বাংলা নিউজ > বায়োস্কোপ > 'মুসলিম বলেই আমি গ্রেফতার হয়েছি', আদলতে তুনিশার প্রাক্তন, স্থগিত শিজানের জামিনের শুনানি

'মুসলিম বলেই আমি গ্রেফতার হয়েছি', আদলতে তুনিশার প্রাক্তন, স্থগিত শিজানের জামিনের শুনানি

তুনিশা মামলায় জেলেই শিজান

‘লাভ জেহাদ’-এর নামে ফাঁসানো হচ্ছে শিজানকে? আদলতে বিস্ফোরক দাবি তুনিশার প্রাক্তন প্রেমিকের। জামিনের শুনানিতে শিজানের আইনজীবীর দাবি, মৃত্যুর ঠিক আগে আলি নামের এক যুবকের সঙ্গে ভিডিয়ো কলে ১৫ মিনিট কথা হয় তুনিশার। 

আরও দু-রাত থানে সেন্ট্রাল জেলের কুঠুরিতেই কাটবে অভিনেতা শিজান খানের। অভিনেত্রী তুনিশা মৃত্যু মামলায় স্বস্তি পেলেন না শিজান খান। গ্রেফতার অভিনেতার জামিনের শুনানি স্থগিত হয়ে গেল আগামী ১১ই জানুয়ারি পর্যন্ত। এদিন ভাসাই কোর্টে শিজানের আইনজীবী বিস্ফোরক দাবি করেন। 

শিজানের কৌঁসুলির দাবি, মৃত্যুর ঠিক আগে ১৫ মিনিট ভিডিয়ো কলে আলি নামের এক যুবকের সঙ্গে কথা হয় তুনিশার। শিজানের সঙ্গে সম্পর্ক ভাঙার পর ডেটিং অ্যাপ ‘টিন্ডার’-এ অ্যাকাউন্ট খুলেছিলেন তুনিশা। সেই অ্যাপ সূত্রেই নাকি আলির সঙ্গে আলাপ তাঁর। 

গত ২৪শে ডিসেম্বর ‘আলিবাবা-দাস্তান-এ-কবুল’-এর মেকআপ রুমে আত্মহত্যা করেন সিরিয়ালের লিড নায়িকা তুনিশা শর্মা। পরদিন প্রয়াত অভিনেত্রী মায়ের আনা অভিযোগের ভিত্তিতে তুনিশাকে আত্মহত্যায় প্ররোচণা দেওয়ার অভিযোগে গ্রেফতার হন সিরিয়ালের নায়ক তথা তুনিশার প্রাক্তন প্রেমিক শিজান খান। 

এদিন আদালতে নিজের আইনজীবী মারফত শিজান জানান, ‘মুসলিম বলেই আমাকে গ্রেফতার করা হয়েছে, লাভ জিহাদের দৃষ্টিকোণ থেকে মামলা তুলে ধরা হচ্ছে। আমাকে তাঁরা টানা দু-দিন জিজ্ঞাসা করতে পারত, তাহলেই সত্যিটা জানতে পারত। আমাকে গ্রেফতার করার কোনও কারণ নেই’। আদালতে শিজানের আরও দাবি, সহ-অভিনেতা পার্থকে ‘আত্মহত্যার লক্ষণ'-এর কথা জানিয়েছিল তুনিশা, সে কথা শুনে বলে তড়িঘড়ি তুনিশার পরিবারের সঙ্গে যোগযোগ করে শিজান এবং মেয়ের খেয়াল রাখার আবেদন জানায়।

তুনিশাকে উর্দু শিখতে বাধ্য করছিল শিজানের পরিবার, প্রয়াত অভিনেত্রীর মায়ের এই অভিযোগ নিয়ে শিজানের বক্তব্য সে বা তাঁর দুই দিদিই উর্দু ভাষা জানে না। সিরিয়ালের সংলাপ মুখস্থ করে পাঠ করে। অন্যদিকে হিজাব বিতর্কে তাঁর সাফাই, হিজাব পরে তুনিশার যে ছবি ছড়িয়ে পড়েছে সেটি সিরিয়ালের সেটের। স্বপক্ষে প্রমাণও দেয় শিজানের আইনজীবী। 

পরবর্তীতে শিজান খানের জামিনের শুনানি আগামী ১১ই জানুয়ারি অর্থাৎ বুধবার পর্যন্ত স্থগিত করে দেয় ভাসাই কোর্ট। এর আগে তুনিশাকে আত্মহত্যায় প্ররোচণা দেওয়ার অভিযোগে ১৩ই জানুয়ারি পর্যন্ত শিজান খানকে বিচারবিভাগীয় হেফাজতে পাঠিয়েছে আদালত। জানা গিয়েছে, তুনিশার আত্মহত্যার মাত্র দু-সপ্তাহ আগে শিজান প্রয়াত অভিনেত্রীর সঙ্গে সম্পর্ক ভেঙে দেন। তুনিশার মায়ের অভিযোগ, মেয়ে অ্যানসাইটি ডিসওর্ডারের শিকার জেনেও সম্পর্কে জড়িয়েছিল শিজান, মাঝপথে তুনিশার হাত ছেড়ে দেয় সে। শুধু তাই নয়, শিজান চড় মেরেছিল তুনিশাকে এমন বিস্ফোরক দাবিও করেছেন প্রয়াত অভিনেত্রীর মা। শিজানের সঙ্গে ব্রেক-আপের পরই নাকি পুরোপুরি ভেঙে পড়েছিল তুনিশা, দাবি মা বণিতা শর্মার।

সম্প্রতি তিনি আরও দাবি করেছেন, তুনিশাকে যখন মেকআপ রুম থেকে ঝুলন্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয়, তখনও শ্বাস চলছিল তাঁর। তবে পাঁচ মিনিট দূরের হাসাপতালে না নিয়ে গিয়ে ‘ইচ্ছাকৃতভাবে’ দূরের হাসপাতালে তুনিশাকে নিয়ে যায় শিজান। শিজান মেয়েকে ‘খুন’ করেছে বলে নতুন দাবি তুলেছেন বণিতা শর্মা। 

 

বন্ধ করুন