প্রয়াত জিন ডিচ (ছবি-এপি)
প্রয়াত জিন ডিচ (ছবি-এপি)

চলে গেলেন 'টম অ্যান্ড জেরি'র পরিচালক জিন ডিচ

  • চেক রিপাকলিকের রাজধানী প্রাগে নিজের বাসভবনেই মৃত্যু হয়েছে অস্কারজয়ী এই পরিচালক, অঙ্কনশিল্পী ও কার্টুনিস্টের।

দেশ-কালের গন্ডি পেরিয়ে সকলেরই ছেলেবেলা জুড়ে রয়েছে টম অ্যান্ড জেরি। শিশুমনে এদের প্রভাব অনস্বীকার্য। ইঁদুর-বিড়ালের খুনসুটির এই কাহিনি টিভির পর্দায় চলার অর্থই হল সব বয়সী দর্শকের ঠোঁটের কোণায় এক চিলতে হাসি ধরে থাকা। সেই টম অ্যান্ড জেরির পরিচালক জেনে ডিচ চলে গেলেন। বয়স হয়েছিল ৯৫ বছর। এই অস্কারজয়ী অঙ্কনশিল্পী, অ্যানিমেটর, চলচ্চিত্র পরিচালক ও প্রযোজকের মৃত্যু হয়েছে চেক রিপাকলিকের রাজধানী প্রাগে।

তাঁর চেক প্রকাশক পেত্তর হিমেল সংবাদ সংস্থা দ্য অ্যাসোসিয়েট প্রেসকে জানিয়েছে শুক্রবার রাতে নিজের বাসভবনেই মৃত্যু হয়েছে জেনে ডিচের।বার্ধক্যজনিত সমস্যায় না অন্য কোনও কারণে তাঁর মৃত্যু হয়েছে , সেই সম্পর্কে কিছুই জানানো হয়নি।

জিন ডিচের পুরো নাম ইউজিন মেরিল ডিচ। এই বিশ্ববিখ্যাত কার্টুনিস্টের জন্ম ১৯২৪ সালের ৮ আগস্ট মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের শিকাগোতে। 'টম অ্যান্ড জেরি' ছাড়াও 'পপাই' কার্টুন সিরিজও পরিচালনা করেছেন জিন ডিচ। এছাড়াও মুনরো, টম টেরিফিক, নানডিক-সহ বেশ কিছু জনপ্রিয় কার্টুন চরিত্রের স্রষ্টা তিনি।

১৯৬০ সালে স্বল্পদৈর্ঘ্যের অ্যানিমেটেড ছবি মুনরোর জন্য অস্কার পুরস্কার জেতেন ডিচ। এছাড়াও ১৯৬৪ সালে নানডিক এবং হাউ টু অ্যাভোয়েট ফ্রেন্ডশিপের জন্য দুটো অস্কার মনোনয়ন পেয়েছিলেন তিনি।

১৯৬০-৬৩ সালের মধ্যে রেমব্যান্ড ফিল্মের সঙ্গে কাজ করেন ডিচ এবং সেখানে কিংস ফিচার্সের জন্য পপাইয়ের বেশকিছু এপিসোড তৈরি করেন, অন্যদিকে সেই সময়ই এমজিএমের জন্য টম অ্যান্ড জেরি কার্টুনের ১৩টি এপিসোড তৈরি করেছিলেন জিন ডিচ।

২০০৪ সালে তাঁকে অ্যানিমেশনের দুনিয়ায় তাঁর আজীবনের অবদানের জন্য উনসোর এমসিকে পুরস্কারে সম্মানিত করা হয়। তিনি রেখে গেলেন তাঁর স্ত্রী এবং তিন সন্তানকে, যাঁরা সকলেই কার্টুনিস্ট এবং অঙ্কনশিল্পী হিসাবে কাজ করেন।


বন্ধ করুন