বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘গভীর জলের মাছ’, দেবলীনাকে ট্যাগ করে ইনস্টায় লিখল তথাগত, ফের ঝামেলা লাগল নাকি?
দেবলীনাকে গভীর জলের মাছ বলল তথাগত। 

‘গভীর জলের মাছ’, দেবলীনাকে ট্যাগ করে ইনস্টায় লিখল তথাগত, ফের ঝামেলা লাগল নাকি?

  • ‘ভটভটি’র ছবি দিয়ে হঠাৎই দেবলীনাকে ‘গভীর জলের মাছ’ কেন বললেন তথাগত? বিবাদের আভাস আবার স্পষ্ট! 

গত বছরের শেষটা যেন ছিলস সম্পর্ক ভাঙার প্রহর! একের পর এক তারকার বিচ্ছেদের খবর এসেছিল বলিউড-টলিউডে। তবে বাংলার যেই তারকা জুটির বিয়ে ভাঙা নিয়ে সবচেয়ে বেশি চর্চা হয়েছিল, তাঁরা হলেন তথাগত মুখোপাধ্যায় ও দেবলীনা দত্ত। যদিও আলাদা থাকা শুরু করলেও এখনও আইনত তাঁরা স্বামী-স্ত্রী।

এখন প্রশ্ন উঠচেই পারে, এই তো দিনকয়েরক আগে দেবলীনার জন্মদিনে ভালো ভালো কথা বলেছিলেন তথাগত! হঠাৎ কী হল? কেন হঠাৎ বলে বসলেন ‘গভীর জলের মাছ’! সেদিন দেবলীনার জন্য তথাগতর বার্তা ছিল, ‘জন্মদিনে শুধুই ভালো থাকা থাকুক, নতুন নতুন দেশ পাড়ি জারি থাকুক, বাঁচার মানে থাকুক অনর্গল। প্রতিটা জন্মদিন রঙীন হোক একই ভাবে, এইভাবে। বন্ধুত্তের একটাই মানে হোক।’

শোনা যায়, দেবলীনা আর তথাগতর ৯ বছরের বিবাহিত জীবনে নাকি তৃতীয় ব্যক্তি হিসেবে প্রবেশ করে উঠতি নায়িকা বিবৃতি চট্টোপাধ্যায়। যদিও তথাগত বা বিবৃতি দু'জনেই এই নিয়ে কখনও কোনও কথা বলেনি। তথাগত তাঁর ছবি ভটভটি নিয়ে ব্যস্ত। এই ছবির নায়িকা বিবৃতি ও নায়ক হল ঋষভ বসু। আরও পড়ুন: ‘আম-দুধ’ দেবলীনা-তথাগতর মাঝে কি নিজেকে ‘আঁটি’ ভাবছেন বিবৃতি? নতুন ইঙ্গিত ফেসবুকে

‘ভটভটির’ই একটি ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে নিয়েছেন তথাগত। আর ক্যাপশনে দেবলীনাকে ট্যাগ করে লিখেছেন, ‘থাকে ডাঙায় কিন্তু গভীর জলের মাছ।’ আর এই কথায় দেবলীনা দত্ত আর পৌলমী গুপ্তকে ট্যাগ করেছেন তিনি। দেখে নিন সেই পোস্টটা--

২০১২ সালে সাত পাকে বাঁধা পড়েন দেবলীনা-তথাগত। এটা ছিল তথাগতর দ্বিতীয় বিয়ে। একগাদা পোষ্য নিয়ে তাঁদের ছিল ভরা সংসার। পৃথিবীর নানা প্রান্তে ঘুরে বেড়াতেন দু'জনে। যা কাপল গোল হিসেবেই পরিচিত ছিল সবার কাছে। এভাবে তাই দু'জনের পথ আলাদা হয়ে যাওয়ায় অনেকেই কষ্ট পেয়েছিলেন। 

বন্ধ করুন