বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘দ্য বং গাই’ বনাম ‘সিনেবাপ’, লড়াই জমে উঠেছে নেটপাড়ায়!
আপনি কার দলে?
আপনি কার দলে?

‘দ্য বং গাই’ বনাম ‘সিনেবাপ’, লড়াই জমে উঠেছে নেটপাড়ায়!

  • এ যেন ইস্টবেঙ্গল-মোহনবাগান, নর্থ কলকাতা-সাউথ কলকাতা! সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাগ হয়ে গিয়েছে দু'পক্ষ। মনে করিয়ে দিচ্ছে ‘খেলা হবে’! 

ঘটি-বাটি একসঙ্গে থাকলে যেমন খোটাখুটি লাগবেই, তেমনই ইউটিউবে একে-অপরকে রোস্ট করলে ঝামেলা লাগাও বেশ স্বাভাবিক! নেটমাধ্যম আপাতত ভাইরাল ‘সিনাবাপ’ মৃণ্ময় দাস ও ‘দ্য বং গাই’ কিরণ দত্তের ঝামেলায়। আর যার দরুণ বেশ সরগরম হয়ে উঠেছে নেটপাড়া। ঠিক যেন ঘটি-বাঙাল লড়াই। এঁর ভক্তরা ওঁর চ্যানেলে গিয়ে কমেন্ট করছেন তো, ওঁর ভক্তরা তাঁর চ্যানেলে। চুপ নেই মৃণ্ময় বা কিরণও। অর্থাৎ, বেশ জমে উঠেছে খেলা। বর্তমানে বাংলার দুই জনপ্রিয় ইউটিউবারের তালিকায় পড়েন তাঁরা। তাই তাঁদের ফ্যান ফলোইংও প্রচুর। যাদের কেউ সমর্থন করছেন ‘দ্য বং গাই’ ওরফে কিরণ দত্তকে। কেউ আবার পাশে দাঁড়িয়েছেন ‘সিনেবাপ’ ওরফে মৃন্ময় দাসের। 

চলুন দেখে নেওয়া যাক ঠিক কী ঘটেছে?

সম্প্রতি ‘বং গাই’ তাঁর ইউটিউব ভিডিয়োতে ‘সিনেবাপ’-এর নাম নিয়ে কিছু মজা করেন। তারপর পালটা নিজের ইউটিউবে ‘বং গাই’কে কটাক্ষ করেন সিনেবাপ। সঙ্গে একটি আলাদা ভিডিয়ো বানিয়ে ‘দ্য ঢং গাই’ নামে তা পোস্ট করেন। সেখানে জানান, নতুন ইউটিউবারদের সহ্য করতে পারেন না ‘বং গাই’। তাঁদেরকে কখনো প্রোমোট করার চেষ্টা করেন না, শুধু নিজের ঘনিষ্ট কিছু ইউটিউবারকে ছাড়া। এমনকী, নতুনদের আপলোড করা ভিডিয়োতে গিয়ে ‘স্ট্রাইক’ও করেন। সঙ্গে কিরণের সঙ্গে হোয়াটস অ্যাপে হওয়া কিছু চ্যাটের স্ক্রিনশটও আপলোড করেন মৃন্ময়। কিরণের ব্যক্তিগত জীবন নিয়েও মন্তব্য করেন ওই ভিডিয়োতে।

তারপরই ফেসবুক লাইভে এসে এই ব্যাপারে নিজের মতামত জানান কিরণ দত্ত। বিষয়টি নিয়ে অযথা আর যাতে টানাটানি না করা হয়, ফ্যানদের কাছে সেই অনুরোধও করেন তিনি। তাঁর কথায়, ‘আমি চাই না এই বিষয়টা আর এগোক। এ নিয়ে আমিও আর কোনও প্রতিক্রিয়া দেব না। আমি কখনও কোনও ইউটিউবারকে ছোট করতে চাইনি । মৃন্ময়কে মেসেজ করে ঝগড়া মেটানোর কথাই বলেছি। স্ক্রিনশটেও তাই আছে।' সঙ্গে ‘হোস্টেল ভিডিয়ো’-সহ মৃণ্ময়ের বেশ কিছু কনটেন্টের প্রশংসা করেন। বলেন, ‘মীরাক্কেল’এ মৃণ্ময়ের পারফরমেন্সও বেশ পছন্দ ছিল তাঁর।  আর এটাও জানান, তাঁকে রোস্ট করার জন্য বা তাঁকে নিয়ে মজা করার জন্য কারও ভিডিয়োতে তিনি স্ট্রাইক দেননি। বরং, ভিডিয়োর কনটেন্ট হুবহু টুকে দেওয়ার জন্যই এমনটা করেছেন।

যদিও বর্তমানে দু'পক্ষই ঝামেলা মিটিয়ে নেওয়ার কথা বলছেন। সঙ্গে, জানিয়েছেন একে-অপরের ব্যাপারে মন্তব্য করে আর কোনও ভিডিয়ো বানাবেন না। যদিও লড়াই থামেনি দু'পক্ষের ভক্তদের। এ যেন চলছে, চলবে!

বন্ধ করুন