স্বীকার করেন, তাঁদের জন্য আনন্দিত বোধ করি। আমার কাজই কথা বলবে, ঈশ্বরের ইচ্ছায়.. আর কিছু বলতে চাই না। যাঁরা ভাবছেন, কেন আমি এই সব প্রসঙ্গে নিজের অভিমত ব্যাখ্যা করছি তাঁদের জানাই, দুঃখজনক ভাবে এমনই পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে আর তাই এমন করছি।’

এর পর সরাসরি তসলিমা নাসরিনকে উদ্দেশ্য করে খতিজা লিখেছেন, ‘প্রিয় তসলিমা নাসরিন, আমার পোশাক দেখে আপনার শ্বাসরোধ হয়ে আসছে জেনে দুঃখিত। দয়া করে কিছু টাটকা বাতাসে নিঃশ্বাস নিয়ে আসুন কারণ আমার শ্বাসরোধ হচ্ছে না, বরং নিজের অবস্থানে আমি গর্বিত ও শক্তিশালী বোধ করছি। আমার পরামর্শ, আসল নারীবাদের অর্থ জানতে গুগল-এর সাহায্য নিন, কারণ নারীবাদের অর্থ অন্য মহিলাদের বিরুদ্ধে আক্রমণ শানানো নয় অথবা তাদের বাবাদের এই প্রসঙ্গের মধ্যে টেনে আনা নয়। মনে করতে পারছি না, অনুমোদনের জন্য আপনাকে কখনও নিজের ছবি পাঠিয়েছি বলেও।’

সব শেষে নীল আকাশের ছবি শেয়ার করে খতিজা লিখেছেন, ‘যে ভালোবাসা ও সমর্থন ফের পেয়েছি, তার জন্য আমি অভিভূত। সবাইকে ধন্যবাদ। ঘটনার জেরে শ্রীমতী তসলিমার বিরুদ্ধে কোনও ঘৃণামূলক মন্তব্য অথবা অভিযোগ না করতে আপনাদের অনুরোধ করছি। সহবাসীদের পছন্দ মেনে নিয়ে আসুন আমরা খোলা মনের সমাজ গড়ে তোলার চেষ্টা করি এবং শ্রীমতী তসলিমাকে আমাদের প্রার্থনায় স্মরণ করি। জীবনে ব্যক্তিগত সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে তাঁকে যেন কখনও বিচার না করি। শান্তি।’

প্রসঙ্গত, ২০১৯ সালেও বাবা এ আর রহমানের সঙ্গে একটি অনুষ্ঠানে বোরখা পরে উপস্থিত হওয়ায় সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রোলের শিকার হন খতিজা। ইনস্টাগ্রামে নিজের বোরখা পরিহিত ছবি প্রায়ই পোস্ট করেন তিনি।

বন্ধ করুন