বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > TRP রেটিংয়ে হেরফের করতে BARC-এর প্রাক্তন CEO-কে লক্ষ লক্ষ টাকা দিয়েছেন অর্ণব : মুম্বই পুলিশ
 বিস্ফোরক দাবি মুম্বই পুলিশের 
 বিস্ফোরক দাবি মুম্বই পুলিশের 

TRP রেটিংয়ে হেরফের করতে BARC-এর প্রাক্তন CEO-কে লক্ষ লক্ষ টাকা দিয়েছেন অর্ণব : মুম্বই পুলিশ

  • মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে পার্থ দাশগুপ্তর রিম্যান্ডের কপিতে এ কথাই জানাল মুম্বই পুলিশ।

টেলিভিশন রেটিং-এ হেরফের করতে বার্কের (Broadcast Audience Research Council)-এর প্রাক্তন সিইও পার্থ দাশগুপ্তকে লক্ষ লক্ষ টাকা দিয়েছেন রিপাবলিক টিভির এডিটর ইন চিফ অর্ণব গোস্বামী, এমনই চাঞ্চল্যকর দাবি করল মুম্বই পুলিশ। সোমবার আদালতে নিজেদের বিবৃতিতে এমনটাই জানিয়েছে উদ্ধব সরকারের পুলিশ বাহিনী। এদিন পার্থ দাশগুপ্তের রিম্যান্ডের প্রতিলিপিতে এই দাবি করে মুম্বই পুলিশ। 

ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, পুলিশ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেটকে জানায়, ‘যখন দাশগুপ্ত বর্ডকাস্ট অডিয়েন্স রিসার্চ কাউন্সিলের সিইও ছিলেন তখন অর্ণব গোস্বামী এবং এই মামলার অপর অভিযুক্তরা বেআইনিভাবে রিপাবলিক ভারত (হিন্দি নিউজ চ্যানেল) ও রিপাবলিক টিভি ( ইংরাজি নিউজ চ্যানেল)-এর টিআরপি বাড়ানোর ষড়যন্ত্র রচনা করেছে। আর এই কাজ করবার জন্য একাধিক বার পার্থ দাশগুপ্তকে লক্ষ লক্ষ টাকা দিয়েছেন অর্ণব গোস্বামী, তদন্তে সেই তথ্য-প্রমাণ উঠে এসেছে’। 

মুম্বই পুলিশের দাবি মেনে গতকাল পার্থ দাশগুপ্তর পুলিশ রিম্যান্ডের মেয়াদ ৩০ ডিসেম্বর পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে। মামলার দায়িত্বে থাকা এসিপি শশাঙ্ক সান্ডবহর আদালতে সর্বোচ্চ রিম্যান্ডের দাবি জানিয়েছিলেন। 

পার্থ দাশগুপ্তের ওয়াডালার বাড়িতে হানা দিয়ে ৫৯টি রূপোর বালা, ৬২ জোড়া কানের দুল, ৬টি  আংটি, ১২টা নেকলেস উদ্ধার করেছে পুলিশ। জানা গিয়েছে এই গহনার মূল্য প্রায় ২.২২ লক্ষ টাকা। কিছু প্রপার্টিও সিল করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়া পার্থ দাশগুপ্তের একটি ১ লাখের ঘড়ি, ল্যাপটপ ও আইপ্যাড হেফাজতে নিয়েছে পুলিশ। 

গত অক্টোবরে ভুয়ো টিআরপি মামলা প্রকাশ্যে আসে। সেই সময় মুম্বই পুলিশের সর্বময় কর্তা পরমবীর সিং জানান, ব্রডকাস্ট অডিয়েন্স রিসার্চ কাউন্সিল (BARC) এর তরফে নিযুক্ত ফার্ম হানসার তরফে টেলিভিশন রেটিং পয়েন্টে কারচুপির অভিযোগ পাওয়ার পর তদন্তে নামে মুম্বই পুলিশ। এবং পুলিশ জানায়, টাকা দিয়ে টিআরপি বাড়ানোর কাজে জড়িত তিনটি চ্যানেল। এই মামলায় রিপাবলিক ছাড়াও নাম জড়ায় দুটি স্থানীয় চ্যানেলের। সেই দুটি হল- ফাকত মারাঠি (Fakt Marathi) এবং বক্স সিনেমা (Box Cinema)।

নিজেদের সাংবাদিকতার মধ্যমে মহারাষ্ট্র সরকারকে আক্রমণ শানানোর জেরেই নাকি রিপাবলিকের নাম বদনাম করার চেষ্টা করছে মুম্বই পুলি্শ, পালটা অভিযোগ এনেছিলেন রিপালিক চ্যানেলের এডিটর ইন চিফ অর্ণব গোস্বামী।

বন্ধ করুন