বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > কান পেতে রই! বৃদ্ধ-বৃদ্ধাদের দিকে বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে দিলেন টলি তারকারা
উদ্যোগের নাম ‘কান পেতে রই’।
উদ্যোগের নাম ‘কান পেতে রই’।

কান পেতে রই! বৃদ্ধ-বৃদ্ধাদের দিকে বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে দিলেন টলি তারকারা

  • কোনও বিশেষজ্ঞ হিসেবে নয়, বয়ষ্ক মানুষগুলোর পাশে তাঁরা থাকবেন একজন বন্ধু হিসেবে। শুনবেন তাঁদের জীবনের না বলা কথা, যা হয়তো এর আগে কেও শোনেনি বা কাওকে বলা হয়ে ওঠেনি।

একদিকে করোনা, অন্য দিকে লকডাউন। যেন থমকে গিয়েছে স্বাভাবিক জীবনের চাকা। কেউ বা সদ্য হারিয়েছেন প্রিয়জনকে। কারও ছেলে-মেয়ে কাজের জন্য আটকে পড়েছেন বাইরের দেশে কিংবা রাজ্যে। একা বাড়িবন্দি দুটো মানুষ। চায়ের ঠেক বা লেকের ধারে যাওয়া যাচ্ছে না করোনার ভয়ে। আর যার ফলে একাকিত্ব বাসা বাঁধছে মনের কোণে। এই সমস্ত বয়োবৃদ্ধ যাঁরা, যাঁরা পরিস্থিতির চাপে পড়ে একলা হয়ে গিয়েছেন, তাঁদের সঙ্গে গল্প করতে, তাঁদের সঙ্গে সময় কাটাতে, তাঁদের দিকে বন্ধুত্বের হাত বাড়িয়ে দিতে এগিয়ে এলেন টলিউড ইন্ডাস্ট্রির একগুচ্ছ তারকা। 

টলিপাড়ার নতুন উদ্যোগ ‘কান পেতে রই’। যাতে সামিল হয়েছেন অভিনেত্রী মানালি দে, লেখক পদ্মনাভ দাশগুপ্ত, পরিচালক প্রেমেন্দু বিকাশ চাকী থেকে শুরু করে পরিচালক উৎসব মুখোপাধ্যায়, লেখিকা ও চিত্রনাট্যকর অদিতি মজুমদার, ক্রিয়েটিভ ডিরেক্টর একতা ভট্টাচার্য। নিঃসঙ্গ বৃদ্ধ-বৃদ্ধাদের পাশে বন্ধুত্বের দাবি নিয়ে হাজির হলেন তাঁরা।

কী করতে হবে তারকাদের সঙ্গে বন্ধুত্ব পাতাতে? ভার্চুয়ালি হওয়া এই আড্ডায় অংশ নিতে বিকেল ৪টে থেকে ৮টার মধ্যে ফোন নম্বর, বয়স এবং পছন্দের সময় জানিয়ে ইনবক্স করতে হবে উদ্যোক্তাদের। এছাড়া ৮২৭৬৯২৮৬৫৯ নম্বরে হোয়াটসঅ্যাপের মাধ্যমেও যোগাযোগ করা যেতে পারে। 

সংবাদমাধ্যমকে মানালি জানান, ‘আমার নিজেরও দাদু রয়েছে। অনেক সময়তেই বয়স্করা অনেক কিছু বলতে পারেন না। হয় তাঁদের কেউ শোনার থাকে না বা অনেক সময় নিজেদেরই বলা হয়ে ওঠে না। তাঁদের জন্যই মূলত এই উদ্যোগ।’ অন্যদিকে অদিতি জানান, বয়ষ্কদের সঙ্গে আড্ডা দিতে তিনি খুব ভালোবাসেন। কারণ তাঁরা মারাদোনা থেকে কিশোর কুমার, সমস্ত টপিকে কথা বলতে পারেন। আর তাঁদের থেকে অনেক কিছু জানা যায়। শুধু তাঁদের জীবনের নানা অভিজ্ঞতার কথা শুনেই সময় কেটে যায়।

বন্ধ করুন