বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Rachana-Prosenjit: ‘৪০টা ছবির পরেও প্রসেনজিত আমার প্রেমে পড়ল না’! প্রকাশ্যে আক্ষেপ রচনার, দেখুন ভিডিয়ো
রচনা-প্রসেনজিৎ

Rachana-Prosenjit: ‘৪০টা ছবির পরেও প্রসেনজিত আমার প্রেমে পড়ল না’! প্রকাশ্যে আক্ষেপ রচনার, দেখুন ভিডিয়ো

  • একসঙ্গে ৩৫-৪০টা ছবিতে নায়ক-নায়িকার ভূমিকায় অভিনয়। পর্দার টানটান প্রেম কোনওদিন বাস্তবায়িত হয়নি! প্রকাশ্যে খেদ প্রকাশ রচনার। 

প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় শুধু তাঁর কো-স্টার নন, তাঁর বন্ধু তথা গাইড। টলিউডের অন্যতম হিট জুটি প্রসেনজিৎ-রচনা। একসঙ্গে একাধিক ব্লকবাস্টার ছবি উপহার দিয়েছেন দুজনে মিলে। তবে দুজনের সম্পর্কটা শুধু বন্ধুত্বের গণ্ডিতেই আটকে থেকেছে, প্রসেনজিৎ কোনওদিন রচনার প্রেমে পড়েননি! এই আক্ষেপ খোদ রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়ের।

হ্যাঁ, প্রকাশ্যে জাতীয় টেলিভিশনেই এই আক্ষেপ ‘দিদি নম্বর ১’-এর। শাশ্বত চট্টোপাধ্যায়ের সামনে বসে এমন বিস্ফোরক মন্তব্য করতে দেখা গিয়েছে রচনাকে। টক শো ‘অপুর সংসার’-এ বছর কয়েক আগে উপস্থিত হয়েছিলেন রচনা। সেখানেই তিনি বলেন, 'কম করে ৩৫-৪০টা ছবিতে একসঙ্গে কাজ করেছি। তার পরেও এক বারও মনে হল না, রচনা ব্যানার্জির সঙ্গে একটু প্রেম করা যেতে পারে? প্রেমিক মানুষ তো, এটা মনে হয়নি। এটা আমার প্রশ্ন, রচনাকেও দেখতে সুন্দরী। কখনও মনে হয়নি রচনার হাত ধরে একটু ঘোরা যায়, একটু প্রেমালাপ করা যায়। অথচ ৩৫টা ছবিতে নায়ক-নায়িকা।’ উল্টো দিকে সঞ্চালকের আসনে বসে থাকা শাশ্বত তো হাঁ! বলা বাহুল্য, মজা করে এই কাণ্ড ঘটিয়েছেন রচনা তা বুঝতে অসুবিধা হয় না। 

‘দিদি নম্বর ১’-এর সুবাদে বাংলা টেলিভিশনের অন্যতম সুপারস্টার রচনা বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর মনখোলা হাসিতে মন ভরে যায় সবার। বরাবর স্পষ্ট কথা বলতেই ভালোবাসেন তিনি। বাংলার পাশাপাশি ওড়িয়া এবং দক্ষিণী ছবিরও পরিচিত নাম রচনা। কাজ করেছেন হিন্দি ছবিতেও। তবে টেলিভিশনই রচনাকে 'ব্র্যান্ড রচনা' করেছে স্পষ্ট জানান অভিনেত্রী। এক মজার খেলায় শাশ্বত রচনাকে জিজ্ঞাসা করেছিলেন, বাংলা ইন্ডাস্ট্রির কাদের সঙ্গে শেয়াল, গাধা, মুরগি- এদের তুলনা করবেন?

 

সেখানেও প্রসেনজিৎ-কে টেনে অবাক করা জবাব দেন রচনা। তাঁর কথায়, ইন্ডাস্ট্রির শেয়াল বুম্বাদা। শেয়ালের বুদ্ধিমত্তার সঙ্গে প্রসেনজিতের তুলনা করেন রচনা। সঙ্গে বলেন, ‘ওঁর মতো বুদ্ধিমান টলিউডে ক’জন আছেন? কোথায়, কী ভাবে চলতে হয় খুব ভাল জানেন।’ অন্যদিকে গাধার সঙ্গে যিশু সেনগুপ্তের তুলনা টানেন রচনা। তিনি বলেন, ‘যিশু আজ যেটা করছে সেটা বহু বছর আগেই করতে পারত। সেই ক্ষমতা ওর ছিল। কিন্তু ওকে ব্যবহার করা হয়নি। কেন করলি না যিশু?’ পাশাপাশি মুরগির সঙ্গে সামনে বসে থাকা শাশ্বত তুলনা টনেন রচনা।

গত জুন মাসেই ‘দিদি নম্বর ১’-এর মঞ্চে শেষবার একফ্রেমে দেখা গিয়েছে প্রসেনজিৎ-রচনাকে। ‘আয় খুকু আয়’-এর প্রচারে হাজির হয়েছিলেন বুম্বাদা। সেখানে পছন্দে কো-স্টারের সঙ্গে একটি ভিডিয়ো পোস্ট করেন রচনা। যা দেখে সবার মন্তব্য, 'তোমাদের রসায়ন আজও সেরা'। আপতত বড়পর্দা থেকে দূরেই রয়েছেন রচনা, তবে ফ্যানেদের ইচ্ছা আবারও একফ্রেমে ধরা দিক বুম্বাদা আর তাঁদের প্রিয় দিদি নম্বর ১!

 

বন্ধ করুন