বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Madan Mitra: 'দিলু-শু-সু'কে গোল দিয়ে পঞ্চায়েত কাপ জয়ের বার্তা মদনের! প্রকাশ্যে এল ‘দে গোল’

Madan Mitra: 'দিলু-শু-সু'কে গোল দিয়ে পঞ্চায়েত কাপ জয়ের বার্তা মদনের! প্রকাশ্যে এল ‘দে গোল’

মদন মিত্রের নতুন গান

Madan Mitra's De Goal: ব্রাজিল-আর্জেন্টিনার অন্ধ ভক্ত মদন মিত্র। কাতার বিশ্বকাপ আর বাংলার পঞ্চায়েত ভোটকে গানে গানে মিলিয়ে দিলেন তৃণমূল বিধায়ক। প্রকাশ্যে তাঁর নতুন গান ‘দে গোল'। 

সামনেই কাতার বিশ্বকাপ আর তারপরই পঞ্চায়েত নির্বাচন। আর এই দুইকে সামনে রেখে ফের নতুন গান বাঁধলেন তৃণমূলের বিধায়ক মদন মিত্র। গানে গানে তাঁর সাফ বার্তা- ‘নন্দীগ্রামে গোল, সিঙ্গুরেতেও গোল, দিলুর গ্রামেও গোল আর শুসুর গ্রামেও গোল’। প্রকাশ্যে এল মদন মিত্রের নতুন গান ‘দে গোল’ (De Goal)-এর মিউজিক ভিডিয়ো। যা রীতিমতো হইচই ফেলেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়।

এই মুহূর্তে সবদলই রাজনৈতিক রণকৌশল সাজাতে ব্যস্ত। আর একদম নিজ স্টাইলে ‘কাতারে কাতারে মানুষ’কে বার্তা দিলেন মদন মিত্র। ফের একবার বাংলার মাটিতে জয়জয়কার হবে ‘মা-মাটি-মানুষ’-এর স্পষ্ট বার্তা কামারহাটির বিধায়কের। জয়ের হাসি হাসবে তৃণমূল, কাপ আসবে তাঁদের ঘরেই এই বার্তাই ‘দিলু’ আর ‘শু-সু’কে দিলেন মদন মিত্র। বিরোধীদের পাত্তা দিতে রাজি নয় তৃণমূল, জানালেন মদন। গান জুড়ে বিজেপি নেতৃত্বকে কটাক্ষ করতে ছাড়েননি মদন মিত্র। দিলীপ ঘোষ. শুভেন্দু অধিকারী এবং সুকান্ত মজুমদারকে নিজ স্টাইলে বিঁধলেন মদন মিত্র। আর বললেন বাংলার মানুষের 'পাশে আছেন মমতা' তাই ‘নো চাপ’।

গানের মিউজিক ভিডিয়োয় ‘কালারফুল’ মদন মিত্রকে কখনও ফুটবল পায়ে ময়দান দাপাতে দেখা গিয়েছে, আবার কখনও আরবের শেখদের বেশেও ধরা দিয়েছেন বিধায়ক। মদন ভক্তরা এই গান নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানাতে ভোলেননি। পাশাপাশি ট্রোলাররাও পিছিয়ে নেই। কেউ লিখেছেন, ‘ফিফার কাছে অনুরোধ এটা কাতার বিশ্বকাপের অ্যান্থাম করা হোক’। অপর একজন লিখেছেন-'টনি কক্করের বাংলা ভার্সন মদনদা'। তবে মদনদার ‘সোয়্যাগ’ দেখে মুগ্ধ ফ্যানেরা। তাঁরা বলছেন, ‘ওহ লাভলি! ফাটাফাটি হয়েছে দাদা’।

এই গান নিয়ে মদন মিত্র নিজে কী বলেছেন? ‘এবার শুধু কাতার বিশ্বকাপ নয়, পঞ্চায়েতের কাপ চাই। এটা (এই গান) আমাদের বাংলার মানুষের ভালো লাগবে।’ ফুটবল ভক্ত মদন ব্যক্তিগতভাবে ব্রাজিল আর আর্জেন্টিনার সাপোর্টার। ফুটবল বিশ্বকাপ দেখতে সূদূর কাতারে উড়ে যাবেন তিনি। বিধায়কের কথায়, ‘মুখ্যমন্ত্রীর কাছে আমি করুণ আবেদন করেছিলাম। ওঁনার অনুমতি নিয়ে, আমি বিধানসভার স্পিকারের কাছে আবেদন রেখে… আমি ২৩ তারিখ গভীর রাত্রে কাতারের উদ্দেশ্যে রওনা হচ্ছি’।

 

 

বন্ধ করুন