বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > সাপের ছোবলের মুখে পড়েছিলেন ‘মাম্পি’ রুকমা রায়ও; তারপর? ছুটতে ছুটতে… অজ্ঞান!
টেলি পাড়ার জনপ্রিয় অভিনেত্রী রুকমা রায়ও পড়েছিলেন সাপের মুখে। (ছবি @rayrooqma)
টেলি পাড়ার জনপ্রিয় অভিনেত্রী রুকমা রায়ও পড়েছিলেন সাপের মুখে। (ছবি @rayrooqma)

সাপের ছোবলের মুখে পড়েছিলেন ‘মাম্পি’ রুকমা রায়ও; তারপর? ছুটতে ছুটতে… অজ্ঞান!

  • সলমন খান একা নন, সাপ নিয়ে সাংঘাতিক অভিজ্ঞতা আছে আমাদের রুকমারও!

বড়দিনের রাতে সলমন খানকে সাপের ছোবলের খবর আগুনের মতো ছড়িয়ে পড়ে! ভাইজানের চিন্তায় ঘুম উড়েছিল সকলের। যদিও আপাতত সেসব কাটিয়ে পানভেলের ফার্ম হাউজেই গতকাল পালন করেছেন জন্মদিন। এসবের মাঝে সামনে এল ‘দেশের মাটি’র অভিনেত্রী মাম্পি ওরফে রুকমার সাপের গল্প। 

রুকমা নাকি সাংঘাতিক ভয় পান সাপকে। আর তাই হয়তো দু'-দু'বার তাকেই পড়তে হয়েছিল সাপের সামনে। আনন্দবাজার ডিজিটালকে রুকমা জানালেন, ‘একদিন কিরণমালার শ্যুটিং চলছে। আউটডোরে ফাঁকা জায়গায় দাঁড়িয়ে আমি আর ধারাবাহিকের ‘নাগকন্যা’। লং শট থাকায় ক্যামেরা-সহ ইউনিটের বাকি সদস্যরা বেশ অনেকটা দূরে। অ্যাকশন কানে আসার আগে ঠিক পাশেই যেন শুনতে পেলাম হিসহিসিয়ে একটা  শব্দ! তারপর এ দিক-ওদিক তাকিয়ে আমার অবস্থা খারাপ। ঠিক দু’হাত দূরে একটা সাপ! একেবারে ফনা তুলে আছে! সব ভুলে  ছুটতে শুরু করেছিলাম। ইউনিটের বাকিদের সামনেটায় পৌঁছে নাকি অজ্ঞান হয়ে যাই!’

এখানেই শেষ নয়, আরেকদিন ‘কিরণমালা’র শ্যুটের সময়তেই সাপের খপ্পরে পড়েছিলেন। বাইপাসের কাছে এক ভেড়িতে চলছিল শ্যুটিং। অনস্ক্রিন মা অদিতির সাথে ভেলায় তিনি। ক্যামেরা চলছে, সংলাপও বলছেন। হঠাৎই এরপর দেখেন তাঁদের ভেলার পাশেই একটা সবুজ রঙের সাপ। সেটা আবার ভেলা বেয়ে ওঠার চেষ্টা করছে। সব ভুলে ‘সাপ সাপ’ করে চেঁচাতে থাকেন। তার সাথে থাকা অতিদি যতই বলুক এই সাপে বিষ নেই, তবু ভয় কাটে না রুকমার। এমন চেঁচিয়েছিলেন যে পরিচালকও ভয় পেয়ে গিয়েছিল।

বন্ধ করুন