বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > The Big Picture: সোনাক্ষীর কথায় আবেগঘন বাবা শত্রুঘ্ন, পা ছুঁয়ে জড়িয়ে ধরলেন রণবীর
চলতি সপ্তাহে ‘দ্য বিগ পিকচার’-এ দেখা যাবে শত্রুঘ্ন সিনহা এবং সোনাক্ষী সিনহা-কে।
চলতি সপ্তাহে ‘দ্য বিগ পিকচার’-এ দেখা যাবে শত্রুঘ্ন সিনহা এবং সোনাক্ষী সিনহা-কে।

The Big Picture: সোনাক্ষীর কথায় আবেগঘন বাবা শত্রুঘ্ন, পা ছুঁয়ে জড়িয়ে ধরলেন রণবীর

  • চলতি সপ্তাহে ‘দ্য বিগ পিকচার’-এ দেখা যাবে শত্রুঘ্ন সিনহা এবং সোনাক্ষী সিনহা-কে।

গত বছরেই নতুন ইনিংস শুরু করেছেন রণবীর সিং। বলিউডের বাজিরাও এখন টেলিভিশন সঞ্চালকও বটে। কালার্সের শো ‘দ্য বিগ পিকচার’ সঞ্চালনা করছেন রণবীর। ছবির প্রচারে প্রায়ই বলি তারকারা হাজির হন এই অনুষ্ঠানে। চলতি সপ্তাহে ‘দ্য বিগ পিকচার’-এ দেখা যাবে শত্রুঘ্ন সিনহা এবং সোনাক্ষী সিনহা-কে। সম্প্রতি, চ্যানেল কর্তৃপক্ষের তরফে ওই পর্বের একটি প্রমো পোস্ট করা হয়েছে ইনস্টাগ্রামে।সেখানে দেখা গেছে কথা বলতে বলতে কখনও মজায় মেতে উঠছেন কখনও বা আবেগপ্রবণ হয়ে পড়ছেন 'শটগান শত্রুঘ্ন'। হাসি-কান্না মেশানো সেই প্রমো ইতিমধ্যেই বেশ মনে ধরেছে নেটিজেনদের।

সেই ভিডিয়োতে দেখা যাচ্ছে মঞ্চে এক গাল হাসি নিয়ে রীতিমতো নাচতে নাচতে প্রবেশ করছেন শত্রুঘ্ন সিনহা। যা দেখে দৃশ্যতই বিস্ময়ে হাঁ হয়ে গিয়েছেন সোনাক্ষী। নিজের সেই মনোভাব এতটুকুও না লুকিয়ে রণবীরের উদ্দেশে তাঁর 'লুটেরা' ছবির নায়িকার প্রশ্ন, 'রণবীর সিং-কে দেখে কী হয়ে যায় মানুষের? জীবনে প্রথমবার বাবাকে এরকম নাচ করতে দেখলাম।' মেয়ের মুখে এহেন কথা শুনে হাসতে হাসতে পরিচিত মেজাজে শত্রুঘ্নের জবাব, 'আরে, এখনও বুড়ো হয়নি আমি।' 

এরপর কথায় কথায় এই বর্ষীয়ান অভিনেতা-রাজনীতিবিদ আরও জানান যে এখনও তিনি যেখানেই যান না কেন, সে রাজনৈতিক হোক কিংবা বিন্দোনের মঞ্চ লোকজন স্রেফ তাঁর মুখ থেকে 'খামোশ' সংলাপ শোনার জন্য ব্যগ্র হয়ে থাকে। মুহুর্মুহু অনুরোধও করতে থাকে। এবার পালা সোনাক্ষীর। বলি-সুন্দরীর কথা থেকে জানা যায় শত্রুঘ্ন একবার জানিয়েছিলেন যদি কোনওদিনও তাঁর বায়োপিক তৈরি হয়, তাহলে যেন তাঁর ভূমিকায় অভিনয় করেন রণবীর সিং।

শোনামাত্রই শত্রুঘ্ন সিনহার মতো ভাবভঙ্গি করে সংলাপ আউড়ে অডিশনও দিয়ে ফেলেন '৮৩'র অভিনেতা। বর্ষীয়ান অভিনেতার পা ছুঁয়ে প্রণামো সারলেন তিনি। এরপর কথায় কথায় শত্রুঘ্ন জানান বহু বছর পর তিনি সিনেমা হলে ঢুকেছিলেন স্রেফ সোনাক্ষী অভিনীত 'দাবাং' দেখবেন বলেই। আর দেখেই তিনি বুঝেছিলেন লম্বা রেসের ঘোড়া তাঁর মেয়ে। বলতে বলতে আবেগপ্রবণ হয়ে পড়েন এই বর্ষীয়ান অভিনেতা। কোনওরকমে বলেন পর্দায় নিজের মেয়েকে অভিনয় করতে দেখা তাঁর কাছে ভীষণ গর্বের ব্যাপার ছিল। এরপর নিচু স্বরে তিনি বলে ওঠেন, 'এখন শুধু একটাই চিন্তা হয়, এই নাম-যশ-খ্যাতির চোটে সোনাক্ষী না আবার আমাদের ছেড়ে চলে যায়।' তাঁর কথা শেষ হতে না হতেই সেকথার প্রতিবাদ করে তাঁকে জড়িয়ে ধরেন সোনাক্ষী।

বন্ধ করুন