বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ করমুক্ত, ফেসবুকে প্রশ্ন তুললেন অমিতাভের ‘ঝুন্ড’ ছবির প্রযোজক

‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ করমুক্ত, ফেসবুকে প্রশ্ন তুললেন অমিতাভের ‘ঝুন্ড’ ছবির প্রযোজক

‘ঝুন্ড’ ছবিতে অমিতাভ বচ্চন (বাঁ দিকে) এবং 'দ্য কাশ্মীর ফাইলস' ছবিতে অনুপম খের (ডান দিকে)

‘ঝুন্ড’ ছবির অন্যতম প্রযোজক সবিতা রাজ হীরেমঠ প্রশ্ন তুলেছেন, কেন এই ছবিকে করমুক্ত করা হল না? 

বক্স অফিসে দুর্দান্ত সাফল্য না পেলেও সমালোচকদের থেকে দারুণ প্রশংসা কুড়িয়েছে অমিতাভ বচ্চন অভিনীত ছবি ‘ঝুন্ড’। সমাজকর্মী বিজয় বারসের জীবনের উপর ভিত্তি করেই এই ছবির গল্প। যিনি বস্তির বাচ্চাদের প্রেরণা দিয়েছিলেন ফুটবল টিম তৈরি করতে। মুখ্য চরিত্রে দেখা গিয়েছে অমিতাভ বচ্চনকে। এবার এই ছবির অন্যতম প্রযোজক সবিতা রাজ হীরেমঠ প্রশ্ন তুলেছেন, কেন এই ছবিকে করমুক্ত করা হল না? আর তা না করার জন্যেই রীতিমতো 'বিভ্রান্ত' তিনি।

সবিতা রাজ হীরেমঠ-এর দাবি, ‘ঝুন্ড’ শুধুমাত্র দর্শক-সমালোচকদের তারিফই কুড়োয়নি সঙ্গে এমন একটি বিষয় পেশ করেছে যা আমাদের দেশের উত্তরণের ক্ষেত্রে অত্যন্ত জরুরি। প্রসঙ্গত, বিজেপি শাসিত উত্তরপ্রদেশ, গোয়া, হরিয়ানা, গুজরাত-এর মতো একাধিক রাজ্যে 'দ্য কাশ্মীর ফাইলস' ছবিটিকে করমুক্ত ঘোষণা করা হয়েছে। এরপরেই এই বক্তব্য পেশ করেন ‘ঝুন্ড’ ছবির এই প্রযোজক।

শুক্রবার ফেসবুকে সবিতা লিখেছেন যে 'দ্য কাশ্মীর ফাইলস' যেমন একটি গুরুত্বপূর্ণ ছবি, ‘ঝুন্ড’-ও কিন্তু ঠিক তাই। 'সম্প্রতি,ঝুন্ড দেখলাম। কাশ্মীরি পণ্ডিতদের নিয়ে যে ঘটনা দেখানো হয়েছে তা অত্যন্ত হৃদয় বিদারক হলেও এই ঘটনা সবার জানা উচিত। কাশ্মীরি পণ্ডিতদের গলার স্বর হয়ে যেন উঠেছে এই ছবি। কিন্তু এর পাশাপাশি ঝুন্ড-এর অন্যতম প্রযোজক হিসেবেও আমি যারপরনাই বিভ্রান্ত।'ঝুন্ড'-ও কিন্তু একটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ের উপর ছবি। এবং এই ছবিটিও দর্শকদের মুখে মুখেই প্রচার পেয়েছে।'

এখানেই না থেমে উষ্মা প্রকাশ করে তিনি জানতে চেয়েছেন যে কোনও ছবিকে করমুক্ত করার জন্য ঠিক কী কী ব্যাপার মেনে চলতে হবে? ঠিক কোন কোন বিষয়ের নিরিখে সরকার কোনও ছবিকে পছন্দ করেন এবং সোশ্যাল মিডিয়ায় থেকে শুরু করে সব জায়গায় এত জোরদারভাবে প্রচার চালান। এমনকী, সরকারি কর্মীরা সেই ছবি দেখার জন্য অর্ধ দিবস ছুটি পাবেন বলেও ঘোষণা করা হয়। বলতে চাইছি ‘ঝুন্ড’ ছবিটিও কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ। সমাজের চোখরাঙানি, অর্থনৈতিক বৈষম্যের বেড়া টোপকেও যে সাফল্যর সিঁড়িতে ওঠা সম্ভব, সেই বার্তাই দেয় এই ছবি।'

বন্ধ করুন