বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Sritama Dey: বকেয়া পারিশ্রমিক মেটাচ্ছে না টলি প্রযোজনা সংস্থা, অভিযোগ তুলে পোস্ট শ্রীতমা দে-র

Sritama Dey: বকেয়া পারিশ্রমিক মেটাচ্ছে না টলি প্রযোজনা সংস্থা, অভিযোগ তুলে পোস্ট শ্রীতমা দে-র

প্রযোজনা সংস্থার বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে পোস্ট শ্রীতমার

Sritama Dey: ‘কাজ হারানোর ভয় পাই না’, টলিপাড়ার প্রযোজনা সংস্থার বিরুদ্ধে বকেয়া পারিশ্রমিক না মেটানোর অভিযোগ তুলে ফেসবুকে দীর্ঘ পোস্ট করেন অভিনেত্রী শ্রীতমা দে। 

কাজ হচ্ছে, কিন্তু বকেয়া পারিশ্রমিক পাচ্ছেন না সময় মতো। টলিপাড়ার শিল্পী থেকে কলাকুশলীদের ক্ষেত্রে এ ঘটনা নতুন নয়। প্রযোজনা সংস্থা বকেয়া পারিশ্রমিক দেয়নি! বাধ্য হয়ে প্রযোজনা সংস্থার বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভ উগড়ে দিলেন টলিউডের জনপ্রিয় অভিনেত্রী শ্রীতমা দে।

‘সাহেবের কাটলেট’ ও ‘মহিষাসুরমর্দ্দিনী’র মতো ছবিতে কাজ করেছেন শ্রীতমা। ‘সমরেশ বসুর প্রজাপতি’ ছবিতেও দেখা গিয়েছে তাঁকে। বকেয়া পারিশ্রমিক না মেটানোর অভিযোগ তুলে সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে শ্রীতমা লিখেছেন, ‘দীর্ঘদিন হল শুট শেষ হওয়ার পরেও এখনও টাকা ক্লিয়ার করছে না একটি বড় প্রোডাকশন। তাদের কর্মচারীদের ফোন করলে ফোন তোলে না কেউ। বাধ্য হয়ে কর্ণধার এর স্ত্রী কে ফেসবুকে এ টেক্সট করি কিন্তু ম্যাম এখনও সময় পাননি হয়তো দেখার।'

আরও পড়ুন: চেনা যাচ্ছে এই পুঁচকেকে? ৪৯-এ পা দিলেন এই স্টার কিড,গত বছরই সেরেছেন দ্বিতীয় বিয়ে

<p>শ্রীতমা দে- ফেসবুক পোস্টের স্ক্রিনগ্র্যাব</p>

শ্রীতমা দে- ফেসবুক পোস্টের স্ক্রিনগ্র্যাব

অভিনেত্রী আরও লিখেছেন, 'এদিকে হাউজটির ব্যাক টু ব্যাক সিনেমা থিয়েটারে রিলিজ করছে। টাকা ক্লিয়ার না হওয়ার বা সেই বিষয়ে কোনও আপডেট (কবে পাওয়া যেতে পারে ইত্যাদি) না থাকার কারণ আমার জানা নেই। হয়তো পরের পোস্টে সবাইকে ট্যাগ করতে বাধ্য হব। আমার অনেক বন্ধুরা আমায় বারণ করেছে কেরিয়ারের শুরুর দিক তোর এমন করিস না, তোকে তখন কাজ দেবে না। তাহলে জানিয়ে রাখি সত্যি কথা বলার জন্য কাজ হারাবার ভয় আমি পাই না।’

অভিযুক্ত সংস্থার নাম পোস্টে উল্লেখ করেননি শ্রীতমা। তবে এর আগেই বিষয়টি নিয়ে নেটমাধ্যমের পাতায় লিখেছিলেন অভিনেত্রী। এখনও ইন্ডাস্ট্রিতে তাঁর পায়ের তলার মাটি শক্ত হয়নি। তবে কাজ হারানোর ভয় পান না বলে জানিয়েছেন অভিনেত্রী।

সংবাদমাধ্যমের কাছে অভিনেত্রী জানিয়েছেন, মফস্বলের মেয়ে তিনি। কলকাতায় এসে একা থাকেন। ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করছেন। নিজের সমস্ত খরচ নিজেকেই চালান। শ্রীতমার কথায়, 'অগ্রিম বাবদ প্রথম কিস্তির টাকা ছাড়া এখনও বকেয়া টাকা পাইনি। টাকা চাইতেই এখন ওরা আর কেউ আমার ফোন ধরছেন না। মেসেজের উত্তরও দিচ্ছেন না। অদ্ভুত আচরণ।’

বন্ধ করুন