বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > Trina Saha: বোঝ কাণ্ড! খড়কুটোয় গুনগুন মরে যাওয়ায় কাঁদছে দর্শক, এদিকে সেটে মটন খাচ্ছে তৃণা

Trina Saha: বোঝ কাণ্ড! খড়কুটোয় গুনগুন মরে যাওয়ায় কাঁদছে দর্শক, এদিকে সেটে মটন খাচ্ছে তৃণা

খড়কুটোর শেষ দিন কেমন কাটল গুনগুন ওরফে তৃণা সাহার?

কেমন ছিল ‘খড়কুটো’ ধারাবাহিকের শেষ দিনটা। সেটে কেমন কাটালেন তৃণা সাহা? পড়ুন…

স্টার জলসার ধারাবাহিক ‘খড়কুটো’য় গুনগুনের মৃত্যু দিয়েই শেষ হচ্ছে ধারাবাহিক। গত দু' বছর ধরে দর্শক মনে জায়গা করে নিয়েছিল এই ধারাবাহিক ও তার চরিত্রগুলো। বিশেষ করে গুনগুন আর সৌজন্য। ভালোবেসে যাদের ‘সৌগুন’ নাম দিয়েছিল দর্শক। তবে ধারাবাহিক শেষ হওয়ার আগেই ভেঙে গেল এই জুটি। তবে টিমের পক্ষ থেকে বেশ আয়োজন করেই ফেয়ারওয়েল দেওয়া হল তৃণা সাহাকে।

বহুদিন ধরেই দর্শকরা ধারাবাহিকের লেখিকা লীনা গঙ্গোপাধ্যায়ের কাছে আবেদন করা হচ্ছিল গুনগুনকে মেরে ফেলে যেন ধারাবাহিক শেষ না করেন তিনি। যদিও তেমনটা হল না। ব্রেন টিউমারই কেড়ে নিল গুনগুনের প্রাণ।

তবে দর্শক যতই কাঁদুক বা সেটে সবার টিনাকে বিদায় জানাতে যতই মন খারাপ হোক না কেন, সেলিব্রেশনটা কিন্তু মন্দ হয়নি। বাসমতি চালের ভাত, ইলিশের মাথা দিয়ে ডাল, মটন আর মিষ্টি ছিল মেনুতে। এই প্রসঙ্গে এক বাংলা সংবাদমাধ্যমকে তৃণা জানান, ‘মনখারাপ তো লাগবেই। কিন্তু আমাদের আনন্দে এবং দুঃখের সব সময়ের সঙ্গী খাওয়া-দাওয়া। তো গতকালও তেমনটাই হয়েছে। এগিয়ে তো যেতে হবে।’ আরও পড়ুন: করোনার পরে কেন বলিউড ছবির এত খারাপ হাল? আলিয়া ভাটের উত্তর সবার থেকে আলাদা

সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি পোস্ট শেয়ার করেন তৃণা নিজেও। লিখলেন, ‘আপনাদের কাছ থেকে আসা ভালোবাসা, প্রশংসা, আশীর্বাদ, সমালোচনা, ঘৃণা হাসিমুখে মেনে নিয়েছে গুনগুন চওড়া হাসি আর ইতিবাচক মনোভাব দিয়ে। ধন্যবাদ গুনগুনকে সঙ্গ দেওয়ার জন্য।’

তৃণার এই পোস্টেও কমেন্টের ছড়াছড়ি ভক্তদের। একজন লিখেছেন, ‘গুনগুন তুমিই সেরা। কিন্তু বলতে বাধ্য হচ্ছি শেষটা ভালো হল না। এত মন খারাপ করে দেওয়া একটা শেষ।’ অপরজন লিখেছেন, ‘কেন এইভাবে ছেড়ে চলে গেলে গুনগুন? এইভাবে তো তোমাকে চোখ বন্ধ অবস্থায় দেখতে চাইনি, তুমি যে মুখার্জি বাড়ির খড়কুটো ছিলে.. আজ সত্যিই মুখার্জি বাড়ির খড়কুটো ভেসে চলে গেল।’ অপরভক্ত লিখেছেন, ‘আমার দেখা সেরা ধারাবাহিক ছিল খড়কুটো। গুনগুনের সঙ্গে আমি মুখার্জী পরিবারের সব সদস্যদের মিস করব।’

তৃণার হাতে বড় পরদার একগাদা কাজ রয়েছে। খুব জলদি তৃণাকে দেখা যাবে পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়ের সঙ্গে ‘লহ গৌরঙ্গের নাম রে’ ছবিতে। যার পরিচালনা করছেন সৃজিত। সিনেমায় শ্রীচৈতন্যের ভূমিকায় পরমব্রত চট্টোপাধ্যায়। আর তাঁর স্ত্রী লক্ষ্মীপ্রিয়া হচ্ছেন তৃণা। চৈতন্য অন্তর্ধান রহস্য-ই এই ছবির প্রেক্ষাপট। শুধু তাই নয় অরিন্দম শীলের ইস্কাবনের বিবি-তেও রয়েছেন তিনি মুখ্য চরিত্রে। ‘স্টার জলসা’র মহালয়ারও অংশ হতে চলেছেন তিনি। তবে ভক্ত মনে একটাই প্রশ্ন, আর কি ছোট পরদায় আসবেন তৃণা?

 

বন্ধ করুন