বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > নিখিলের সঙ্গে বন্ধুত্ব নিয়ে জোর চর্চা, কালো বিকিনিতে হটনেস অ্যালার্ট ত্রিধার!
নেটমাধ্যমে উষ্ণতার পারদ চড়াচ্ছেন ত্রিধা (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)
নেটমাধ্যমে উষ্ণতার পারদ চড়াচ্ছেন ত্রিধা (ছবি-ইনস্টাগ্রাম)

নিখিলের সঙ্গে বন্ধুত্ব নিয়ে জোর চর্চা, কালো বিকিনিতে হটনেস অ্যালার্ট ত্রিধার!

  • সূর্যের রোদ গায়ে মেখে সাগর তীরে উষ্ণতার পারদ চড়াচ্ছেন ত্রিধা। কালো বিকিনিতে নায়িকার টোনড ফিগার দেখে নেটিজেনরা বলছেন- 'উফ ইয়ে গরমি'!

আপাতত সোশ্যাল মিডিয়ায় চর্চার কেন্দ্রবিন্দুতে ত্রিধা চৌধুরী। নুসরত জাহানের ‘স্বামী’ নিখিল জৈনের সঙ্গে এই নায়িকার বন্ধুত্ব নিয়ে নানান গুঞ্জন দিন কয়েক ধরে উড়ে বেড়াচ্ছে টলিপাড়ায়। সোশ্যাল মিডিয়াতে ভীষণ অ্যাক্টিভ ত্রিধা। বৃহস্পতিবার ইনস্টগ্রামে নিজের বিকিনি লুকের নতুন ছবি প্রকাশ্যে আনলেন নায়িকা, যা নিয়ে হইচই নেটমাধ্যমে। নীল জলে পা ডুবিয়ে কালো বিকিনিতে উষ্ণতার পারদ চড়াচ্ছেন অভিনেত্রী। 

ক্যামেরার লেন্সে চোখ নেই তাঁর, ভেজা চুলে হাত দিয়ে আনমনে তাকিয়ে রয়েছেন অন্যদিকে…সূর্যের আলো এসে পড়ছে ত্রিধার শরীরে। সূর্যের কিরণ গায়ে মেখে ভেজা শরীরে দ্যুতি ছড়াচ্ছেন ত্রিধা।নিঃসন্দেহে এই ছবি অনুরাগীদের হৃদস্পন্দন বাড়িয়ে দিয়েছে কয়েকগুণ। কাজ থেকে ছুটি নিয়ে একান্তে সময় কাটাচ্ছেন ত্রিধা নাকি এটা পুরোনো ছবি? তা অবশ্য স্পষ্ট করে বলেননি নায়িকা। কিন্তু ছবির লোকেশন বলছে এটি পূর্ব আফ্রিকার সেশেলস দ্বীপে তোলা। সমুদ্রের হাতছানি বরাবরই প্রিয় অভিনেত্রীর, তাঁর ইনস্টাগ্রামের দেওয়ালে চোখ বোলালেই এই কথাটা স্পষ্ট হয়ে যায়। ট্রাভেলিং করতে ভীষণ ভালোবাসেন ত্রিধা। 

এই ছবির ক্যাপশনে ত্রিধা লিখেছেন, ‘She was temptation wrapped in a casual elegance'। যার বাংলা তর্জমা করতে দাঁড়ায় 'সে ছিল আকর্ষণ, সাধারণ লালিত্যে ভরা'। সত্যি তো এমন লালিত্য কোন পুরুষকে আকর্ষিত করবে না? 

নিজের টোনড বিকিনি বডি ফ্লন্ট করতে ভীষণ ভালোবাসেন ত্রিধা। গত শনিবারও স্নান পোশাকের একটি সাদাকালো  ছবি পোস্ট করে তিনি মনের কথা ভাগ করে নিয়েছিলেন অনুরাগীদের সঙ্গে লিখেছিলেন, ‘সাদা কালোতেও সমুদ্রের নীলচে ভাব অনুভব করতে পারছি’।

গত সপ্তাহেই সোশ্যাল মিডিয়ায় ত্রিধা বার্তা দিয়েছিলেন ‘বিষাক্ত দাম্পত্যের চেয়ে ডিভোর্স শ্রেয়’। সেই নিয়ে নেটপাড়ায় হইচই কাণ্ড, নিখিল-নুসতের সম্পর্ককে উদ্দেশ করেই কি এই বার্তা দিতে চেয়েছেন অভিনেত্রী? প্রশ্ন ঘোরাফেরা করেছে অনেকের মনেই। 

নিখিল-ত্রিধা একে অপরকে বহুদিন চেনেন। নিখিলের দাবিতে শিলমোহর দিয়ে ত্রিধা এক সাক্ষাত্কারে জানিয়েছেন, ‘নিখিল আর আমি একই স্কুলে পড়েছি, ও আমার চেয়ে ৬ বছরের সিনিয়র। সেই হিসাবেই শুধু আমি ওকে চিনি। এমনও নয় যে খুব ভালো করে চিনি। তবে ওর সঙ্গে যেটুকু কথা হয়েছে সেখানে বাঞ্জি জাম্পিং, ডাইভিং, বেড়ানো- এইসব কমন ইন্টারেস্টের কথা আলোচনা করেছি। আমাদের কোনও ঘনিষ্ঠতা নেই’।

বন্ধ করুন